৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

করোনা ঠেকাতে গৃহবন্দি অমিতাভ বচ্চন, পোস্ট করলেন স্ট্যাম্প দেওয়া হাতের ছবি

Published by: Bishakha Pal |    Posted: March 18, 2020 2:31 pm|    Updated: March 18, 2020 6:10 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: গোটা দেশ থাবা বসিয়েছে প্রাণঘাতী ভাইরাস করোনা। এমন পরিস্থিতিতে সুস্থ থাকতে ঘরবন্দি থাকার পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসকরা। মহারাষ্ট্রে ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে এই প্রক্রিয়া। অনেকেই সতর্ক থাকতে নিজেদের আইসোলেশনে রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। সেই তালিকায় এবার যুক্ত হল অমিতাভ বচ্চনের নামও। সুস্থ থাকতে তিনিও স্বেচ্ছায় ঘরবন্দি থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। সম্প্রতি হাতে স্ট্যাম্প দেওয়া একটি ছবি পোস্ট করে সেকথা জানিয়েছেন শাহেনশা।

করোনা থেকে রাজ্যবাসীকে বাঁচতে একাধিক পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন বিভিন্ন রাজ্যের সরকার। তবে মহারাষ্ট্র সরকার সেই বিষয়ে একধাপ এগিয়ে। আজই মহারাষ্ট্রে করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারান ৬৪ বছরের এক বৃদ্ধ। কয়েকদিন আগেই ওই বৃদ্ধ সৌদি আরব থেকে ফিরেছিলেন বলে জানা যায়। তাই হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা ব্যক্তিদের চিহ্নিত করতে তাদের বাঁ হাতে একটি বিশেষ স্ট্যাম্প লাগিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত দেওয়া হয়েছে। আজ মহারাষ্ট্রের স্বাস্থ্যমন্ত্রী রাজেশ টোপ এই ঘোষণা করেন। তবে প্রশ্ন উঠতেই পারে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা এই ব্যক্তিদের হাতে স্ট্যাম্পের কী প্রয়োজন? বিগত এক সপ্তাহ ধরে কোয়ারেন্টাইনে থাকা ব্যক্তিদের মধ্যে হাসপাতাল ছেড়ে বা বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে যাওয়ার প্রবণতা দেখা গিয়েছে। কোয়ারেন্টাইনে থাকাকালীন অনেকেই রোগের গুরুত্ব অস্বীকার করে লোকালয়ে বা জমায়েতে মিশে যাওয়ার চেষ্টা করেছেন। তাই আক্রান্তের সম্ভাবনা রয়েছে এমন ব্যক্তির থেকে বাকিদের রক্ষার্থে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে মহারাষ্ট্র সরকারের তরফে।

[ আরও পড়ুন: ৫০ বছর পর পর্দায় সাঁইবাড়ি গণহত্যা, তথ্যচিত্র বানাচ্ছেন বিজেপি নেত্রী ]

অমিতাভ জানিয়েছে, স্ট্যাম্পে ভোটের কালি ব্যবহার করছে মহারাষ্ট্র সরকার। যাতে সহজে কালি না ওঠে তাই এই ব্যবস্থা। টুইটারে স্ট্যাম্পযুক্ত হাতের ছবি পোস্ট করে অমিতাভ লিখেছেন, “সতর্ক ও সচেতন থাকুন। করোনা ধরা পড়লে আইসোলেশনে চলে যান।”

রাখি সাওয়ন্তও এমনই একটি ছবি পোস্ট করেছেন ইনস্টাগ্রামে। সেখানে তিনি জানিয়েছেন, মুম্বই বিমানবন্দরে হাতে স্ট্যাম্প মারার কাজ চলছে। যদি এই স্ট্যাম্প লাগানো কোনও ব্যক্তিকে রাস্তায় কেউ দেখতে পান, তাহলে তাদের দ্রুত বাড়ি যেতে বলুন।

 
 
 
 
 
View this post on Instagram
 
 
 
 
 
 
 
 
 

Stamping started at Mumbai airport with voters ink. If you see such people on the streets, pl ask them to go back home

A post shared by Rakhi Sawant (@rakhisawant2511) on

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement