১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘ভুয়ো তথ্য ছড়াবেন না’, সোশ্যাল মিডিয়ায় ভিডিও পোস্ট করে বার্তা আয়ুষ্মান-বিরাটের

Published by: Bishakha Pal |    Posted: May 6, 2020 1:48 pm|    Updated: May 6, 2020 1:48 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা সচেতনতার পর এবার ভুয়ো ভিডিও নিয়ে সরব তারকারা। যেসব ভিডিওয় সঠিক তথ্য নেই, সেই ভিডিও অন্যদের ফরওয়ার্ড না করার আবেদন জানিয়েছেন তাঁরা। এই নিয়ে সম্প্রতি একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন আয়ুষ্মান খুরানা। সেখানে তিনি ছাড়াও রয়েছেন কৃতি স্যানন, সারা আলি খান ও বিরাট কোহলি।

আয়ুষ্মান তাঁর টুইটারে ভিডিওটি শেয়ার করেছেন। সেখানে দেখানো হয়েছে ভুয়ো ভিডিও কীভাবে মানুষের ক্ষতি করে। একটি গল্পের মাধ্যমে গোটা বিষয়টটি বুঝিয়েছেন আয়ুষ্মান, কৃতি, বিরাট ও সারা। বিরাট প্রথমে কোনও একটি বিষয়ে কথা শুরু করেন যা তাঁর কোনও ভাই বা বোনের থেকে ঘরে ছড়িয়েছে। এরপর বাকি তিনজনের বক্তব্যে বোঝা যায় যেটি তাঁদের মাথাব্যাথার কারণ, সেটি মানুষের প্রাণহানী পর্যন্ত ঘটাতে পারে। আর যদি এই মহামারি একবার ছড়িয়ে যায় তবে মানুষ তো দূর অস্ত ভগবানও একে থামাতে পারবে না। কী সেটি? না করোনার কথা এখানে বলা হয়নি। চারজন মিলে চর্চা করেছেন ভুয়ো মেসেজ নিয়ে যা প্রতিনিয়ত আমাদের মাধ্যমে অন্যদের কাছে পৌঁছয়। মোবাইলে একটি মাত্র টাচের ফলে লক্ষ লক্ষ লোকের মোবাইলে পৌঁছে যায় এই ভিডিও।

[ আরও পড়ুন: করোনায় সচেতনতার বার্তা দিতে ধারাভির ব়্যাপারদের ভিডিওয় অজয়-অক্ষয়-সুনীল ]

ভিডিওর শেষে বিরাট জানিয়েছেন, এই ধরনের ভিডিও-ও আমাদের সমাজের একটি ভাইরাস। যা গুজব ছড়ায়। যেমন, ‘উত্তর দিকে মাথা করে শুলে ডায়াবিটিস ঠিক হয়ে যায়’, ‘এই ভিডিওটি ১০ জনকে ফরওয়ার্ড করুন, গ্যারেন্টটি ছেলে হবে’, ‘এটা করলে ক্যানসার ঠিক হয়ে যায়’.. এমন ভিডিও আকছার আমাদের ফোনে আসতে থাকে। আর কুসংস্কারের বশবর্তী হয়ে আমরা সেগুলো ফরওয়ার্ডও করি। সেলেবদের অনুরোধ, এমন ভিডিওগুলি ফরওয়ার্ড করা বা তৈরি করা একেবারেই উচিত নয়। তাঁদের মতে, যদি আপনি এমন কোনও ভিডিও বা মেসেজ পান, যেগুলো আপনার মনে হচ্ছে সত্যি নয়, তাহলে সেগুলো অন্যকে পাঠাবেন না। কারণ এতে ক্ষতি হতে পারে। এগুলি না পাঠানে আপনি যেমন সুরক্ষিত থাকবেন, অন্যরা সুরক্ষিত থাকবে। ভিডিওর একটি ট্যাগলাইনও রয়েছে- ‘#MatKarForward’।

দেশজুড়ে চলতে থাকা করোনা পরিস্থিতিতে সোশ্যাল মিডিয়াগুলির উপর ভুয়ো খবর প্রচার করার অভিযোগ উঠছে। তাই টিকটকের তরফে এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। ভিডিওটি প্রত্যেকে সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে তাঁদের বাড়িতে বসেই শুটিং করেছেন। এটি এডিট করেছেন অনুরাগ বসু।

[ আরও পড়ুন: ‘ছিঃ! ওদের লজ্জা হওয়া উচিত’, ছাত্রদের অশ্লীল সোশ্যাল গ্রুপ ‘বয়েস লকার রুম’ নিয়ে সরব বলিউড ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement