BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

মাদকচক্র ইস্যুতে মামলা দায়ের, ম্যারাথন জেরা শেষে হন্তদন্ত হয়ে CBI দপ্তর থেকে বেরলেন রিয়া

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: August 31, 2020 9:19 pm|    Updated: September 1, 2020 5:27 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: টানা ৯ ঘণ্টা ধরে ম্যারাথন জেরার পর অবশেষে রাত ৮টা নাগাদ সিবিআই দপ্তর থেকে বেরলেন সুশান্ত ইস্যুতে মূল অভিযুক্ত রিয়া চক্রবর্তী (Rhea Chakraborty)। সোমবার সকাল ১১টা নাগাদ ভাই সৌহিক চক্রবর্তীর সঙ্গে সান্তাক্রুজের ডিআরডিও গেস্ট হাউজে পৌঁছেছিলেন তিনি। সেখানেই টানা কয়েক ঘণ্টা ধরে সুশান্তের দিদি নীতু সিংয়ের সামনে বসিয়ে একাধি্ক বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় তাঁকে। সূত্রের খবর, এদিন জেরার সময়ে ভিতর থেকে রিয়ার সঙ্গে বাদানুবাদ হতেও শোনা যায়।

সিবিআই জেরার মাঝেই মহা বিপাকে সুশান্তের প্রেমিকা। ইডি, সিবিআই, নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো- তিন তিনটি কেন্দ্রীয় সংস্থার জেরার মুখে রিয়া চক্রবর্তী যে বেশ কঠিন পরিস্থিতির মধ্যেই রয়েছেন, তা বোধহয় আর আলাদা করে বলার প্রয়োজন পড়ে না। মাদকচক্র যোগ, ডার্কনেট-এর সঙ্গে রিয়ার সম্পর্ক, একাধিক অভিযোগে অভিযুক্ত অভিনেত্রী। সোমবার সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই রিয়া চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা (ক্রিমিনাল কেস) দায়ের করল নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো। পাশাপাশি অভিনেত্রীর ভাই সৌহিক চক্রবর্তীর বিরুদ্ধেও দায়ের করা হয়েছে মামলা। তাঁদের বিরুদ্ধে নারকোটিক ড্রাগস অ্যান্ড সাইকোট্রপিক সাবস্টেন্সের ২০,২২,২৭ এবং ২৯-এর ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে খবর।

সোমবার কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থাদের একটি টিম যখন ডিআরডিও অফিসে রিয়াকে জিজ্ঞাসাবাদ করছিলেন, তখন আরেকটি সিবিআই টিম তদন্তের জন্য সুশান্ত সিং রাজপুতের (Sushant Singh Rajput) বান্দ্রার ফ্ল্যাটে যায়। আজ রিয়ার সঙ্গে তাঁর ভাই সৌহিক চক্রবর্তী এবং সুশান্তের প্রাক্তন ম্যানেজার শ্রুতি মোদিকেও সিবিআইয়ের কড়া প্রশ্নের মুখে পড়তে হয় বলে জানা গিয়েছে।

[আরও পড়ুন: রাজনীতির ঊর্ধ্বে মানবসেবা, সংসদীয় কার্যালয়েই আইসোলেশন ক্যাম্প গড়লেন দেব]

সুশান্তের মৃত্যুতদন্ত সূত্রেই জানা গিয়েছে যে তাঁর পরিবারের সঙ্গে প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তীর সম্পর্কে গোড়ার দিক থেকেই নড়বড়ে ছিল। উপরন্তু পরিবারের তরফে একাধিক অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে। আজ সেই সম্পর্কিত বিষয়গুলি নিয়ে রিয়া এবং মিতু সিংকে সামনাসামনি বসিয়ে জেরা করে সিবিআই।

প্রসঙ্গত, সুশান্ত এবং রিয়া তাঁদের স্পিরিচুয়াল সেশনের জন্য ওয়াটারস্টোন নামে মুম্বইয়ের শহরতলীর যে রিসর্টে প্রায় মাস দুয়েক থেকেছিলেন, সেখানকার চার কর্মীকেও আজ ডিআরডিও গেস্ট হাউজে তলব করেছিলেন সিবিআই গোয়েন্দারা। রিয়ার জিজ্ঞাসাবাদের মাঝেই তাঁরা এসে পৌঁছন।

অন্যদিকে, সুশান্তের বন্ধু তথা সিনে প্রযোজক সন্দীপ সিংয়ের বিরুদ্ধে মাদকচক্র যোগের অভিযোগ উঠেছে। সোমবার এই প্রসঙ্গেই মুখ খোলেন মহারাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অনিল দেশমুখ। তিনি জানিয়েছেন, সন্দীপ সিং যিনি কিনা মোদির বায়োপিকের প্রযোজনা করেছিলেন, তাঁর বিরুদ্ধে জনৈক এক কংগ্রেস নেতা ইতিমধ্যেই তাঁর দপ্তরে অভিযোগ জানিয়েছেন। আর তার রেশ ধরেই প্রযোজক সন্দীপ সিংয়ের মাদকচক্র যোগের বিষয়টি তিনি সিবিআইকে খতিয়ে দেখার আরজি জানান।

[আরও পড়ুন: জুতো ধার করে অলিম্পিকের প্রশিক্ষণ নেওয়া দুস্থ খেলোয়াড়ের পাশে দাঁড়ালেন সোনু সুদ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement