১ আশ্বিন  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

বিক্রম রায়, কোচবিহার: ভালবেসে বিয়ে করেছিলেন। দুই সন্তানকে নিয়ে সুখেই কাটছিল দাম্পত্য জীবন। আচমকা স্বামীর মৃত্যু সবকিছু ওলোটপালট করে দিল! শোকে বাড়ির থেকে ছাদ থেকে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করলেন স্ত্রীও। মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে কোচবিহারে।

[আরও পড়ুন: বাড়িতে না জানিয়ে ‘নাইট আউট’, বাবার বকুনি খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা ছেলের]

কোচবিহার শহরের সুনীতি রোড বাই লেনে সপরিবারে থাকতেন অভিজিৎ গুহ। শহরে একটি প্যাথোলজিক্যাল ল্যাব চালাতেন তিনি। স্ত্রী ঋদ্ধি ও দুই সন্তানকে নিয়ে সুখের সংসার। পরিবারের লোকেরা জানিয়েছেন, তেমন কোনও শারীরিক সমস্যা ছিল না। রবিবার রাতে আচমকাই হৃদরোগে আক্রান্ত হন অভিজিৎ। তড়িঘড়ি তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয় কোচবিহার শহরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে। কিন্তু শেষরক্ষা হয়নি। সোমবার রাতে হাসপাতালে মারা যান তিনি। শেষ সময়ে স্বামীর কাছেই ছিলেন মহিলা। মঙ্গলবার সকালে যখন অভিজিতের দেহ বাড়িতে আনার প্রস্তুতি চলছে, তখন তিনতলা বাড়ির ছাদ থেকে ঝাঁপ দেন মৃতের স্ত্রী। হাসপাতালে নিয়ে গেলে তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা। ঘটনার আকস্মিকতায় হতবাক সকলেই।  

কিন্তু, কেন এমন কাণ্ড ঘটালেন অভিজিৎ গুহের স্ত্রী? পরিবারের লোকেরা জানিয়েছেন, বারো বছর আগে ভালবেসে বিয়ে করেছিলেন দম্পতি। একে অপরকে খুবই ভালবাসতেন তাঁরা। সব জায়গায় একসঙ্গেই যেতেন অভিজিৎ ও ঋদ্ধি। হঠাৎ করে স্বামীর মৃত্যু মেনে নিতে পারেননি ওই গৃহবধূ। স্বামীর শোকেই আত্মহত্যা করেছেন তিনি।

ছবি: দেবাশিস বিশ্বাস

[আরও পড়ুন: সকালেই নামল সন্ধে, ব্যাপক ঝড়বৃষ্টিতে বিপর্যস্ত উত্তরবঙ্গের জনজীবন]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং