BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

বাংলা ছবির স্বর্ণযুগের গানকে মনে করাবে মিউজিক্যাল মুভি ‘মায়াকুমারী’

Published by: Bishakha Pal |    Posted: June 13, 2020 6:24 pm|    Updated: June 13, 2020 8:24 pm

An Images

শ্যামশ্রী সাহা: প্রায় আড়াই মাসের খরা কাটিয়ে বিনোদন জগতেও এখন চলছে ‘আনলক ওয়ান’। শুরু হয়ে গেছে শুটিং, মিউজিক রিলিজ। গতকালই রিলিজ হয়েছে অরিন্দম শীলের ছবি ‘মায়াকুমারী’ (Maayakumari) গান ‘চোখের জল’।

বারোটা গান আছে এই ছবিতে। সেক্ষেত্রে এই ছবিটি মিউজিক্যাল মুভি। বাংলা ছবিতে এখন যেখানে আরবান লিরিক বা সুরের প্রাধান্য, সেখানে মেলোডি বেসড গান নিসন্দেহে ব্যতিক্রম।
“আমার অনেক দিনের ইচ্ছে ছিল মেলোডি নিয়ে কাজ করার। পাঁচ থেকে সাতের দশকের গানের কথা, সুর আমায় এখনও টানে। প্রায়ই শুনতে হয় ওইরকম গান এখন আর শোনা যায় না। আমার বিশ্বাস ‘মায়াকুমারী’র গান দর্শকদের ভাল লাগবে। মেলোডি গানের এই শূন্যস্থানটা পূরণ করবে।” বললেন ছবির মিউজিক কম্পোজার বিক্রম ঘোষ। ছবিতে গান গেয়েছেন ইন্দ্রনীল সেন, ইমন চক্রবর্তী, উজ্জ্বয়িনী, মধুবন্তী, অঙ্কিতা, দিব্যেন্দু, মনোময়।

“গানটার ভিস্যুয়াল দেখার পর থেকেই আমি খুব এক্সাইটেড। মনে হয়েছিল এটা আমার জন্য দারুন ব্রেক। স্বর্ণযুগের গান কথাটা আমরা সবাই শুনেছি, ওই সময়ের গানের ধারাকে বিক্রম এই ছবিতে খুব সুন্দর কাজে লাগিয়েছেন। গানটা নিয়ে আমি খুব আশাবাদী।” বললেন মনোময়। ‘চোখের জল’ ছাড়াও এই ছবিতে আরও একটা গান গেয়েছেন তিনি যেটা রিলিজের অপেক্ষায়।

maayakumari

[ আরও পড়ুন: সিরিয়ালের শুটিং শুরু হলেও থামেনি বিতর্ক! আর্টিস্ট ফোরাম থেকে পদত্যাগ চার সদস্যের ]

‘মায়াকুমারী’ ৫০-এর দশকের একজন বিখ্যাত নায়িকা-গায়িকা। মায়াকুমারীর সম্পর্ক ছিল কাননকুমারের সঙ্গে। মায়া-কানন জুটি ছিল সেই সময়ের হিট জুটি, কিন্তু মায়াকুমারীর বিয়ে হয়ে যায় সংগীত পরিচালক শীতল ভট্টাচার্যের সঙ্গে। হঠাৎ একদিন মায়াকুমারী সিনেমা ছেড়ে বেরিয়ে যান। কলকাতার বাইরে একটা বাড়িতে স্বামীর সঙ্গে থাকতে শুরু করেন। সিনেমা জগতের কারওর সঙ্গেই সম্পর্ক রাখেন না। কিন্তু এই সিদ্ধান্তের পিছনে আসল রহস্য পরে জানা যায় যেটা ছবির মূল আকর্ষণ।

প্রেম-রহস্য ঘেরা এই ছবি কি মুক্তি পাবে করোনা আবহে? না কি অপেক্ষা করতে হবে দর্শকদের?

“অনেকদিন থেকেই আমি আর বিক্রম একটা মিউজিক্যাল ছবি বানাবো ভাবছিলাম। মায়াকুমারির চিত্রনাট্য আমাদের ভাবনাটাকে রূপ দিয়েছে। এই ছবিতে আমি পাঁচের দশকের সিনেমা তৈরির ধারাটাকেই অনুসরণ করেছি।আমি দেখেছি ওটিটি প্ল্যাটফর্মে বাংলা কনটেন্ট নিয়ে সেরকম ইন্টারেস্ট কারোর নেই। তাই ‘মায়াকুমারী’র রিলিজের জন্য দর্শককে পুজো অবধি অপেক্ষা করতে হবে।” বললেন পরিচালক অরিন্দম শীল।

[ আরও পড়ুন: লকডাউনে ঘরবন্দি মেয়ের গা ছমছমে অভিজ্ঞতার গল্প, আসছে রূপাঞ্জনার ওয়েব সিরিজ ‘ঘুলঘুলি’ ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement