BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

এলাকায় করোনা সংক্রমণের আশঙ্কা, প্রতিবেশীদের মারে হাত ভাঙল চিকিৎসকের

Published by: Sayani Sen |    Posted: April 20, 2020 1:43 pm|    Updated: April 20, 2020 1:43 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রাণের ঝুঁকি নিয়ে একেবারে প্রথম সারিতে দাঁড়িয়ে করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করে চলেছেন চিকিৎসকরা। অথচ বারবার হামলার শিকার হচ্ছেন তাঁরাই। এবার প্রতিবেশীদের মারে গুরুতর জখম হলেন উত্তরপ্রদেশের মীরাটের এক চিকিৎসক। হাতও ভেঙে দেওয়া হয় তাঁর। এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

প্রশান্ত ভাটনগর মীরাটের লালা লাজপত রাই মেমোরিয়াল মেডিক্যাল কলেজের মেডিসিন বিভাগের চিকিৎসক। তিনি নৌচন্ডী থানার অন্তর্ভুক্ত শাস্ত্রীনগর সেক্টর ৬ এলাকায় প্রায় সাত বছর ধরে ভাড়া থাকেন তিনি। অভিযোগ, তাঁর প্রতিবেশীরা বেশ কয়েকদিন ধরেই তাঁকে বাড়ি ছাড়া করার জন্য চাপ দিচ্ছে। প্রতিবেশীদের দাবি, ওই চিকিৎসক এই এলাকায় থাকলে তাঁর মাধ্যমে করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়তে পারে। তাই তাঁকে কোনওভাবেই এলাকায় থাকতে দেওয়া উচিত নয়। গত শুক্রবার ঘটনা আরও বাড়াবাড়ি আকার নেয়। অভিযোগ, সেদিন চিকিৎসকের ভাড়া বাড়ির পার্কিং লটে বেশ কয়েকজন নিরাপত্তারক্ষী নিয়োগ করেন প্রতিবেশীরা। গাড়ি রাখতে বাধা দেওয়া হয় চিকিৎসককে। প্রতিবাদ করলে বেধড়ক মারধর করা হয় তাঁকে। মারধর করে হাতও ভেঙে দেওয়া হয় তাঁর।

এই ঘটনার পরই পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেন চিকিৎসকের বাবা। অভিযোগ পাওয়ার পরই ইয়াদুভির সিং, আরএস যাদব এবং যুগল সাহনি নামে তিন প্রতিবেশীকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এ বিষয়ে পুলিশ সুপার অখিলেশ নারায়ণ সিং বলেন, “গাড়ি পার্কিংয়ের সময়ই মূলত চিকিৎসকের সঙ্গে বচসা তৈরি হয়। এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। প্রতিবেশীদের সন্দেহ একেবারেই ভুল। চিকিৎসকের মাধ্যমে এলাকায় করোনা সংক্রমণের সম্ভাবনা নেই।” এদিকে, এই ঘটনার পর থেকে আতঙ্কেই দিন কাটছে চিকিৎসকের।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement