BREAKING NEWS

১৭ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  শনিবার ৪ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

‘বোতল ধরিয়ে দিলেই বুদ্ধিজীবীরা তৃণমূলের’, বিতর্কিত মন্তব্য সায়ন্তনের

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: July 27, 2019 9:00 am|    Updated: July 27, 2019 12:59 pm

West Bengal state BJP leader Sayantan Basu sparks controversy

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের কুকথা বিজেপি নেতা সায়ন্তন বসুর। এবার বুদ্ধিজীবীদের জড়িয়ে করা তাঁর মন্তব্যের জন্য সমালোচিত বঙ্গ বিজেপির এই গুরুত্বপূর্ণ মুখ। সম্প্রতি দেশজুড়ে চলতে থাকা অসহিষ্ণুতার আবহ নিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে খোলা চিঠি লিখেছেন ৪৯ জন সেলিব্রিটি তথা বুদ্ধিজীবী। এ প্রসঙ্গে সায়ন্তনের দাবি, ‘এইসব বুদ্ধিজীবীরা ভাড়া খাটে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ফোন করে সন্ধেয় একটা বোতল ধরিয়ে দিলে ওরা তৃণমূলের হয়ে লাফালাফি করে। বিজেপি কর্মী খুন হলে এদের চোখে জল আসে না। এরা চুপ থাকে। আমরা এদের কথায় গুরুত্ব দিই না।’

[আরও পড়ুন: মুখ্যমন্ত্রীর বৈঠকে ‘বিদ্রোহী’ সব্যসাচী, জলাজমি ভরাটের প্রসঙ্গ তুলে মমতার দৃষ্টি আকর্ষণ]

এখানেই থেমে থাকেননি বিজেপি নেতা। তাঁর বক্তব্য যেন উত্তরোত্তর মাত্রা ছাড়িয়ে যাচ্ছিল। প্রধানমন্ত্রীকে বুদ্ধিজীবীদের দেওয়া চিঠি প্রসঙ্গে রাজ্য বিজেপির সাধারণ সম্পাদকের বক্তব্য, “যারা জয় শ্রীরাম বলা নিয়ে নালিশ জানাতে গিয়েছে তাঁরা ৫০০ টাকার কেনা গোলাম। এই বুদ্ধিজীবীরা টাকার বিনিময়ে বিক্রি হয়, মদের বোতলের বিনিময়ে বিক্রি হয়। তৃণমূল এদের কিনে নিয়েছে। এদের ভাড়া পাওয়া যায়, তাই এদের কথা শোনার কোনও দরকার নেই।” বিজেপি নেতার অভিযোগ, গেরুয়া শিবিরের নেতাকর্মীরা আক্রান্ত হলে বা খুন হলে এই বুদ্ধিজীবীরা মুখ খোলেন না। বিজেপির বিরুদ্ধে অভিযোগ হলেই মুখ খোলেন। তিনি বলেন, “জয় শ্রীরাম বলার জন্য যখন বিজেপির নেতাকর্মীরা খুন হন তখন এদের দেখা যায় না। সন্দেশখালিতে যখন আমাদের কর্মী খুন হল তখন এরা প্রতিবাদ করল না। আমাদের জেলা সভাপতি সুবীর নাগ যদি বলেন, একটা কিছু দেব, তাহলে ওরা এসে সুবীর নাগ জিন্দাবাদ বলা শুরু করবে। এরা কেউ রামমোহন বা বিদ্যাসাগর নয়, এদের কথা শোনার দরকার নেই।”

রাজ্য বিজেপির সাধারণ সম্পাদকের বক্তব্য, “যারা জয় শ্রীরাম বলা নিয়ে নালিশ জানাতে গিয়েছে তাঁরা ৫০০ টাকার কেনা গোলাম। এই বুদ্ধিজীবীরা টাকার বিনিময়ে বিক্রি হয়, মদের বোতলের বিনিময়ে বিক্রি হয়। তৃণমূল এদের কিনে নিয়েছে।

[আরও পড়ুন: ‘চাইলেই সব মিলবে না, সরকারের টাকার অবস্থা ভাল নয়’, কড়া মন্তব্য মমতার]

সায়ন্তন বসুর আক্ষেপ, “ভাল হত যদি এই বুদ্ধিজীবীরা জয় শ্রীরাম বলার জন্য আমাদের যে সব কর্মীদের মারা হয়েছে তারপর চিঠি দিত। হুগলি জেলায় অধ‍্যাপককে রাস্তায় ফেলে পেটানো হল, তারপর যদি চিঠি দেওয়া হত তাহলে তাদের মুখটা রক্ষা হত। সামান্য কয়েকটা টাকার জন্য এরা যে কাণ্ড করছে তা মেনে নেওয়া যায় না। এরা যেখান যাবে আমরা সেখানে বিক্ষোভ দেখাব। আমার দলের কর্মীরা ওনাদেরকে ঔষুধ দেওয়ার জন্য তৈরি আছে।” বিজেপি নেতার এই বক্তব্যের পর সোশ্যাল মিডিয়ায় নিন্দার ঝড় উঠছে। যদিও, কুকথা বলাটা সায়ন্তন বসুর ক্ষেত্রে নতুন কিছু নয়। এর আগে লোকসভা ভোটের প্রচার চলাকালীন একাধিকবার বিতর্কিত মন্তব্য শোনা গিয়েছে বিজেপি নেতার গলায়।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে