BREAKING NEWS

৪ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

দ্বিতীয়বারও পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ, এখনও করোনা মুক্ত নন করিম

Published by: Bishakha Pal |    Posted: April 14, 2020 1:52 pm|    Updated: April 14, 2020 1:52 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দুই মেয়ে শাজা ও জোয়া মোরানি সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গিয়েছেন। কিন্তু বাবা করিম মোরানি এখনও করোনা মুক্ত নন। মঙ্গলবার তাঁর দ্বিতীয় করোনা পরীক্ষার রিপোর্টও পজিটিভ এল। ৮ এপ্রিল প্রযোজক করিম মোরানির করোনা পরীক্ষা করা হয়। কিন্তু তাঁর শরীরে করোনার কোনও উপসর্গ পাওয়া যায়নি। তা সত্ত্বেও পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ আসে। তারপর তাঁকে মুম্বইয়ের নানাবতী হাসপাতালে ভরতি করা হয়। এখনও সেখানেই চিকিৎসাধীন তিনি।

প্রযোজক করিম মোরানির বয়স ৬০ বছরের বেশি। এর আগে তাঁর দু’বার হার্ট অ্যাটাক হয়েছিল। এছাড়া একবার বাইপাস সার্জারির মধ্যে দিয়েও যেতে হয়েছে করিমকে। তাই তাঁর শরীর সম্পূর্ণ সুস্থ একথা বলা যায় না। তাই করোনার মতো প্রাণঘাতী ভাইরাসের সঙ্গে তিনি কতটা লড়াই করতে পারবেন, তা নিয়ে চিন্তায় আত্মীয় ও বন্ধুরা। ৮ এপ্রিল করিমের ভাই মহম্মদ মোরানি জানান, “বুধবার সকালেই করিম ভাইয়ের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। তাঁকে মুম্বইয়ের নানাবতী হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে। যেখানে তাঁর মেয়ে সাজাও ভরতি রয়েছেন। আমরা ঠিক এটাই আশঙ্কা করছিলাম। কারণ তিনি মেয়েদের সঙ্গেই ছিলেন।” তবে COVID-19 টেস্টে করিমের স্ত্রী এবং বাড়ির অন্যান্য সদস্যদের রিপোর্ট যে নেগেটিভ এসেছে সে খবরও জানান প্রযোজকের ভাই।

[ আরও পড়ুন: ‘করোনা উপসর্গ সত্ত্বেও ফিরিয়ে দেন ডাক্তাররা’, ভয়াবহ অভিজ্ঞতা অভিনেত্রী শ্রিয়ার ]

উল্লেখ্য, মোরানি পরিবারের দুই মেয়ে জোয়া এবং শাজার করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর ছড়িয়ে পড়তেই তৎপরতায় সঙ্গে মু্ম্বই প্রশাসন ব্যবস্থা নেয়। মু্ম্বইয়ের অশোক নগর সোসাইটির শগুন বহুতলে মোরানিদের যে বিলাসবহুল আবাসন রয়েছে সেখানেই থাকেন মোরানি পরিবারের ৯ জন সদস্য। প্রত্যেকের লালারস পরীক্ষা করা হয়। করিম মোরানির রিপোর্ট পজিটিভ আসে। নানাবতী হাসপাতালে তাঁর চিকিৎসা চললেও দুই মেয়ে শাজা ও জোয়া মোরানি করোনা মুক্ত। সোমবারই হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে তাঁদের। হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাওয়ার পর জোয়া বলেন, চিকিৎসক, নার্স এবং হাসপাতালের কর্মীদের প্রতি তিনি কৃতজ্ঞ। তাঁরা প্রতিদিন জোয়ার স্বাস্থ্যের যত্ন নিয়েছেন। সুস্থতার জন্য প্রার্থনা করেছেন। এবার তিনি করোনা মুক্তি হয়ে বাড়ি ফিরছেন। এই অনুভূতি বর্ণনা করা যায় না। করোনা মোকাবিলায় সরকার যা করছে, তারও প্রশংসা করেন জোয়া। প্রত্যেকের স্বাস্থ্য এবং সুরক্ষা সম্পর্কে নজর রাখার জন্য সরকারকে ধন্যবাদ জানান তিনি। এছাড়া তিনি সংবাদমাধ্যমকে সংবেদনশীল হওয়ার জন্য ধন্যবাদ দেন। সোশ্যাল মিডিয়ায় যাঁরা তাঁদের সেরে ওঠার জন্য প্রার্থনা জানিয়েছেন, তাঁদের প্রতিও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন জোয়া।

[ আরও পড়ুন: ‘পরস্পরকে সাহায্যের মাধ্যমেই কঠিন পরিস্থিতি কাটবে’, ১ হাজার দুস্থ পরিবারের পাশে এবার সঞ্জুবাবা ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement