২ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  মঙ্গলবার ১৯ নভেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

দেবব্রত মণ্ডল, বারুইপুর: অনলাইনে খাবারে ঝোঁক বাড়লেও বিপত্তি কম নয়। এমন এক সংস্থাকে খাবারের অর্ডার দিয়ে দশ হাজার টাকা খুইয়ে ফেললেন এক তরুণী।

নরেন্দ্রপুর কামালগাজির বাসিন্দা শ্রুতি বিশ্বাস খাবার সরবরাহকারী সংস্থা জোম্যাটোতে খাবারের অর্ডার দেন। সময়মতো খাবার না আসায় ওই তরুণী জোম্যাটোর কাস্টমার কেয়ারে ফোন করেন। তখনই ওপার থেকে জানানো হয় অভিযোগের বিষয়টি জানাতে কল ট্রান্সফার করা হচ্ছে। ট্রান্সফার করার পর নির্দিষ্ট ব্যক্তিতে বিষয়টি জানান ওই তরুণী। সেখান থেকে বলা হয়, অনলাইনে একটি ফর্ম দেওয়া হবে। তাতে ব্যাংক ডিটেলস দিলে সেখানে টাকা ট্রান্সফার করা হবে। মোটকথা যে টাকা খরচ করেছিলেন, খাবার না আসায় সেই টাকা ফেরত পেয়ে যাবেন তিনি। তরুণী সেই ফর্ম ফিলাপ করে ব্যাংক ডিটেলস দেওয়া মাত্রই তাঁর অ্যাকাউন্ট থেকে ১০ হাজার ৮০০ টাকা উধাও হয়ে যায়। এই নিয়ে শুক্রবার তরুণী নরেন্দ্রপুর থানায় অভিযোগ জানিয়েছেন।

[ আরও পড়ুন: কোথায় রাখা হয়েছে সন্ময়কে? খড়দহ থানায় তুমুল বিক্ষোভ বাম-কংগ্রেসের ]

জোম্যাটোর নামে এর আগে একাধিক অভিযোগ দায়ের হয়েছে। এক ডেলিভারি বয় খাবারের প্যাক খুলে নিজেই খেয়ে তা আবার প্যাক করে। এই ছবি ভাইরাল হতেই শুরু হয়েছিল হইচই। এর পর খাবারে ঢুকে পড়ে ধর্মীয় ভাবাবেগ। এনিয়ে হাওড়ায় শুরু হয়েছিল ঝামেলা। এর পর অভিযোগ নেওয়ার নামে ব্যাংক অ্যাকাউন্ট অভিনব প্রথায় নিয়ে টাকা তুলে নেওয়ার মতো ঘটনায় রীতিমতো স্তম্ভিত গ্রাহকরা। তবে কি এক শ্রেণির কর্মী প্রতারণা সংস্থার সঙ্গে হাত মিলিয়ে গ্রাহকের টাকা আত্মসাৎ করতে নেমেছে? এই প্রশ্ন এখন বড় করে দেখা দিয়েছে। যদিও নরেন্দ্রপুরের ঘটনাটি নিয়ে জোম্যাটোর তরফে কোনওরকম উত্তর পাওয়া যায়নি। তবে নরেন্দ্রপুর থানার পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

[ আরও পড়ুন: সুপারি কিলার দিয়ে খুন! নিমতায় ম্যানেজমেন্ট পড়ুয়ার হত্যাকাণ্ডে জেরা বান্ধবীকে ]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং