৪ আশ্বিন  ১৪২৬  রবিবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: স্নাতকদের জন্য সুখবর৷ কারণ ৪১০৩টি শূন্যপদে কর্মী নিয়োগ করবে ফুড কর্পোরেশন অফ ইন্ডিয়া (এফসিআই)৷ www.fci.gov.in এই ওয়েবসাইটে অনলাইনেই করা যাবে আবেদন৷ আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি থেকেই আগ্রহী প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন৷ আবেদনের শেষ দিন ২৫ মার্চ, ২০১৯৷

অ্যাসিস্ট্যান্ট গ্রেড-৩(জেনারেল)
শূন্যপদ: ৭৫৭টি
শিক্ষাগত যোগ্যতা: যে কোনও বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক হলেই এই শূন্যপদে আবেদন করা যাবে৷
আবেদনকারীর বয়সসীমা: ন্যূনতম ১৮ থেকে সর্বোচ্চ ২৭ বছর বয়সিরা আবেদন করতে পারেন৷
বেতন: এই শূন্যপদে নির্বাচিত প্রার্থীরা ৯ হাজার ৩০০ টাকা থেকে ২২ হাজার ৯৪০ টাকা বেতন পাবেন৷

অ্যাসিস্ট্যান্ট গ্রেড-৩(কমার্স)
শূন্যপদ: ৫০৯টি
শিক্ষাগত যোগ্যতা: যেকোন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাণিজ্য বিভাগে স্নাতক হলেই এই শূন্যপদে আবেদন করা যাবে৷
আবেদনকারীর বয়সসীমা: ন্যূনতম ১৮ থেকে ২৭ বছর বয়সিরা এই শূন্যপদে আবেদন করতে পারবেন৷
বেতন: নির্বাচিত প্রার্থীরা ৯৩০০ টাকা থেকে ২২ হাজার ৯৪০ টাকা বেতন পাবেন৷

[ক্লার্ক পদে রাজ্যে প্রচুর কর্মী নিয়োগ, মাধ্যমিক পাশ হলেই করা যাবে আবেদন]

অ্যাসিস্ট্যান্ট গ্রেড-৩(টেকনিক্যাল)
শূন্যপদ: ৭২০টি
শিক্ষাগত যোগ্যতা: কৃষি/বটানি/জুলজি/বায়ো-টেকনোলজি/বায়ো-কেমিস্ট্রি/মাইক্রোবায়োলজি/ফুড সায়েন্সে স্নাতক হলেও এই শূন্যপদে আবেদন করা যাবে৷
আবেদনকারীর বয়সসীমা: আবেদনকারীর বয়স অবশ্যই ন্যূনতম ১৮ থেকে সর্বোচ্চ ২৭ বছর হতে হবে৷
বেতন: নির্বাচিত প্রার্থীরা ৯৩০০টাকা থেকে ২২,৯৪০টাকা পাবেন৷

অ্যাসিস্ট্যান্ট গ্রেড-৩(ডিপো)
শূন্যপদ: ১৭৭১টি
শিক্ষাগত যোগ্যতা: স্নাতক হলেই এই শূন্যপদে আবেদন করা যাবে৷
আবেদনকারীর বয়সসীমা: ন্যূনতম ১৮ থেকে ২৭ বছর বয়সিরা এই শূন্যপদে আবেদন করতে পারবেন৷
বেতন: ৯ হাজার ৩০০ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ২২ হাজার ৯৪০ টাকা পাবেন নির্বাচিত প্রার্থীরা৷

জুনিয়র ইঞ্জিনিয়ার(সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং)
শূন্যপদ: ১১৪টি
শিক্ষাগত যোগ্যতা: সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে ডিগ্রি অথবা ১ বছরের ডিপ্লোমা করা থাকলে এই শূন্যপদে আবেদন করা যাবে
আবেদনকারীর বয়স: ন্যূনতম ১৮ থেকে ১ জানুয়ারি ২০১৯ তারিখের হিসাবে সর্বোচ্চ ২৮ বছর বয়সিরা আবেদনের যোগ্য৷
বেতন: ১১ হাজার ১০০ থেকে ২৯ হাজার ৯৫০ টাকা বেতন পাবেন নির্বাচিত প্রার্থীরা৷

[চাকরিপ্রার্থীদের জন্য সুখবর, পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাংকে প্রচুর শূন্যপদে কর্মী নিয়োগ]

জুনিয়র ইঞ্জিনিয়ার(ইলেকট্রিক্যাল মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং)
শূন্যপদ: ৭২টি
শিক্ষাগত যোগ্যতা: ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং অথবা মেক্যানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে ডিপ্লোমা অথবা ডিগ্রি করা থাকলে এই শূন্যপদে আবেদন করা যাবে৷
শিক্ষাগত যোগ্যতা: ন্যূনতম ১৮ থেকে সর্বোচ্চ ২৮ বছর বয়সিরা এই শূন্যপদের জন্য আবেদন করতে পারবেন৷
বেতন: এই শূন্যপদে নির্বাচিতরা ১১ হাজার ১০০ টাকা থেকে ২৯ হাজার ৯৫০ টাকা পর্যন্ত বেতন পাবেন৷

স্টেনো গ্রেড-২

শূন্যপদ: ৭৬টি
শিক্ষাগত যোগ্যতা: কম্পিউটার সায়েন্স/কম্পিউটার অ্যাপ্লিকেশনে ডিগ্রি থাকলে এই শূন্যপদে আবেদন করা যাবে৷ এছাড়াও মিনিটে ৪০টি শব্দ টাইপিং করা যোগ্যতা থাকা বাঞ্ছনীয়৷
আবেদনকারীর সময়সীমা: ন্যূনতম ১৮ থেকে সর্বোচ্চ ২৫ বছর বয়সিরা এই শূন্যপদের জন্য আবেদন করতে পারবেন৷
বেতন: নির্বাচিত প্রার্থীরা বেতন হিসাবে ৯ হাজার ৯০০ টাকা থেকে ২৫ হাজার ৫৩০ টাকা পাবেন৷

[স্টাফ সিলেকশন কমিশনে কর্মখালি, আবেদন করতে পারেন ডিপ্লমা ইঞ্জিনিয়ররা]

অ্যাসিস্ট্যান্ট গ্রেড-২(হিন্দি)
শূন্যপদ: ৪৫টি
শিক্ষাগত যোগ্যতা: যেকোন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে হিন্দি ভাষায় স্নাতক হলেই এই শূন্যপদের জন্য আবেদন করা যাবে৷
আবেদনকারীকে অবশ্যই ইংরাজিতেও সাবলীল হতে হবে৷
অভিজ্ঞতা: যেকোন জায়গায় ইংরাজি থেকে হিন্দিতে অনুবাদক হিসাবে ১ বছর কাজের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে৷
আবেদনকারীর বয়সসীমা: ন্যূনতম ১৮ থেকে ২৮ বছর বয়সিরা এই শূন্যপদের জন্য আবেদন করতে পারবেন৷
বেতন: নির্বাচিত প্রার্থীরা ৯ হাজার ৯০০ টাকা থেকে ২৫ হাজার ৫৩০ টাকা বেতন পাবেন৷

টাইপিস্ট(হিন্দি)
শূন্যপদ: ৩৯টি
শিক্ষাগত যোগ্যতা: এই শূন্যপদে আবেদনকারীকে অবশ্যই স্নাতক হতেই হবে৷ এছাড়াও হিন্দি ভাষায় মিনিটে ৩০টি শব্দ টাইপ করার ক্ষমতা থাকা বাঞ্ছনীয়৷
শিক্ষাগত যোগ্যতা: ন্যূনতম ১৮ থেকে ২৫ বছর বয়সিরা এই শূন্যপদে আবেদন করতে পারেন৷
বেতন: নির্বাচিত প্রার্থীরা ৯ হাজার ৩০০ টাকা থেকে ২২ হাজার ৯৪০ টাকা বেতন পাবেন৷

[ইন্টারভিউয়ের মাধ্যমে কেন্দ্রীয় বিদ্যালয়ে প্রচুর কর্মী নিয়োগ]

আবেদনের পদ্ধতি:
www.fci.gov.in এই ওয়েবসাইটে অনলাইনেই করা যাবে আবেদন৷ আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি থেকেই আগ্রহী প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন৷ আবেদনের শেষ দিন ২৫ মার্চ, ২০১৯৷ আবেদনের ফি হিসাবে প্রার্থীদের ব্যাংকে ৫০০ টাকা জমা দিতে হবে৷

প্রার্থী বাছাইয়ের পদ্ধতি:
অনলাইনে প্রথমে একটি পরীক্ষা নেওয়া হবে৷ ওই পরীক্ষায় পাশ করলেই তবে ডকুমেন্ট ভেরিফিকেশন করা হবে৷ তারপরই চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকায় প্রকাশিত হবে৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং