৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

রিয়া চক্রবর্তীর জন্য নেটদুনিয়ায় বাঙালি মেয়েদের কদর্য আক্রমণ, তদন্তে নামল কলকাতা পুলিশ

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: August 4, 2020 12:17 pm|    Updated: August 4, 2020 12:55 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রিয়া চক্রবর্তীকে ঘিরে নেটদুনিয়ায় চরম হেনস্তার শিকার বঙ্গললনারা। যার রেশ ধরেই এবার সরব হল রাজ্য মহিলা কমিশন। ইতিমধ্যেই ঘটনার তদন্তে নেমেছে কলকাতা পুলিশের সাইবার সেল, জানালেন জয়েন্ট সিপি ক্রাইম মূরলীধর শর্মা।

সুশান্তের প্রাক্তন প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তীর (Rhea Chakraborty) জন্য সোশ্যাল মিডিয়ায় বাঙালি মেয়েদের কদর্য ভাষায় আক্রমণ। ‘বাঙালি মেয়েরা পয়সার কাঙাল’, ‘বড় মাছ ধরতে পারে’, ‘জাদুটোনা করে’.. এহেন অজস্র মন্তব্যে ছেয়ে গিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়া। এক নেটিজেনের মন্তব্য “রিয়া চক্রবর্তী বাংলা আর বাঙালিদের তো জনপ্রিয় করে দিল!” সুশান্তের প্রাক্তন প্রেমিকার নামের পাশে ওই একটি পদবীই যেন কাল! বাঙালি মেয়েরা যেন রাতারাতি ‘খলনায়িকা’র মতো হয়ে উঠেছে নেটজনতার একাংশের কাছে! তার প্রতিবাদেই দিন দুয়েক আগে সরব হয়েছিলেন দুই অভিনেত্রী নুসরত জাহান এবং স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়। এবার কলকাতা পুলিশের সাইবার সেলে অভিযোগ দায়েরের পর ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিশ।

[আরও পড়ুন: রিয়া চক্রবর্তীর জন্য বাঙালি মেয়েদের আক্রমণ? মুখ খুললেন স্বস্তিকা]

rhea

সুশান্ত সিং রাজপুত ইস্যুর রেশ এবার বাংলাতেও। বাঙালি মেয়েদের প্রতি এই কদর্য আক্রমণের প্রতিবাদে রাজ্য মহিলা কমিশনের তরফে কলকাতা পুলিশের সাইবার সেলে অভিযোগ জানানো হয়। গোটা বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন জয়েন্ট সিপি ক্রাইম মূরলীধর শর্মা। সোশ্যাল মিডিয়ায় যে সব অ্যাকাউন্টগুলি থেকে এই অশালীন মন্তব্যগুলো আসছে, সেই সব অ্যাকাউন্টগুলি সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে কলকাতা পুলিশ।

রাজ্য মহিলা কমিশনের চেয়ারপার্সন তথা টলিউডের স্বনামধন্যা পরিচালক-প্রযোজক লীনা গঙ্গোপাধ্যায় জানিয়েছেন, “আমরা ইতিমধ্যেই এমন বহু অভিযোগ পেয়েছি মহিলাদের কাছ থেকে, যাঁরা সোশ্যাল মিডিয়ায় এধরণের কদর্য মন্তব্যের মুখে পড়েছেন। সেসব যাবতীয় তথ্য কলকাতা পুলিশের সাইবার সেলের হাতে তুলে দেওয়া হবে। তাদের তদন্তের উপর ভিত্তি করেই রাজ্য মহিলা কমিশন পরবর্তী পদক্ষেপ করবে।” সূত্রের খবর, চাঁদনি চক্রবর্তী নামে কলকাতার এক মনোবিদই প্রথম যিনি অভিযোগ দায়ের করেন।

[আরও পড়ুন: বাড়ছে জট, সুশান্তের ময়নাতদন্তের রিপোর্ট বিহারের তদন্তকারীদের দিতে নারাজ মুম্বই পুলিশ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement