২২ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  সোমবার ৯ ডিসেম্বর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

২২ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  সোমবার ৯ ডিসেম্বর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে সশরীরে উপস্থিত থাকতে পারেননি। তাই মন খারাপ বাংলার জামাইবাবু অভিনেতা বচ্চনের। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মঞ্চেও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, বাংলার ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর শাহরুখ খান থেকে ‘দাদা’ সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়, আমন্ত্রিত সকলেই মিস করেছেন কিংবদন্তী অমিতাভ বচ্চনের উপস্থিতি। তবে সমাপ্তি অনুষ্ঠানের আসরে সেই ফাঁকটুকু মিটিয়ে দিলেন বিগ বি। না, উপস্থিত ছিলেন না ঠিকই, তবে ভারতীয় চলচ্চিত্রের ইতিহাসে বাংলার অবদান তুলে ধরে একটি ভিডিওতেই তাঁর তিলোত্তমাপ্রেমী মনের কথা শুনতে পেলেন উপস্থিত দর্শক-শ্রোতারা। আওড়ালেন চিরাচরিত বাংলা প্রবাদও।

১৫ নভেম্বর, কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের (কিফ) সমাপ্তি অনুষ্ঠানে গমগম করছে নজরুল মঞ্চ। নজরুল মঞ্চের বড় পর্দায় যখন ভেসে উঠল অমিতাভের মুখ, মুখ্যমন্ত্রী থেকে উপস্থিত বিশিষ্ট ব্যক্তি, সবার মুখেই তখন চওড়া হাসি। কারণ, চিরাচরিত সেই গম্ভীর গলায় নিজস্ব বাচনভঙ্গীতে অমিতাভ আওড়ালেন বাংলা প্রবাদ। তবে সেই প্রবাদবাক্যতে যোগ করলেন নিজস্ব মাত্রা। ভিডিওতে অমিতাভকে বলতে শোনা গেল- “তাই তাই তাই, দিদির বাড়ি যাই/দিদির বাড়ি ভারী মজা, কিল-চড় নাই।” মঞ্চে উপস্থিত মুখ্যমন্ত্রীর মুখে তখন হালকা হাসির রেখা ফুটে উঠেছে।

[আরও পড়ুন: চলচ্চিত্র উৎসবের উদ্বোধনে অনুপস্থিত, KIFF কর্তৃপক্ষের কাছে ক্ষমাপ্রার্থী অমিতাভ]

চলচ্চিত্র উৎসব কমিটির প্রশংসা করতেও শোনা গেল বিগ বি’কে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসে প্রবীণ অভিনেত্রী রাখি গুলজারের গলাতেও শোনা গিয়েছিল সেই সুর- “এত চলচ্চিত্র উৎসবে গিয়েছি, কিন্তু কলকাতার মতো আন্তরিকতা কোথাও পাইনি।” উৎসবের ২৫তম বর্ষ হিসেবে কমিটির কাঁধে অন্যান্য বারের তুলনায় এবার দায়িত্ব ছিল দ্বিগুণ। যে কর্মদক্ষতার সঙ্গে অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে, তাতে প্রশংসাও কুড়িয়েছে কিফ কমিটি। অমিতাভের মন্তব্যে তা যেন আরও বেশি করে প্রমাণিত হল।

প্রসঙ্গত, শারীরীক অসুস্থতার জন্যই গত কয়েক বছরের রীতিতে ছেদ পড়েছিল এবার। কিফ-এ আসতে পারেননি অমিতাভ বচ্চন। যার জন্য অবশ্য ক্ষমাও চেয়েছিলেন তিনি। সমাপ্তি অনুষ্ঠানে অমিতাভের ভিডিও বক্তৃতাতে মূলত উঠে এল, ভারতীয় তথা বাংলা চলচ্চিত্রের গোড়ার দিকে অভিনেত্রীদের অবদানের কথা। তুলে ধরলেন কৃতী নারীদের কথাও।

[আরও পড়ুন: খোলামেলা পোশাকে লেখা ‘রাম’ নাম, বাণী কাপুরকে নিষিদ্ধ করার দাবি ]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং