৭ ভাদ্র  ১৪২৬  রবিবার ২৫ আগস্ট ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কলকাতার বাইরে চলচ্চিত্র উৎসব মানেই প্রবাসী বাঙালিদের কাছে এক অন্য রকম অনুভূতি। বাংলার থেকে দূরে থেকে বাংলা ভাষায় ছবি দেখার মধ্যে একটা আলাদা উত্তেজনা থাকে। সেই আমেজ গায়ে মেখেই হায়দরাবাদের প্রবাসী বাঙালিরা যোগ দিয়েছিলেন এই উৎসবে। রবিবার এই চলচ্চিত্র উৎসবের সমাপ্তি হয়। আর হায়দরাবাদ থেকে কলকাতায় চলে আসে একগুচ্ছ পুরস্কার। এবছর উৎসবে সেরা ছবি নির্বাচিত হয়েছে ইন্দ্রদীপ দাশগুপ্তের ‘কেদারা’। সেরা পরিচালকের পুরস্কারটিও তাঁরই হস্তগত হয়েছেন। সেরা অভিনেতা হিসেবে পুরষ্কৃত হয়েছেন ঋত্বিক চক্রবর্তী। আর সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার উঠেছে যৌথভাবে রাইমা সেন ও বাসবদত্তা চট্টোপাধ্যায়ের হাতে।

[ আরও পড়ুন: ভারতীয় সিনেমাকে ‘ফোকাস’ করে সূচনা, অথচ ভারতীয় ছবিই ব্রাত্য মেক্সিকোর ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে ]

কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়ের ‘নগরকীর্তন’ ছবির জন্য সেরা অভিনেতার পুরস্কার পান ঋত্বিক। রাইমা সেরা অভিনেত্রী হিসেবে পুরস্কৃত হয়েছেন চূর্ণী গঙ্গোপাধ্যায়ের ‘তারিখ’ ছবির জন্য। আর ‘তখন কুয়াশা ছিল’ ছবির জন্য বাসবদত্তা চট্টোপাধ্যায় সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার পেয়েছেন। এছাড়া ভিউয়ার্স চয়েসে সেরা ছবি নির্বাচিত হয়েছে ‘নগরকীর্তন’। ‘তারিখ’-এর ভাঁড়ারে সেরা অভিনেত্রী ছাড়া আরও দু’টি পুরস্কার গিয়েছে। সেরা চিত্রনাট্য ও সেরা সম্পাদনা। চিত্রনাট্যের জন্য পুরস্কৃত হয়েছেন চূর্ণী গঙ্গোপাধ্যায়। পরিচালনার পাশাপাশি ‘তারিখ’-এর চিত্রনাট্যও লিখেছিলেন তিনি। এডিটিংয়ের জন্য পুরস্কার পেয়েছেন শুভজিৎ সিংহ। সেরা চিত্রগ্রাহকের পুরস্কার গিয়েছে ‘কেদারা’-র শুভঙ্কর ভড়ের ঝুলিতে। সাউন্ড ডিজাইনের জন্যও নির্বাচিত হয়েছে ‘কেদারা’-র নাম। অনির্বাণ সেনগুপ্ত পেয়েছেন পুরস্কার।

এবছর এই চলচ্চিত্র উৎসবে জুরি ছিলেন তিনজন চিত্রপরিচালক। শেখর দাস, শতরূপা সান্যাল ও বৌদ্ধায়ন মুখোপাধ্যায়। ১৮ জুলাই থেকে শুরু করে চলচ্চিত্র উৎসব চলে ২১ জুলাই পর্যন্ত। বানজারা হিলসের প্রসাদ ল্যাব থিয়েটারে উৎসবের শুভ উদ্বোধন হয়। উদ্বোধনী ছবি ছিল বুদ্ধদেব দাশগুপ্তের ‘উড়োজাহাজ’। বাংলা ছবির ১০০ বছরের গরিমা ফুটিয়ে তোলা ছিল এই চলচ্চিত্র উৎসবের মূল উপপাদ্য।

[ আরও পড়ুন: ফিরল ৩০ বছর আগের স্মৃতি, শহরের রাস্তায় ফের স্টোনম্যান আতঙ্ক! ]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং