Advertisement
Advertisement
Philosophy

উচ্চমাধ্যমিকের পর দর্শন নিয়ে পড়বেন? জেনে নিন কোথায় মিলতে পারে চাকরির সুযোগ

দর্শন পড়ে কোনও ভবিষ্যই নেই, এই ধারণা কিন্তু একেবারেই ভুল।

Career in Philosophy after higher secondary exam

প্রতীকী ছবি।

Published by: Subhankar Patra
  • Posted:April 11, 2024 5:02 pm
  • Updated:April 11, 2024 5:02 pm

ফিলোজফির ভবিষ‌্যৎ নেই, এই ভ্রান্ত ধারণা ভাঙুন। সরকারি-বেসরকারি চাকরি পেতে অনেকটা এগিয়ে থাকে দর্শন-পড়ুয়ারা। জানালেন যাদবপুর বিশ্ববিদ‌্যালয়ের দর্শনের অধ‌্যাপিকা ড. মধুমিতা চট্টোপাধ‌্যায়। লেখায় অনিন্দ‌্য সিংহ চৌধুরি।

স্বামী বিবেকানন্দ (Swami Vivekananda)  অনুভব করেছিলেন, দেশের ভবিষ্যৎ জনগণের ওপর নির্ভর করে। তাই কেবলমাত্র শিক্ষার্থীই নয় বরং প্রতিটি মানুষেরই দর্শন বিষয়ে প্রাথমিক ধারণা থাকা অপরিহার্য। আসলে, দর্শন হল জগৎ, জীবন ও অভিজ্ঞতা বিষয়ে সামগ্রিক ও সুশৃঙ্খল আলোচনা। ধর্ম, নৈতিকতা, সমাজ ও রাষ্ট্র সবকিছুর সঙ্গেই ‘দর্শন’ সম্পৃক্ত। সমৃদ্ধ মানবিক পরিবেশ ও সামাজিক সুসম্পর্ক বজায় রাখার জন্য একটি সংযত সুশৃঙ্খল বিচারশীল মন অত্যাবশ্যক, যা অর্জন করতে শেখানোই দর্শনের লক্ষ্য। তাই ক্লাস টেনের বোর্ড পরীক্ষার পরই উচ্চমাধ‌্যমিকে আর্টসের (Arts) ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে ‘দর্শন’ বা ‘ফিলোজফি’ (Philosophy) নিয়ে পড়ার আগ্রহ থাকে। কেননা, একে তো ভবিষ‌্যতে দর্শন নিয়ে পড়ার সুযোগ থাকে, শুধু তাই নয়, দর্শনে যেহেতু সাইকোলজি থাকে, অনেকেই তা নিয়েও এগিয়ে যায়। আবার দর্শনে ‘লজিক’ থাকে, যা ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে কোনও বিষয়ে বিশ্লেষণ করার ক্ষমতাকে বাড়িয়ে তোলে। প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষায় এই গুণ ভীষণ কাজে দেয়।

Advertisement

কাজের বাজারেও কিন্তু দর্শনের পড়ুয়াদের ভালো চাহিদা আছে। অনেকেই ভাবতে পারে, দর্শন পড়ে কোনও ভবিষ‌্যৎ নেই, এই ধারণা একেবারেই ভুল। কেননা, একে তো দেশে-বিদেশে উচ্চশিক্ষার বিরাট সুযোগ রয়েছে। অন‌্যদিকে, স্কুল-কলেজে শিক্ষকতা থেকে শুরু করে ব‌্যাঙ্ক-কর্পোরেট সংস্থায় উচ্চপদ বা আমলা হওয়া যায়। সেই কারণে, আগের থেকে এখন দর্শন নিয়ে পড়ুয়াদের মধ্যেই ভবিষ‌্যৎ গড়ার ঝোঁক অনেকটাই বেশি। আর হবেই বা না কেন, কেননা, কাজের সুযোগ অনেক বেড়েছে। বিশেষজ্ঞদের ধারণা, আগামী সময়ে আরও বাড়বে।

Advertisement

[আরও পড়ুন: আইআইইএসটি শিবপুরে কর্মী নিয়োগ, জেনে নিন আবেদনের পদ্ধতি]

শিক্ষকতা
স্কুল থেকে কলেজ বা বিশ্ববিদ‌্যালয়, প্রতিটি ক্ষেত্রে দর্শন নিয়ে পড়া ছাত্রছাত্রীদের ভালো সুযোগ রয়েছে। সবচেয়ে বড় ব‌্যাপার, এখনকার দিনে বেসরকারি স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ‌্যালয় তৈরি হওয়ায়, সেখানেও দর্শন সাবজেক্ট থাকায় সেখানেও সরকারি স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ‌্যালয়ের মতো বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলিতেও শিক্ষকতার ভালো সুযোগ তৈরি হয়েছে। অনেকে স্নাতকের পর শিক্ষকতা করছে।

‘এথিক্স’ কমিটিতে কাজ
বর্তমান শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে কর্পোরেট সংস্থা বা ব‌্যাঙ্ক কিংবা প্রায় প্রত্যেকটি সংস্থাতেই ‘এথিক্স কমিটি’ রয়েছে। আর সেখানে এখন দেখা যাচ্ছে, দর্শন নিয়ে পড়া ছাত্রছাত্রীদের বেশি করে সুযোগ দেওয়া হচ্ছে। বিশেষজ্ঞদের মত, আগামিদিনে দেশের প্রায় প্রতিটি ছোট-মাঝারি-বড় কোম্পানিতে এই ধরনের কমিটি রাখা হবে, তাই ওই কমিটিতে দর্শনে স্নাতক বা মাস্টার্স করা ছাত্রছাত্রীদের কাজের সুযোগ হবে।

ব‌্যাঙ্ক থেকে এনজিও
ব‌্যাঙ্কের উচ্চপদ থেকে কর্মী, দেখা গিয়েছে যে দর্শনের পড়ুয়াদের অনেকে তাতে যোগ দিচ্ছে। শুধু পশ্চিমবঙ্গ নয়, দেশের বিভিন্ন রাজ্য়েও দর্শনের পড়ুয়াদের মধ্যে ব‌্যাঙ্কের পরীক্ষা দিয়ে সেখানে চান্স পাওয়ার প্রবণতা দেখা যাচ্ছে। এখন তো এনজিও-তেও প্রচুর দর্শনের স্নাতক বা মাস্টার্স ছাত্রছাত্রী কাজ করছে। অনেকে আবার দর্শন নিয়ে স্নাতক পড়ার পর মাস্টার্সে সাংবাদিকতা ও গণজ্ঞাপন পড়ছে। ভবিষ‌্যতে তারা টেলিভিশন, খবরের কাগজ বা ওয়েব মিডিয়ায় কাজ করছে।

[আরও পড়ুন: গত ১০ বছরের নিরলস পরিশ্রম, সাফল্যের আরেক নাম সিকম স্কিলস ইউনিভার্সিটি]

গবেষণা করছে
মাস্টার্সের পর কলকাতা, যাদবপুর, বর্ধমান বিশ্ববিদ‌্যালয়ে অনেকেই গবেষণা করছে। বহু ছাত্রছাত্রী মাস্টার্স শেষে নেট বা সেট দিয়ে কলেজ সার্ভিস পরীক্ষার জন‌্য প্রস্তুতি নিচ্ছে। কেউ আবার,
নেট-সেট উত্তীর্ণ হয়ে বেসরকারি কলেজ বা বিশ্ববি‌দ্যালয়ে চাকরি করছে। অনেকে পশ্চিমবঙ্গের নানা বেসরকারি বিশ্ববিদ‌্যালয়েও গবেষণা করছে। কিংবা কেউ কেউ জেএনইউ, বেনারস হিন্দু ইউনিভার্সিটি, সাবিত্রীবাই ফুলে পুণে বিশ্ববিদ্যালয়, দিল্লি ইউনিভার্সিটি-সহ নানা প্রতিষ্ঠানে পিএইচডি করতে যাচ্ছে।

রাজ্যেই স্নাতক
উচ্চমাধ‌্যমিকের সাবজেক্ট কম্বিনেশনে দর্শন থাকলে ভালো, তাহলে স্নাতকে ভর্তির ক্ষেত্রে সুবিধা হয়। পশ্চিমবঙ্গে কলকাতা বিশ্ববিদ‌্যালয়ের অধীন বেশ কিছু কলেজ যেমন, আশুতোষ কলেজ, প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ‌্যালয়, নিউ আলিপুর কলেজ, লেডি ব্রেবোর্ন কলেজ, বেথুন কলেজ, যাদবপুর বিশ্ববিদ‌্যালয়-সহ বিভিন্ন কলেজ-বিশ্ববিদ‌্যালয়ে স্নাতক স্তরে পড়ার সুযোগ রয়েছে। আবার, বর্ধমান বিশ্ববিদ‌্যালয়ের অধীন নানা কলেজেও এই বিষয়ে স্নাতক হওয়া যায়।

দেশের বাইরে
স্নাতকের পর অনেকেই রাজ্যে না থেকে বহু ছাত্রছাত্রী স্কলারশিপ নিয়ে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ‌্যালয়, হাওয়াই বিশ্ববিদ‌্যালয়, ইউনিভার্সিটি অফ ম‌্যানচেস্টার, ইউনিভার্সিটি অফ এডিনবরা-সহ নানা নামী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে উচ্চশিক্ষা করতে যায়। জাপানের নানা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানেও মাস্টার্স ও পিএইচডি করতে যাচ্ছে পশ্চিমবঙ্গ-সহ ভারতের প্রচুর ছাত্রছাত্রী। বিদেশে উচ্চশিক্ষার যেমন সুযোগ বেশি, কাজের ক্ষেত্রও বড়।
তাই কেউ যদি ভাবে যে, দর্শন নিয়ে পড়ে তো লাভ করেনি, সে ঠিক নয়।

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ