BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘পালঘরে সাধু হত্যার সময় কোথায় ছিলেন আপনি?’ জয়া বচ্চনকে তীব্র আক্রমণ লকেটের

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: September 16, 2020 6:11 pm|    Updated: September 16, 2020 6:13 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: “হিপোক্রিসির চরম! পালঘরে সাধুদের হত্যার সময় কোথায় ছিলেন আপনি?”, জয়া বচ্চনকে (Jaya Bachchan) কড়া ভাষায় আক্রমণ বাংলার বিজেপি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়ের (Locket Chatterje)। মঙ্গলবার পার্লামেন্টে বিজেপি সাংসদ রবি কিষেণ এবং সমাজবাদী পার্টির সাংসদ জয়া বচ্চনের তরজা নিয়ে তুমুল শোরগোল শুরু হয়েছে রাজনৈতিক মহলের অন্দরে, সেই সংসদীয় বাগযুদ্ধের রেশ ধরেই এবার সুর চড়ালেন লকেট চট্টোপাধ্যায়।

প্রবীণ বলিউড অভিনেত্রীকে এক ইঞ্চি জায়গা ছেড়ে দিতে নারাজ লকেট! যে ইন্ডাস্ট্রির বিষয়ে কটু কথা শোনা না-পসন্দ জয়ার। সেই প্রসঙ্গ টেনেই লকেটের মন্তব্য, “বলিউডের একটা অংশ পচা দাঁতের মতো। এটা তুলে ফেলা উচিত, নতুবা সর্বাঙ্গে পচন ধরতে পারে! পালঘরে সাধুদের হত্যার ঘটনার সময় হোক কিংবা নৌবাহিনীর প্রাক্তন আধিকারিকের উপর আক্রমণ, সেই সময়ে আপনি কোথায় ছিলেন জয়া বচ্চন? এই আচরণ ‘দ্বিচারিতা’ ছাড়া আর কিছুই নয়!” শুধু তাই নয়, সুশান্ত প্রসঙ্গ টেনে এনেও সপা নেত্রী জয়াকে কটাক্ষ করেন বিজেপি সাংসদ লকেট। প্রশ্ন ছোঁড়েন, “সুশান্ত সিং রাজপুত যখন বলিউড মাফিয়াদের চক্রান্তের শিকার হয়েছিলেন, তখন আপনি কোথায় ছিলেন?”

[আরও পড়ুন: ‘বলিউড নিয়ে কুৎসা শুনব না’, রবি কিষেণকে কটাক্ষ করে বিরোধীপক্ষ জয়ার পাশে হেমা]

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার ভরা সংসদ অধিবেশনে বলিউডের সঙ্গে মাদকযোগ থাকার কথা বলেছিলেন ভোজপুরি অভিনেতা তথা রাজনীতিক রবি কিষেণ। গেরুয়া শিবিরের সাংসদকে পালটা দিয়ে জয়া বচ্চন (Jaya Bachchan) বলেছিলেন, “যে থালায় খান, সেই থালাতেই ফুটো করছেন!” বলিউডের সিংহভাগের সমর্থন ইতিমধ্যেই আদায় করে নিয়েছেন জয়া। খোদ বিজেপি সাংসদ-অভিনেত্রী হেমা মালিনী যখন জয়া বচ্চনের পাশে দাঁড়িয়েছেন, তখন লকেট কিন্তু অন্য পথে হেঁটে মোক্ষম আক্রমণ করেছেন জয়াকে।

প্রসঙ্গত, বাবুল সুপ্রিয়ের (Babul Supriyo) গলায় কিন্তু সংশ্লিষ্ট বিষয়ে লকেট চট্টোপাধ্যায়ের থেকে উলটো সুরই শোনা গেল। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুলের সাফ কথা, “ক্রিকেটে যেমন সকলে দুর্নীতিগ্রস্ত নন, তেমন বলিউডের সকলেই মাদকাসক্ত নন। এভাবে গোটা বলিউডের দুর্নাম করা একেবারেই উচিত নয়। এখন বলিউডের ড্রাগ অ্যাঙ্গেল নিয়ে যেরকম চর্চা হচ্ছে, তা মনে করিয়ে দিচ্ছে একসময়ে ক্রিকেট-বেটিং কেলেঙ্কারি নিয়ে শোরগোলের কথা! সেই সময়ও খেলার ময়দানের সকলে এতে জড়িত ছিলেন না। সবাই কিন্তু দুর্নীতিগ্রস্ত ছিলেন না। তবে তখনও সবার উপরে গিয়ে ক্রিকেটেরই জয় হয়েছিল। ঠিক তেমনই বলিউডও স্বমহিমাতেই থাকবে, কারণ সবাই তো আর খারাপ হন না।”

[আরও পড়ুন: ‘বলিউড নিয়ে কুৎসা শুনব না’, রবি কিষেণকে কটাক্ষ করে বিরোধীপক্ষ জয়ার পাশে হেমা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement