BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

রমজানের উপোস সত্ত্বেও বৃদ্ধাকে পিঠে নিয়ে করোনা পরীক্ষাকেন্দ্রে গেলেন স্বাস্থ্য আধিকারিক

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: May 10, 2020 6:22 pm|    Updated: May 10, 2020 6:22 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা মহামারির বিরুদ্ধে একদম সামনে থেকে লড়াই করছেন চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীরা। তাঁদের অক্লান্ত পরিশ্রম ও হাতযশের কারণেই করোনাযুদ্ধে জয়ী হচ্ছেন প্রচুর মানুষ। ঠিক এই রকম পরিস্থিতির মধ্যে আরও এক মানবিক দৃশ্য চোখে পড়ল মালয়েশিয়ায়। রমজানের উপবাস করার পরেও এক বৃদ্ধাকে পিঠে চাপিয়ে করোনা পরীক্ষাকেন্দ্রে নিয়ে গেলেন স্বাস্থ্য পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত একজন ইনস্পেক্টর। এই ঘটনার ছবি সোশ্যাল মিডিয়াতে পোস্ট হওয়ার পরেই ভাইরাল হয়েছে। যা দেখার পর ওই স্বাস্থ্য আধিকারিকের ভূয়সী প্রশংসায় মুখর হয়ে উঠেছেন নেটিজেনরা।

সম্প্রতি ওই ছবিটি নিজের ফেসবুক অ্যাকউন্ট থেকে শেয়ার করেছেন মালয়েশিয়ার ডিরেক্টর জেনারেল অফ হেলথ ডা. নুর হিসাম আবদুল্লা। তাতে দেখা যাচ্ছে, মালয়েশিয়ার বাসিন্দা চাইনিজ এক বৃদ্ধাকে নিজের পিঠে চাপিয়ে করোনা পরীক্ষার কেন্দ্রে নিয়ে যাচ্ছেন শাহির রাজ্জাক নামে এক হেলথ কেয়ার ইনস্পেক্টর। আর ঠিক তাঁর পিছনে ওই বৃদ্ধার ওয়াকার নিয়ে হেঁটে যাচ্ছেন মাসতুরা মাজনুর নামে অন্য এক স্বাস্থ্যকর্মী। ওই দুই স্বাস্থ্যকর্মীই পিপিই কিট পরে আছেন।

[আরও পড়ুন: হোয়াইট হাউসে জাঁকিয়ে বসছে আতঙ্ক, কোয়ারেন্টাইনে করোনা মোকাবিলা দলের তিনজন ]

ভাইরাল হওয়া এই ছবিটির ক্যাপশনে আবদুল্লা লিখেছেন, “রমজানের উপবাস সত্ত্বেও পিপিই কিট পড়েই মানুষের সেবা করছ, এইজন্যই আপনারা আমাদের নায়ক। শাহির রাজ্জাক ও মাসতুরা মাজনুর আপনারা আমাদের স্বাস্থ্য মন্ত্রকের ট্যাগলাইন, ‘আমরা পরিবেষা দেওয়ার জন্য তৈরি আছি’-কে বাস্তবরূপ দিয়েছেন। ধর্মীয় ভেদাভেদের উর্দ্ধে উঠে মানুষের সেবায় নিজেদের নিয়োজিত করেছেন। আমরা দু’জনের জন্য খুবই গর্বিত। আপনাদের ধন্যবাদ জানাই।”

সোশ্যাল মিডিয়াতে পোস্ট হওয়ার পরেই এখনও পর্যন্ত ছবিটি ৩ হাজার বারের বেশি শেয়ার হয়েছে। পছন্দ করেছেন ৩৯ হাজার জন। যাঁদের মধ্যে অনেকে লিখেছেন, ‘আপনাদের ধন্যবাদ জানাই। আপনারাই আমাদের আসল নায়ক।’ আবার কেউ লিখেছেন, ‘আপনারা যেভাবে অন্যদের সেবা করছেন তাতে শ্রদ্ধায় আমাদের মাথা নত হয়ে যাচ্ছে। ভগবান আপনাকে ও আপনার পরিবারকে রক্ষা করুন।’

[আরও পড়ুন: সেনার গুলিতে নিকেশ রিয়াজ নাইকোর স্মৃতিতে স্মরণসভা পাকিস্তানে, তুমুল বিতর্ক]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement