১ কার্তিক  ১৪২৬  শনিবার ১৯ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

১ কার্তিক  ১৪২৬  শনিবার ১৯ অক্টোবর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ছেলে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়ের চুলের মুঠি ধরে মারছে। সম্প্রতি বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম এবং সোশ্যাল মিডিয়ায় এমন ছবিই ভাইরাল হয়েছে। তারপর থেকে চোখের পাতা এক করতে পারছেন না সংস্কৃত কলেজের ভাষা বিজ্ঞানের ছাত্র দেবাঞ্জন বল্লভের ক্যানসার আক্রান্ত মা। হাতজোড় করে বাবুল সুপ্রিয়ের কাছে ছেলেকে ক্ষমা করে দেওয়ার আরজি জানিয়েছেন তিনি। অসুস্থ মায়ের কাতর আর্তিতে সাড়া দিলেন বাবুল। দেবাঞ্জনের বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নেবেন না বলেই টুইটে জানিয়েছেন তিনি।

[আরও পড়ুন: যাদবপুরে বাবুলকে নিগ্রহে নাম জড়িয়েছে ছেলের, আতঙ্কে দেবাঞ্জনের পরিবার]

বাবা এবং মায়ের একমাত্র সন্তান দেবাঞ্জন বল্লভ। তার বাবা চন্দন বল্লভ বর্ধমান টাউন স্কুলের শিক্ষক। চন্দনবাবু ওই স্কুলেই ১৯৯৪ সাল থেকে শিক্ষকতা করছেন। রায়নার সহজপুরের আদি বাসিন্দা তিনি। তবে বর্তমানে চন্দনবাবু স্ত্রীকে নিয়ে থাকেন টাউন স্কুলের স্টাফ কোয়ার্টারে। একমাত্র ছেলে বাড়ি থেকে বেশ কয়েক কিলোমিটার দূরে সংস্কৃত কলেজের ভাষা বিজ্ঞানের ছাত্র। ক্যানসার আক্রান্ত স্ত্রীকে নিয়ে বেশ দিব্যি কাটছিল দিন। কিন্তু বৃহস্পতিবার যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে বাবুল সুপ্রিয়কে প্রায় ছ’ঘণ্টা ধরে আটকে রেখে বিক্ষোভের ঘটনায় নাম জড়িয়েছে ছেলে দেবাঞ্জন বল্লভের।

Debanjan Ballav

আর তারপর থেকে রাতের ঘুম উড়েছে বাবা-মা। দুশ্চিন্তায় স্বাভাবিক জীবনযাপনও করতে পারছেন না তাঁরা। স্কুল যাওয়া বন্ধ করে দিয়েছেন বাবা। ছেলের ছবি সংবাদমাধ্যম এবং সোশ্যাল মিডিয়ায় দেখার পর থেকে আরও অসুস্থ হয়ে পড়েছেন দেবাঞ্জনের ক্যানসার আক্রান্ত মা রূপালি বল্লভ। হাতজোড় করে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর কাছে ছেলের হয়ে ক্ষমা চেয়ে নিয়েছেন তিনি।

[আরও পড়ুন: বীরভূমে বিজেপি নেতার বাড়িতে ভয়াবহ বিস্ফোরণ, উড়ল দোতলার টিনের চালা]

চিন্তিত মায়ের পাশে দাঁড়িয়েছেন খোদ বাবুল সুপ্রিয়। ছেলের কোনও ক্ষতি করবেন না বলে আশ্বাস দিয়েছেন তিনি। দেবাঞ্জনের বিরুদ্ধে কোনও আইনি ব্যবস্থা নেবেন না বলেও জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। বাবুল সুপ্রিয়ের আশ্বাসের পর যদিও কিছুটা হলেও আশ্বস্ত হয়েছেন দেবাঞ্জনের মা।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং