৪ কার্তিক  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২২ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পর্নোগ্রাফি মানেই বিশাল অঙ্কের আয়। অনেক টাকা। ‘শরীর দেখালে টাকার বৃষ্টি তো হবেই।’ এমন ধারণা কমবেশি অনেকের মধ্যেই রয়েছে। কিন্তু এই ধারণা যে সম্পূর্ণ ভ্রান্ত, সম্প্রতি টুইটারে সেকথা বললেন পর্নস্টার মিয়া খলিফা। তিনি যে প্রমাণ ছাড়া কথা বলছেন না, তা বিশ্বাস করাতে নিজের আয়ের কথাও বলেন অভিনেত্রী।

পর্নোগ্রাফির দর্শক বিশ্বে কম নেই। ভারতের মতো কয়েকটি দেশে পর্ন নিষিদ্ধ। কিন্তু অনেকে দেশে আবার পর্নোগ্রাফি দেখা অপরাধ নয়। এমনকী পর্নোগ্রাফির দুনিয়ায় বড় বড় পুরস্কারও রয়েছে। বছরের সেরা অভিনেতা, অভিনেত্রী, ছবি পুরস্কৃত হয় সেখানেও। ফলে যারা সেই ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করে, রোজগারও মন্দ করেন না। আর অভিনেতা অভিনেত্রীরা যখন শরীর দেখাচ্ছেন, ক্যামেরার সামনে যখন সম্পূর্ণ নগ্ন হয়ে দাঁড়াচ্ছেন, তখন তাঁদের আয় যে বাকিদের থেকে অনেকটাই বেশি হবে, এমন ধারণা অল্পবিস্তর সকলেরই আছে। কিন্তু মিয়ার মতে, এসব ধারণা আদ্যোপান্ত ভুল। এমন কিছু বেশি আয় হয় না এই ইন্ডাস্ট্রির অভিনেতা অভিনেত্রীদের। তিনি নিজেই মাত্র ১২ হাজার ডলার আয় করেছেন।

[ আরও পড়ুন: কাশ্মীর ইস্যুতে মার্কিন সমর্থন আদায়ে নয়া ষড়যন্ত্র ইমরান প্রশাসনের ]

সম্প্রতি একটি সংবাদমাধ্যমকে সাক্ষাৎকার দিয়েছেন মিয়া খলিফা। সেই সাক্ষাৎকার টুইটারে ট্রেন্ডিং। সেখানে মিয়া বলেছেন, “সবাই ভাবে আমি পর্ন ছবি থেকে লাখ লাখ টাকা আয় করেছি। এটা একেবারেই সত্যি নয়। আমি ১২ হাজার ডলার (ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ৮.৫ লক্ষ টাকা) আয় করেছি। তারপর এক পয়সাও চোখে দেখিনি। পর্ন ছেড়ে দেওয়ার পর চাকরি খোঁজা আমার জন্য খুব ভয়ানক একটি পরিস্থিতি ছিল।”

মিয়া খলিফা মোট তিনমাস পর্ন ইন্ডাস্ট্রিতে ছিলেন। কিন্তু ওই সময়টুকুর মধ্যে জনপ্রিয়তার শিখরে পৌঁছে গিয়েছিলেন তিনি। আজও সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয় পর্নোগ্রাফি তারকাদের মধ্যে তিনি রয়েছেন তিন নম্বরে। পর্নহাবে তাঁর ছবিগুলি টপ রেটেড। কিন্তু পাঁচ বছর আগে তিনি পর্ন ইন্ডাস্ট্রি থেকে বিদায় নিয়েছেন। তা সত্ত্বেও তাঁর জনপ্রিয়তায় বিন্দুমাত্র ভাটা পড়েনি। বরং এখনও প্রথম সারির পর্নস্টারই রয়ে গিয়েছেন তিনি। নিঃসন্দেহে মিয়ার কাছে এটা বড় প্রাপ্তি। কিন্তু তাও, মাঝেমধ্যেই এই নিয়ে বিড়ম্বনায় পড়তে হয় তাঁকে।

[ আরও পড়ুন: ‘কাশ্মীর আমাদের ছিল না, হবেও না’, সাফ কথা পাকিস্তানি ইমামের ]

মিয়া সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, একসময় পর্ন ছবিতে কাজ করার জন্য এখনও সমস্যায় পড়তে হয় তাঁকে। এখনও যেহেতু তাঁর ছবি সার্চ করলে দখা যায়, তাই অনেকেই ভেবে নেন তিনি এখনও পর্নস্টার। এমনটা একেবারেই নয়। বরং অনেক চড়াই-উৎরাই পেরিয়ে তিনি আজ অন্য জায়গায় কাজ করছেন। এর জন্য অনেক সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়েছে তাঁকে। বায়োডেটায় আপডেট হয়নি। এর জন্য অনেক জায়গায় কৈফিয়ত দিতে হয়েছে তাঁকে। কিন্তু এখন তিনি সেসব পেরিয়ে এসেছেন। পরিস্থিতি এখন অনেকটাই স্থিতিশীল। এখন তিনি একটি স্পোর্টস শো পরিচালনা করেন।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং