BREAKING NEWS

২৪  মাঘ  ১৪২৯  বুধবার ৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

The Kashmir Files: ‘সত্যিই হিংসাত্মক’, ‘দ্য কাশ্মীর ফাইলস’ বিতর্কে ইজরায়েলি পরিচালকের পাশে IFFI’র ৩ জুরি

Published by: Sayani Sen |    Posted: December 4, 2022 9:23 am|    Updated: December 4, 2022 2:03 pm

3 Goa Film Fest jury members back Israeli filmmaker Nadav Lapid in The Kashmir Files Row । Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আবার নতুন করে আলোচনার শীর্ষে ‘দ্য কাশ্মীর ফাইলস’। এবার ইজরায়েলি পরিচালক নাদাভ লাপিডকে সমর্থন ইফি’র ৩ জুরি সদস্যের। তাঁরাও মনে করেন, বিবেক অগ্নিহোত্রী পরিচালিত ছবিটি সত্যিই রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে তৈরি করা হয়েছে।

গোয়ার আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব বা ইফি’র তিন জুরি সদস্য জিনকো গোতো, পাসকালে চাভান্স, জেভিয়ার অ্যাংগুলো বার্তুরেন জানান, “ইফি’র শেষ দিনে প্রদর্শিত ১৫তম ছবি ছিল ‘দ্য কাশ্মীর ফাইলস’। আমাদেরও দেখে মনে হয়েছে এটি সত্যিই রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে তৈরি একটি ছবি। সত্যিই হিংসাত্মক। শৈল্পিক দিক দিয়ে বিচার করলেও ছবিটি এই চলচ্চিত্র উৎসবে প্রদর্শনযোগ্য নয়। চলচ্চিত্র উৎসবের মঞ্চকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে কাজে লাগানো ঠিক নয়। আমরা নাদাভ লাপিডকে সমর্থন করছি। তাঁকে যেভাবে আক্রমণ করা হয়েছে তা অনুচিত।”

[আরও পড়ুন: ‘১০০ কোটি টাকা চাই’, মুম্বইয়ের কনসার্টে ঘোষণা অরিজিৎ সিংয়ের]

উল্লেখ্য, ইফি’র শেষদিনে বক্তব্য রাখতে গিয়ে মার্চে মুক্তি পাওয়া ‘দ্য কাশ্মীর ফাইলস’ (The Kashmir Files) সিনেমাকে অশ্লীল আখ্যা দেন জুরি প্রধান ইজরায়েলি পরিচালক নাদাভ লাপিড। উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে সিনেমাটি তৈরি করা হয়েছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। ইজরায়েলি পরিচালকের এমন মন্তব্যের ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে। মাথাচাড়া দেয় বিতর্ক। তাঁর মন্তব্যে থাকা ‘ভালগার’ এবং ‘প্রোপাগান্ডা’ শব্দ দু’টি নিয়ে বিতর্কের সৃষ্টি হয়। অভিনেতা অনুপম খের থেকে দর্শন কুমার আবার পরিচালক বিবেক অগ্নিহোত্রী সকলেই ইজরায়েলি পরিচালককে একহাত নেন। ছবির কোনও দৃশ্য, সংলাপ কিংবা প্রেক্ষাপট মিথ্যে প্রমাণ করতে পারলে সিনেমা আর তৈরি করবেন না বলে পালটা চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দেন বিবেক।

পরিস্থিতি এতটাই জটিল আকার ধারণ করে যে ইজরায়েলি পরিচালকের মন্তব্যের জন্য ক্ষমা চেয়ে নেন সেদেশের রাষ্ট্রদূত নাওর গিলন (Naor Gilon)। তবে এত কিছুর পরেও তবে এত কিছুর পরেও নিজের মন্তব্যে প্রথমে অনড় ছিলেন খোদ নাদাভ লাপিড। শেষমেশ যদিও নিজের মন্তব্যের জন্য ক্ষমা চেয়ে নেন পরিচালক। বলেন, “আমি কাউকে অপমান করতে চাইনি। যাঁরা সত্যিই এই দুর্দশার স্বীকার হয়েছেন তাঁদের আত্মীয়দের অসম্মান করা আমার লক্ষ্য ছিল না। আমি সত্যিই ক্ষমাপ্রার্থী।” যদিও ইজরায়েলি পরিচালকের ক্ষমাপ্রার্থনাকে গুরুত্বই দিতে নারাজ বিবেক অগ্নিহোত্রী।

[আরও পড়ুন: সেরার সেরা! বিশ্বের ১০০টি সর্বশ্রেষ্ঠ সিনেমার মধ্যে একমাত্র ভারতীয় ছবি ‘পথের পাঁচালী’]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে