BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

করোনা আতঙ্কে ত্রস্ত আমেরিকা, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নয়া আইন আনলেন ট্রাম্প

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: March 19, 2020 9:44 am|    Updated: March 19, 2020 9:44 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: চিনে পরিস্থিতি কিছুটা নিয়ন্ত্রণে এলেও করোনা ভাইরাস নিয়ে জেরবার আমেরিকা। এখনও পর্যন্ত এই মারণ রোগের হামলায় প্রাণ হারিয়েছেন ১৪০ জনের বেশি মার্কিন নাগরিক। ফলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে নয়া আইন আনলেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

[আরও পড়ুন: ইরানে করোনায় আক্রান্ত ২৫০ জনেরও বেশি ভারতীয়, উদ্বিগ্ন নয়াদিল্লি]

স্থানীয় সময় মতে বুধবার করোনা মহামারীর বিরুদ্ধে লড়াই আর তীব্র করে ‘ফ্যামিলিস ফার্স্ট করোনা ভাইরাস রেসপন্স অ্যাক্ট’ ৯০-৮ ভোটে পাশ করে মার্কিন সেনেট। কয়েক ঘণ্টা পরই সেই বিলে স্বাক্ষর করেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। নয়া আইনে বিনামূল্যে করোনা পরীক্ষার সুবিধা পাবেন নাগরিকরা। এছাড়াও, আক্রান্ত ও তাঁদের পরিচর্যায় থাক ব্যক্তিরা জন্য বেতন-সহ ছুটি পাবেন। করোনা রুখতে এর আগে ৮.৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের ত্রাণ তহবিল মঞ্জুর করেছিল মার্কিন সংসদ। 

করোনা ভাইরাস নিয়ে দেশবাসীকে আশ্বস্ত করতে মঙ্গলবার প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেন, “করোনা ভাইরাস নিয়ে বিশ্বে যুদ্ধ পরিস্থিতি দেখা দিয়েছে। আর এই যুদ্ধে আমরা জিতবই।”  ইতিমধ্যে আমেরিকায় করোনা ভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে  ১৪০ জনেরও বেশি। করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় ৮ হাজার মানুষ।  গত ২৬ ফেব্রুয়ারি ওয়াশিংটন প্রদেশে করোনায় আক্রান্ত হয়ে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়। সেটাই ছিল আমেরিকায় করোনায় প্রথম মৃত্যু।

এদিকে, ট্রাম্প প্রশাসনের যথাসাধ্য চেষ্টা সত্ত্বেও করোনা মোকাবিলা রীতিমতো কঠিন হয়ে দাঁড়াচ্ছে। মঙ্গলবার এই নিয়ে টুইটারে ট্রাম্প লেখেন, ‘বিশ্ব এখন কোনও লুকিয়ে থাকা শত্রুর সঙ্গে যুদ্ধ করছে। আমরা জিতবই।’ এদিন হোয়াইট হাউসে ট্রাম্প বলেন, ‘আমাদের এই পরিস্থিতি থেকে মুক্তি পেতেই হবে। যত দ্রুত সম্ভব আমাদের এই লড়াইয়ে জিততে হবে।’ এদিকে করোনা মোকাবিলায় চরম পদক্ষেপ নিতে চলেছে নিউ ইয়র্ক। সেখানে ‘শেল্টার-ইন-প্লেস’-এর নির্দেশ জারি করা হতে পারে বলে ইঙ্গিত দিয়েছেন মেয়র বিল ডি ব্লাসিও। ‘বিশেষ কিছু কাজ’ ছাড়া বাইরে বেরনোর উপর নিষেধাজ্ঞা জারি হতে পারে।              

[আরও পড়ুন: করোনা আতঙ্কে আমেরিকায় ২২ লক্ষ মানুষের মৃত্যু হতে পারে, দাবি বিশেষজ্ঞদের]   

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement