৫ আশ্বিন  ১৪২৬  সোমবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

নবেন্দু ঘোষ, বসিরহাট: সন্তানের আশায় তান্ত্রিকের কথামতো দুই শিশুকে খুনের অভিযোগ৷ মহিলার বাড়িতে আগুন লাগিয়ে বিক্ষোভে শামিল ক্ষুব্ধ গ্রামবাসী৷ উত্তর ২৪ পরগনার স্বরূপনগরের কাবিলপুরের ঘটনা৷ স্বরূপনগর এবং বাদুড়িয়া থানার বিশাল পুলিশবাহিনী পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার চেষ্টা করছে৷

[আরও পড়ুন: ‘গণতন্ত্র কাঁদছে’, চিদম্বরমের গ্রেপ্তারি নিয়ে কড়া প্রতিক্রিয়া মমতার]

আলপনা ঘোষ নামে ওই মহিলা দীর্ঘদিন ধরেই উত্তর ২৪ পরগনার স্বরূপনগরের কাবিলপুরের বাসিন্দা৷ তার মেয়ের বিয়ের পরই যমজ কন্যাসন্তানের জন্ম দেয়৷ বহু বছর কেটে গেলেও আর সন্তান নেই তার৷ চিকিৎসকের কাছে গিয়েও লাভ কিছুই হয়নি৷ সন্তানলাভের আশায় অবশেষে তান্ত্রিকের দ্বারস্থ হয়েছিলেন আলপনা ও তার মেয়ে৷ সেই তান্ত্রিকই মহিলাকে নির্দেশ দেয় বেশ কয়েকজনকে বিষ খাইয়ে খুন করতে পারলেই সন্তানের জন্ম দিতে পারবেন মহিলা৷ স্থানীয়দের অভিযোগ, তার কথামতোই আলপনা তার মেয়েকে নিয়ে এলাকার বেশ কয়েকজনকে বিষ খাওয়াও৷ এলাকাবাসীর আরও অভিযোগ আলপনা এবং তার মেয়ের দেওয়া বিষ খেয়েই ইতিমধ্যে দু’জন মারা গিয়েছেন৷ বৃহস্পতিবার এই ঘটনাকে কেন্দ্র করেই গোটা এলাকায় প্রায় আগুন জ্বলে ওঠে৷ উত্তেজিত গ্রামবাসী আলপনা ঘোষের বাড়ি ঘিরে ফেলে৷ তার বাড়িতে আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয়৷

Basirhat
মহিলার বাড়িতে আগুন গ্রামবাসীর

অশান্তির কথা পুলিশের কানে পৌঁছতে বিশেষ সময় লাগেনি৷ স্বরূপনগর এবং বাদুড়িয়া থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছায়৷ ওই মহিলার বাড়ি ঘিরে ফেলে পুলিশকর্মীরা৷ উত্তেজিত জনতাকে হঠিয়ে পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার চেষ্টা করা হয়৷ দু’জনকে খুন করার অভিযোগে অবিলম্বে আলপনা ও তার মেয়েকে গ্রেপ্তারির দাবিতে সরব স্থানীয়রা৷ বাড়িতে তাণ্ডব চালানোর অভিযোগে  পুলিশ সাতজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে৷ যদিও ওই মহিলা এবং তান্ত্রিককে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ৷ 

Basirhat
তাণ্ডব চালানোর অভিযোগে গ্রেপ্তার ৭

[আরও পড়ুন: বোমা বাঁধতে গিয়ে ধারাবাহিক বিস্ফোরণ, মৃত ১ দুষ্কৃতী]

স্থানীয়দের দাবি, তান্ত্রিককে কখনও চোখেই দেখেননি তাঁরা৷ তান্ত্রিকের পরিচিতি নিয়ে তাই ধন্দে সকলেই৷ আলপনাকে জিজ্ঞাসাবাদ না করা পর্যন্ত গোটা ঘটনা সম্পর্কে ধারণা পাওয়া কার্যত অসম্ভব বলেই দাবি পুলিশ আধিকারিকদের৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং