BREAKING NEWS

০৯ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  বুধবার ২৫ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

চলচ্চিত্র উৎসবের চেয়ারম্যান পদ ঘিরে ফের জল্পনা, প্রসেনজিতের বদলে রাজ?

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: August 9, 2019 4:16 pm|    Updated: August 9, 2019 8:33 pm

Director Raj Chakraborty to replace Prasenjit as KIFF chairman

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের তথ্যচিত্র এবং শর্টফিল্ম বিভাগের নয়া চেয়ারপার্সন নির্বাচিত হয়েছেন পরিচালক রাজ চক্রবর্তী। এর আগে এই কমিটির পুরোভাগের দায়িত্বে ছিলেন অঞ্জন বোস এবং অরিন্দম শীলের মতো ব্যক্তিত্বরা। তবে কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব এবং রাজ চক্রবর্তীকে নিয়ে এক নতুন গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে টলিপাড়ায়। রাজ নাকি কলকাতা ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল (কেআইআইএফ) কমিটির নতুন চেয়ারম্যান হতে চলেছেন। যেই পদে কি না বর্তমানে আসীন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়।

[আরও পড়ুন: কেন ৪ বছরেই সম্পর্কে ইতি টানলেন? বিবাহবিচ্ছেদ নিয়ে মুখ খুললেন অভিনেত্রী অনন্যা]

দিন কয়েক আগেই অবশ্য শোনা গিয়েছিল, চলচ্চিত্র উৎসবের প্রেসিডেন্ট পদ থেকে সরছেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। এপ্রসঙ্গে যদিও অফিশিয়ালি কোনও ঘোষণা হয়নি, তবে এর মাঝেই শোনা গেল নতুন চেয়ারম্যান পদ পেতে পারেন পরিচালক রাজ চক্রবর্তী। গতবছরই আনুষ্ঠানিকভাবে কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব তুলে দেওয়া হয়েছিল প্রসেনজিতের হাতে। এছাড়া বিগত ১০ বছর ধরে চলচ্চিত্র উৎসবের কমিটির সদস্য হওয়ার সুবাদে নিয়মিত মিটিংয়ে উপস্থিতও থেকেছেন অভিনেতা। কিন্তু ইদানিং তিনি নানা কাজে ব্যস্ত। তাই জন্য কমিটির কোনও মিটিংয়ে উপস্থিত থাকতে পারছেন না, এমনটাই জানিয়েছিলেন প্রসেনজিৎ। এছাড়া, অরূপ এবং স্বরূপ বিশ্বাস আয়োজিত একটি বৈঠকে আর্টিস্ট ফোরামকে আমন্ত্রণ জানানো হলে প্রসেনজিতের নেতৃত্বাধীন ফোরাম তাতে উপস্থিত থাকতে নাকচ করে দেয়। জল্পনার শুরু হয় সেখান থেকেই। তখনই আন্দাজ করা গিয়েছিল যে এই পদে টলিউডের নতুন কোনও মুখ দেখা যেতে পারে। এবার সেই পদের জন্যই রাজ চক্রবর্তীকে নির্বাচন করা হতে পারে বলে শোনা যাচ্ছে।

“আমার খুব ভাল লাগবে যারা আমার মতো স্ট্রাগল করে উঠেছে, তারা যদি আমাকে দেখে চলচ্চিত্র উৎসবের কাজের জন্য এগিয়ে আসে।”

এই প্রসঙ্গে, অন্য এক সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া রাজের বয়ান অনুযায়ী, “আমিও লোক মারফত শুনেছি। চূড়ান্ত কিছু শুনিনি। তবে সরকার পক্ষ থেকে যদি এই দায়িত্ব আমাকে দেওয়া হয়, তা যথাসম্ভব পালনের চেষ্টা করব।” তবে তথ্যচিত্র এবং শর্টফিল্ম বিভাগের চেয়ারপার্সনের দায়িত্ব রাজকে দেওয়ায় যারপরনাই খুশি এবং উচ্ছ্বসিত পরিচালক। এপ্রসঙ্গে রাজ বলেছেন, “চলচ্চিত্র উৎসবের সময়টায় কোনও কাজ রাখিনি, যাতে ভালভাবে কমিটির কাজে মন দিতে পারি। ইতিমধ্যেই ৩-৪টি মিটিংয়ে অংশগ্রহণ করেছি। আমার খুব ভাল লাগবে যারা আমার মতো স্ট্রাগল করে উঠেছে, তারা যদি আমাকে দেখে চলচ্চিত্র উৎসবের কাজে এগিয়ে আসে। কাজও একপ্রকার শুরু হয়ে গিয়েছে। আশা করছি ৬০০টির মতো এন্ট্রি হবে তথ্যচিত্র এবং শর্টফিল্ম বিভাগে। ১০-১২ জন রয়েছেন যারা প্রাথমিক পর্যায়ে বাছাই পর্ব সারবে। পরিচালক মানস মুকুল পালও রয়েছেন এই টিমে।”

[আরও পড়ুন:‘কাশ্মীরিদের উপর অত্যাচার এবং স্বৈরাচার হচ্ছে’, মোদি সরকারকে কটাক্ষ আতিফ আসলামের]

কেআইআইএফ একটি নতুন উপদেষ্টা কমিটি গঠন করেছে। যেখানে তাবড় পরিচালক থেকে অভিনেতারা রয়েছেন। তবে প্রশ্ন চেয়ারম্যান পদ থেকে সরলেও কি কমিটির সদস্য থাকবেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়, যা বিগত ১০ বছর ধরে ছিলেন? বলবে সময়ই।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে