BREAKING NEWS

১৯ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  সোমবার ৬ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

Coronavirus: রাজ্যে একদিনে করোনা আক্রান্ত ৮৪৬ জন, ফের খুলছে সেফ হোম ও কোয়ারেন্টাইন সেন্টার

Published by: Sayani Sen |    Posted: October 22, 2021 7:31 pm|    Updated: October 22, 2021 9:20 pm

West Bengal reports 846 fresh covid cases in last 24 hours। Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রাজ্যে ফের বাড়ল করোনা (Coronavirus) সংক্রমণ। তবে সামান্য কমল মৃতের সংখ্যা। কমল পজিটিভিটি রেটও। তবে দৈনিক করোনা সংক্রমণের গ্রাফ ঊর্ধ্বমুখী হওয়ায় উৎসবের মরশুমে দুশ্চিন্তা বাড়ছে সকলেরই। সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসাবে কলকাতা পুরসভা একটি সেফ হোম, একটি কোয়ারেন্টাইন সেন্টার ও করোনা আক্রান্ত শিশুদের মায়ের সঙ্গে থাকার পৃথক সেফ হোম চালুর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সোমবার থেকেই খুলবে সেগুলি। স্বাস্থ্যকর্মীদের পুজোর ছুটিও বাতিল করা হয়েছে।

রাজ্য স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ দপ্তরের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত হয়েছে ৮৪৬ জন। দৈনিক সংক্রমণের নিরিখে শীর্ষে কলকাতা। তিলোত্তমায় একদিনে ২৪২ জনের শরীরে করোনা থাবা বসিয়েছে। তারপরই রয়েছে উত্তর ২৪ পরগনা। সেখানে একদিনে আক্রান্ত ১১৬ জন। রাজ্যে এখনও পর্যন্ত মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ১৫ লক্ষ ৮৪ হাজার ৪৯২ জন।

[আরও পড়ুন: দাউদাউ করে জ্বলছে চেতলার ঝুপড়ি, আগুনে ঝলসে গেল ২ শিশু-সহ চারজন]

দৈনিক সংক্রমণের গ্রাফ ঊর্ধ্বমুখী হলেও সামান্য কমেছে মৃতের সংখ্যা। তবে গত ২৪ ঘণ্টায় মৃতের সংখ্যা কমেছে বেশ খানিকটা। একদিনে করোনায় ১২ জনের প্রাণহানি হয়েছে। বৃহস্পতিবার সেই সংখ্যাটা ছিল ১৪। এখনও পর্যন্ত করোনা প্রাণ কেড়েছে ১৯ হাজার ৩৩ জনের। উল্লেখযোগ্যভাবে কমেছে পজিটিভিটি রেট। বর্তমানে রাজ্যে পজিটিভিটি রেট ২.১০ শতাংশ। একদিনে করোনাকে হারিয়ে সুস্থ হয়েছেন ৭৯২ জন। এখনও পর্যন্ত মোট ১ কোটি ৮৮ লক্ষ ৪২ হাজার ৪০৮ জনের নমুনা পরীক্ষা হয়েছে।

দেশে ১০০ কোটি করোনা টিকাকরণ সম্পূর্ণ হয়েছে। বাংলায় এদিন মোট ১২ লক্ষ ২৯ হাজার ৫৬৫ জনের করোনা টিকা পেয়েছেন। তার মধ্যে প্রথম ডোজ পেয়েছেন ৮ লক্ষ ৩৭ হাজার ৩৭৯ জন। বাকি ৩ লক্ষ ৯২ হাজার ১৮৬ জন পেয়েছেন ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় ডোজ। তবে উৎসবের মরশুমে করোনার গ্রাফ সকলের চিন্তার ভাঁজ চওড়া করেছে। এই পরিস্থিতিতে কলকাতায় একটি কোয়ারেন্টাইন সেন্টার এবং দু’টি সেফ হোম খোলা হয়েছে। ট্যাংরা চম্পামণি মাতৃসদন সেফ হোম, হরেকৃষ্ণ শেঠ লেন সেফ হোম এবং তপসিয়ার কোয়ারেন্টাইন সেন্টার খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলেই জানান কলকাতা পুরসভার স্বাস্থ্যবিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রশাসক মণ্ডলীর সদস্য অতীন ঘোষ। 

[আরও পড়ুন: ‘মাস্ক পরা অভ্যাসে পরিণত করুন, উৎসবে সতর্ক থাকুন’, একনজরে প্রধানমন্ত্রীর ভাষণের ৭ পয়েন্ট]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে