১৪  আশ্বিন  ১৪২৯  মঙ্গলবার ৪ অক্টোবর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

পরকীয়া সন্দেহের বশে গলার নলি কেটে স্ত্রীকে খুন বায়ুসেনা কর্মীর! চাঞ্চল্য পলতায়

Published by: Sulaya Singha |    Posted: April 9, 2022 10:47 am|    Updated: April 9, 2022 1:11 pm

Woman allegedly killed by her husband in Palta | Sangbad Pratidin

ছবি: প্রতীকী

অর্ণব দাস: গলার নলি কাটা। ধড় ও মাথা প্রায় আলাদা হয়ে গিয়েছে। ঘরের মেঝে ভাসছে রক্তে। শুক্রবার সন্ধেয় উত্তর বারাকপুর পুরসভার পলতার জহর কলোনিতে বায়ুসেনা কর্মীর বাড়ি থেকে এই অবস্থাতেই উদ্ধার করা হল তাঁর স্ত্রীকে। পরকীয়া সম্পর্কে জড়িয়েছেন স্ত্রী। এই সন্দেহের জেরেই তাঁকে খুনের অভিযোগ উঠেছে স্বামীর বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত বায়ুসেনা কর্মীকে গ্রেপ্তার করে জিজ্ঞাসাবাদ করছে নোয়াপাড়া থানার পুলিশ।

জানা গিয়েছে, পুলিশ জানিয়েছে, মৃতার নাম রঞ্জনা দেবী। বয়স তিরিশ। অমরলালকে বারাকপুর সেনা ছাউনিতে কর্মরত। সপ্তাহ দুয়েক আগেই স্ত্রী ও দুই মেয়েকে নিয়ে পলতার ভাড়া বাড়িতে থাকতে শুরু করেছিলেন। কিন্তু তাঁর সন্দেহ হয়েছিল, তৃতীয় কোনও ব্যক্তির সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়েছেন স্ত্রী। সেই সন্দেহের বশেই তাঁকে ধারাল অস্ত্র দিয়ে খুন করা হয়েছে বলে অভিযোগ।

[আরও পড়ুন: পড়ুয়া বোঝাই স্কুলবাস নিখোঁজ কাণ্ড: সন্তানদের স্কুলে পাঠাতে নারাজ আতঙ্কিত অভিভাবকরা]

ranjana
নিহত রঞ্জনা দেবী

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় নোয়াপাড়া থানার পুলিশ। রক্তাক্ত অবস্থায় দেহটি উদ্ধা করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়। এরপর পুলিশ মৃতার স্বামীকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করে। বেশ কিছু প্রশ্নের উত্তরে অসংজ্ঞতি দেখা যায়। অভিযুক্তের বড় মেয়ের বক্তব্যের সঙ্গে তাঁর কথাও মেলেনি। তখনই সন্দেহ দানা বাঁধে। এরপরই তাঁকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পরে নিজের অপরাধ স্বীকারও করে নেন তিনি। 

স্থানীয় বাসিন্দা সৌরভ মল্লিক বলেন, “দম্পতি দিন পনেরো আগে এই বাড়িতে ভাড়া নিয়ে এসেছিলেন। মৃতার স্বামী বায়ুসেনার কর্মী। এদিন তিনি দুই মেয়েকে নিয়ে পার্কে ঘুরতে গিয়েছিলেন বলে শুনেছি। ফিরে এসে তিনি স্ত্রীকে রক্তাক্ত অবস্থায় দেখে প্রতিবেশীদের খবর দেন।” কিন্তু তিন ও সাত বছর বয়সের দুই মেয়েকে নিয়ে পার্কে যাওয়ার আগেই বিকেলে স্ত্রীকে খুন করে বিছানায় মৃতদেহ ফেলে বাড়ি থেকে বেরিয়ে গিয়েছিলেন অমরলাল। জেরায় ভেঙে পড়ে এমনটাই স্বীকার করে নেন তিনি। মৃতার ভাই জানান, মাঝেমধ্যেই তাঁর দিদিকে মারধর করতেন অমরলাল। এমনকী এর আগে একবার রঞ্জনা দেবীর গায়ে আগুন লাগিয়ে খুনের চেষ্টাও করেছিলেন।

[আরও পড়ুন: ভারতবিরোধী হামলার চক্রান্তকারী! এবার হাফিজ সইদের ছেলেকে ‘সন্ত্রাসবাদী’র তকমা কেন্দ্রের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে