BREAKING NEWS

২৬ শ্রাবণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১৩ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

‘প্রিয় শ্রীদেবীর কাছেই চলে গেলেন মাস্টারজি’, সরোজ খানের প্রয়াণে শোকবার্তা জ্ঞাপন অমিতাভ-অক্ষয়ের

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: July 3, 2020 9:42 am|    Updated: July 3, 2020 10:29 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বাবা-মায়ের দেওয়া নাম নির্মলা নাগপাল। তবে বলিউডে তাঁকে সবাই সরোজ খান বলেই চেনেন। সবার প্রিয় ‘মাস্টারজি’ তিনি। শ্রীদেবী, মাধুরী দীক্ষিত, জুহি চাওলা, ঐশ্বর্যা রাই বচ্চনের মতো একাধিক জনপ্রিয় নায়িকার নৃত্যছন্দ যখন আসমুদ্র হিমাচল দুলিয়েছিল, তার নেপথ্য কিন্তু এই মানুষটিই ছিলেন- ‘নাচের রানি’। যাঁর কাছ থেকে তালিম নিয়ে বলিউডের নায়িকারা ক্যামেরার সামনে দুর্ধর্ষ পারফর্ম্যান্সে দর্শকদের মন মাতাতেন। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে তাঁদের প্রিয় ‘মাস্টারজি’ চিরতরে বিদায় নিলেন। শুক্রবার ভোরে সূর্যের আলো ফুটতেই যখন সরোজ খানের প্রয়াণের খবর প্রকাশ্যে আসে, তারকাদের অনেকেই মুষড়ে পড়েছেন। সত্যিই তো, এ যেন বলিউডের আকাশে এক কালমেঘ ঘনিয়েছে! একের পর এক তারকা বিয়োগ আর দুঃসংবাদ!

শুক্রবার সকালেই মুম্বইয়ের মালাডের কবরস্থানে সরোজ খানের শেষকৃত্য সম্পন্ন করেছেন ছেলে রাজু খান। 

সরোজ খানের নৃত্যকলার তালিমে মুগ্ধ হয়ে তিনবার তাঁর ঝুলিতে এসেছে জাতীয় পুরস্কার। ২০০৩ সালে ‘দেবদাস’ ছবির ‘ডোলা রে ডোলা’, ২০০৬ সালে ‘শ্রীঙ্গারাম’ ছবির সব গান এবং ২০০৮ সালে ‘জব উই মেট’ ছবির ‘ইয়ে ইশক হায়’ গানে কোরিওগ্রাফির জন্য জাতীয় পুরস্কার পান তিনি। এছাড়াও ‘গুরু’, ‘হাম দিল দে চুকে সনম’, ‘বেটা’, ‘তেজাব’, ‘খলনায়ক’-এর মতো একাধিক ছবিতে ডান্স কোরিওগ্রাফির জন্য অগণিত ফিল্ম ফেয়ার অ্যাওয়ার্ডও এসেছে সরোজের কাছে। ২হাজারটিরও বেশি গানে কোরিওগ্রাফি করেছেন বলিউডের ‘মাস্টারজি’। যাঁর সঙ্গে অন্তরঙ্গ সম্পর্ক ছিল শ্রীদেবী, মাধুরী দীক্ষিতের সঙ্গে। তাই সরোজের প্রয়াণে শোকাহত নেটিজেনরা বলছেন, “প্রিয় শ্রীদেবীর কাছেই চলে গেলেন মাস্টারজি।”

[আরও পড়ুন: প্রয়াত বলিউডের খ্যাতনামা ডান্স কোরিওগ্রাফার সরোজ খান, শোকের ছায়া বিনোদন জগতে]

সরোজ খানের মৃত্যুতে শোকবার্তা জ্ঞাপন করেছেন অমিতাভ বচ্চন, মাধুরী দীক্ষিত, অক্ষয় কুমার, মনোজ বাজপেয়ী, রেমো ডিসুজা, নিমরত কৌর, রীতেশ দেশমুখ, জেনেলিয়া ডিসুজা-সহ অনেকেই।

মাধুরী বললেন, “আমি শেষ হয়ে গেলাম। প্রিয় বন্ধু এবং আমার গুরুজনকে হারিয়ে আমি বিধ্বস্ত।”

অক্ষয় কুমার বললেন, “আপনিই তো নাচটাকে সবার কাছে একেবারে জলভাত করে দিয়েছিলেন। খুব বড় ক্ষতি হয়ে গেল ইন্ডাস্ট্রির।”

“ঈশ্বরকে অসংখ্য ধন্যবাদ যে আমি ওঁর কাছে নাচের তালিম নিতে পেরেছিলাম”, মন্তব্য জেনেলিয়া ডিসুজার। 

“আলাদ্দিন সিনেমায় আপনার কাছ থেকে নাচ শিখতে পেরেছিলাম। জীবনের অন্যতম ইচ্ছেপূরণ”, বলে স্মৃতিতে ভাসলেন অভিনেতা রীতেশ দেশমুখ। 

[আরও পড়ুন: সুশান্তের মৃত্যুতে মামলা দায়ের! মুম্বই পুলিশের নজরে এবার পরিচালক সঞ্জয় লীলা বনশালি]

“কোরিওগ্রাফি-এই শব্দটার সঙ্গে আপনিই আমাকে পরিচয় করিয়ে দিয়েছিলেন। যেখানেই থাকুন, ভাল থাকবেন “, বললেন নিমরত কৌর। 

“হিন্দি সিনেমা আড্ডার অন্যতম জনককে হারাল”, একাধিক টুইটে শোকপ্রকাশ প্রযোজক কুণাল কোহলির।

“আপনি আমার মতো আর সবার কাছে একজন অনুপ্রেরণা “, মন্তব্য পরিচালক ফারহা খানের। 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement