BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

রিয়ার সঙ্গে মাদক লেনদেন! সুশান্তের মৃত্যুতে জাতীয় স্তরের খেলোয়াড়কে জেরা ইডি’র

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: September 2, 2020 10:04 pm|    Updated: September 2, 2020 10:04 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মাদকচক্র যোগ, ডার্কনেট-এর সঙ্গে যোগাযোগ, একাধিক অভিযোগের ভিত্তিতে সম্প্রতি রিয়া চক্রবর্তী ও তাঁর ভাই সৌভিক চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা (ক্রিমিনাল কেস) দায়ের করেছে নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো। তাঁদের বিরুদ্ধে নারকোটিক ড্রাগস অ্যান্ড সাইকোট্রপিক সাবস্টেন্সের ২০,২২,২৭ এবং ২৯-এর ধারায় মামলা দায়ের হয়েছে বলে খবর। যার রেশ ধরে বুধবার গ্রেপ্তার করা হয়েছে জায়েদ, বসিত এবং ফৈয়াজ আহমেদ নামে ৩ জনকে। এবার রিয়ার (Rhea Chakraborty) সঙ্গে মাদকজালের যোগ নিয়ে বিপাকে পড়লেন জাতীয় স্তরের বিলিয়ার্ড এবং স্নুকার খেলোয়াড় ঋষভ ঠক্কর।

সূত্রের খবর, মঙ্গলবারই প্রায় ৮ ঘণ্টা ঋষভকে জেরার পালা চলে। হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটের সূত্র ধরেই ঋষভের নাম উদ্ধার করা হয়েছে বলে খবর। জানা যাচ্ছে, রাজস্থানের উদয়পুরের একটি বিয়ে বাড়িতে গিয়ে রিয়ার সঙ্গে দেখা হয়েছিল ঋষভ ঠক্করের (Rishabh Thakkar), যেখানে অজ্ঞাত পরিচয় এক ব্যক্তিকে টাকা নিয়ে এসে ‘কন্ট্রাব্যান্ড’ নিয়ে যাওয়ার কথা বলেন। যেখানে পরিষ্কার যে, আইনবিরুদ্ধ স্মাগলিংয়ের কোনও বিষয়ের সঙ্গে জড়িত ঋষভ। আর তার জেরেই মঙ্গলবার ঋষভকে একটানা ৮ ঘণ্টা ধরে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় ইডির দপ্তরে।

[আরও পড়ুন: বারাণসীর ৩৫০টি মাঝি পরিবারের দায়িত্ব নিলেন সোনু, মিলল রাজনীতিতে যোগের ইঙ্গিত!]

Rishav

যদিও মাদক সংক্রান্ত বিষয়ে তাঁর কিছু জানা নেই এবং তিনি জড়িত নন বলে দাবি করেছেন ঋষভ। তবে প্রয়োজনে ফের তাঁকে তলব করা হতে বপারে বলে জানা গিয়েছে। প্রসঙ্গত সূত্রের খবর, রিয়া নাকি একাধিক ড্রাগ ডিলিং গ্রুপের সঙ্গে হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে যোগাযোগ রাখতেন।

অন্যদিকে বুধবার সাংবাদিক সম্মেলন করে সুশান্তের (Sushant Singh Rajput) পরিবারের আইনজীবী বিকাশ সিং সাফ জানিয়ে দেন যে, প্রয়াত অভিনেতার কোনও বিমা করা নেই। সুশান্তের অর্থের উপর নজর রেখেই তাঁর পরিবার খুনের তত্ত্ব ছড়িয়ে দিচ্ছে বলে একাধিক খবর প্রকাশ্যে এসেছে। এধরনের খবর সুশান্তের পরিবারের পক্ষে অপমানজনক। তাই ভবিষ্যতে এমন গুজব ছড়ালে আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলে স্পষ্ট করলেন আইনজীবী বিকাশ। এমনকী এও বলেন যে, সুশান্তের পরিবারকে জোর করে মারাঠি বয়ানে সই করিয়ে নিয়েছিল মুম্বই পুলিশ।

[আরও পড়ুন: ৮ ঘণ্টা ম্যারাথন জেরার পরও সন্তুষ্ট নয় CBI, ফের তলব রিয়ার মা-বাবা ও সিদ্ধার্থ পিঠানিকে]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement