৩০ আশ্বিন  ১৪২৬  শুক্রবার ১৮ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:   রবিবার অর্থাৎ ১৫ সেপ্টেম্বর মুক্তি পেল ‘গুমনামি’র প্রথম গান। “সুভাষজি, সুভাষজি, হ্যায় নাজ জিসপে হিন্দকো, ও শান-এ-হিন্দ আ গ্যায়ে….” এই গান বোধহয় অল্পবিস্তর সব ভারতবাসীর কাছেই পরিচিত। বহু পুরনো হলেও এই গানটির মধ্যে যে আলাদা একটা আবেগ রয়েছে, তা বোধহয় আর নতুন করে বলার প্রয়োজন নেই। এবার জনপ্রিয় এই গানটিই সৃজিতের জন্য নতুন করে গাইলেন সোনু নিগম। সৌজন্যে, ‘গুমনামি’।

[আরও পড়ুন: ২১ শতকের বিশ্বসেরা ১০০ ছবির তালিকায় ‘গ্যাংস অফ ওয়াসেপুর’, সন্তুষ্ট নন অনুরাগ ]

সল্টলেক সেক্টর থ্রি’র সেন্ট্রাল পার্কের সামনে নেতাজি মূর্তির পাদদেশে ‘গুমনামি’র সমস্ত কলাকুশলীদের উপস্থিতেই প্রকাশ্যে এল ছবির প্রথম গান। ‘সুভাষজি’ গানটির উদ্বোধন উপলক্ষে রবিবার সেখানে উপস্থিত ছিলেন ছবির মূল অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়, অনির্বাণ ভট্টাচার্য এবং তনুশ্রী চক্রবর্তী-সহ পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায় ও ছবির সংগীত পরিচালক ইন্দ্রদীপ দাশগুপ্তও। সোনু নিগমের কণ্ঠে এই গানটি যে এক আলাদা মাত্রা নিয়েছে, তা বলাই বাহুল্য।  

উল্লেখ্য, ১৯৪৩ সালের ৩ জুলাই, নেতাজি যখন টানা ৯০ দিনের সাবমেরিন অভিযান শেষে সিঙ্গাপুরে পা রেখেছিলেন, সেসময় তাঁকে স্বাগত জানাতে আজাদ হিন্দ ফৌজের জওয়ানরা সমস্বরে গেয়ে উঠেছিলেন  ”সুভাষজি, সুভাষজি…” গানটি। পরবর্তীকালে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর গানটিকে রেকর্ড করা হয়। বহু চর্চিত সেই গান সোনু নিগম তাঁর অসামান্য গায়কি স্টাইলে গেয়ে ফের একবার মুগ্ধ করলেন শ্রোতাদের। প্রযোজনা সংস্থা এসভিএফ এবং পরিচালক সৃজিত নিজেও সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছেন ‘সুভাষজি’ গানটির লিংক।

[আরও পড়ুন: বরফ গলছে শ্রীকান্ত-সরিতার মাঝে! খারাপ সময়ই কি অনুঘটকের কাজ করল? ]

প্রসঙ্গত, দিন কয়েক আগেই ছবির কলাকুশলী, পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায় গিয়েছিলেন শিমলা ব্যায়াম সমিতিতে। এখানকার দুর্গাপুজো নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর উদ্যোগেই প্রাণ পেত এক সময়। এদিন সেখানে সেই স্মৃতি রোমন্থনেই যোগ দিয়েছিলেন তাঁরা।  সোনুর গলায় শুনে নিন ‘সুভাষজি’ গানটি। 

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং