BREAKING NEWS

২১ শ্রাবণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ৬ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

‘তুমি তো হরলিক্সটাও ঠিকমতো খেতে পারো না!’, চিনা অ্যাপ ইস্যুতে সোহমকে কটাক্ষ অনুপমের

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: July 4, 2020 3:16 pm|    Updated: July 4, 2020 3:22 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: “তুমি তো হরলিক্সটাও ঠিকমতো খেতে পার না! চেটে চেটে খাও। আর তোমার এত বড় ঔদ্ধত্য যে ভারতীয় জওয়ানদের সঙ্গে তুমি সামান্য চাইনিজ অ্যাপের তুলনা করছো!” অভিনেতা তথা তৃণমূলের যুবশক্তির রাজ্য কো-অর্ডিনেটর সোহম চক্রবর্তীকে এমন ভাষাতেই আক্রমণ করলেন বিজেপি নেতা অনুপম হাজরা (Anupam Hazra)।

দিন দুয়েক আগেই মেদিনীপুরে এক সভা করতে গিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের TikTok নিষিদ্ধ করা নিয়ে সওয়াল করেছিলেন সোহম (Soham Chakraborty)। বলেছিলেন, “চিন নোংরা রাজনীতি করেছে। গোটা বিশ্ব তাদের জন্য সংকটে। তার বিরোধিতা করতেই হবে। কিন্তু, অ্যাপ ব্যান করলেই কি শহিদদের প্রাণ ফিরবে?” এবার অভিনেতার সেই মন্তব্যেরই পালটা দিলেন অনুপম হাজরা।

soham

তৃণমূল যুবশক্তির রাজ্য কো-অর্ডিনেটর সোহমকে একহাত নিয়েছেন অনুপম। ফেসবুকে একটি ভিডিও পোস্ট করে তিনি সোহমের উদ্দেশে বলেছেন, “কে ভাই তুমি? তোমাকে কে এই অধিকার দিল? ভারতীয় জওয়ানরা সীমান্ত রক্ষা করেন বলে তুমি শান্তিতে ঘুমোতে যেতে পার। তাঁরা সীমান্তে হিরোগিরি করে বলে তুমি সিনেমার পর্দায় হিরোগিরি করতে পার। কত বড় মূর্খ হলে চাইনিজ অ্যাপের সঙ্গে ভারতীয় সেনাদের তুলনা করে কেউ!”

“চাইনিজ অ্যাপ টিকটক ব্যান করে দেওয়ায় শাসক দলের সাংসদ মানসিক ভাবে ভেঙে পড়েছেন।”- অনুপম

এখানেই কিন্তু থামেননি গেরুয়া শিবিরের নেতা অনুপম। সোহমকে ব্যাঙ্গাত্মক ভাষায় বলেন, “তুমি হরলিক্সটাও ঠিকমত খেতে পার না, চেটে চেটে খাও। আর তোমার এতবড় ঔদ্ধত্য যে ভারতীয় সেনাদের সঙ্গে চাইনিজ অ্যাপের তুলনা করো?” এর পাশাপাশি তিনি সোহমকে ‘জোকার’ বলেও কটাক্ষ করেন! অনুপমের মন্তব্য, “ভাবতে অবাক লাগে এরকম একটা জোকারকে তৃণমূল আশ্রয় দিয়েছে। এটা সাধারণ মানুষের উপর ছেড়ে দিলাম। এইসব প্রাণীদের আপনারা রাস্তায় ঘুরতে দেবেন নাকি চিড়িয়াখানায় রাখবেন!”

[আরও পড়ুন: চিনা সংস্থা স্পনসর, রাগে ‘সেরা অভিনেতা’র পুরস্কার প্রত্যাখ্যান করলেন জিৎ!]

প্রসঙ্গত, সাংসদ নুসরত জাহানকেও (Nusrat Jahan) কটাক্ষ করতে ছাড়েননি অনুপম। তৃণমূল সাংসদকে আক্রমণ করে তিনি বলেছেন, “চাইনিজ অ্যাপ টিকটক ব্যান করে দেওয়ায় শাসক দলের সাংসদ মানসিক ভাবে ভেঙে পড়েছেন। কারণ, তাঁর নির্বাচনী কেন্দ্র বসিরহাটের মানুষদের সঙ্গে জনসংযোগ করার একমাত্র মাধ্যম ছিল টিকটক!”

[আরও পড়ুন: ‘অ্যাপ ব্যান করলেই কি শহিদদের প্রাণ ফিরবে?’ নুসরতের সুরেই এবার সরব অভিনেতা সোহম]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement