১৭  আষাঢ়  ১৪২৯  রবিবার ৩ জুলাই ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

বিশ্ব মাতৃদুগ্ধপান সপ্তাহে বিশেষ ক্যাম্পেন নেহা ধুপিয়ার, সঙ্গ দিলেন সোহাও

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: August 6, 2019 5:55 pm|    Updated: August 6, 2019 5:55 pm

Neha Dhupia starts campaigning for World Breastfeeding week

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রাস্তাঘাটে, শপিংমলে জনসমক্ষে যেখানেই সন্তানকে মাতৃদুগ্ধ পান করানো হোক না কেন, তা কখনওই অশ্লীলতার মধ্যে পড়তে পারে না। প্রকাশ্যে সন্তানদের দুগ্ধপান করানো নিয়ে এর আগে একাধিকবার সোশ্যাল মিডিয়ায় বিতর্কের ঝড় উঠেছে। সেই আবেগ টেনেই সম্প্রতি #FreedomToFeed ক্যাম্পেন শুরু করেছেন নেহা ধুপিয়া। আর তাতে সাড়া দিয়েছেন সোহা আলি খানের মতো বলি অভিনেত্রী থেকে শুরু করে সাধারণ নারীরাও।  

[আরও পড়ুন: ‘স্বৈরতন্ত্র চালাচ্ছে মোদি সরকার’, কাশ্মীর ইস্যুতে সরব কমল হাসান ]

কুইন্সল্যান্ডের পার্লামেন্টে সেনেটর ল্যারিসা ওয়াটার্সের সন্তানকে স্তন্যপান করানোর কথা নিশ্চয়ই মনে আছে? গোটা দুনিয়ার মায়েরা যেই ঘটনায় ল্যারিসাকে কুর্নিশ জানিয়েছিলেন। কেন না, প্রথমবার সেনেটর হিসেবে পার্লামেন্টে বসে সন্তানকে দুগ্ধপান করিয়ে ইতিহাস গড়েছিলেন তিনি। এরপর মালয়ালি ম্যাগাজিনে দক্ষিণী তারকা গিল্লু জোসেফের স্তন্যপান করানোর ছবি ঘিরেও বেজায় বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছিল ভারতে। কিন্তু, সন্তানকে স্তন্যপান করানোর অধিকার তো সবার রয়েছে। খুদে পেটে খিদে তো আর বাঁধ মানে না। আর মা হিসেবে কী করেই বা সন্তানের খিদের জ্বালা সহ্য করবেন! অতঃপর স্থান-কাল নির্বিশেষে সন্তানকে দুগ্ধপান করাতে হয়। আর তা তো কোনও অপরাধ নয়। এমন প্রশ্ন তুলেই নেহা সোশ্যাল মিডিয়ায় শুরু করেছেন ক্যাম্পেন।

বিমানযাত্রার সময় একবার মেহেরকে বিমানের ওয়াশরুমে নিয়ে গিয়ে স্তন্যপান করাতে হয়েছিল

১ আগস্ট থেকে শুরু হয়েছে বিশ্ব মাতৃদুগ্ধপান সপ্তাহ। যা চলবে আগামী ৭ আগস্ট পর্যন্ত। জন্মের পর যতদিন সম্ভব সন্তানকে মায়ের দুধ খাওয়ানো উচিত, একথা চিকিৎসকরা প্রায়ই বলেন। কিন্তু বর্তমানের ব্যস্তজীবনে কর্মজীবী মায়েদের পক্ষে অনেক সময়েই তা সম্ভব হয় না। তাই মাতৃদুগ্ধ পান বিষয়ক সচেতনতা বাড়াতে বিশ্বজুড়ে উদ্যোগী হয়েছেন চিকিৎসক এবং শিশু বিশেষজ্ঞরা। নেহা ধুপিয়াও সেই আবহে গা ভাসিয়ে নিজের মতো করে ক্যাম্পেন শুরু করেছেন। মেয়ে মেহেরাকে দুগ্ধপান করানোর ছবি পোস্ট করে বিশেষ বার্তাও দিয়েছেন মায়েদের জন্য। “মাতৃত্বের এত সুন্দর একটি অভিজ্ঞতা নিয়ে মানুষ কেন অস্বস্তিতে পড়েন কে জানে! বিমানযাত্রার সময় একবার মেহেরকে বিমানের ওয়াশরুমে নিয়ে গিয়ে স্তন্যপান করাতে হয়েছিল” জানান নেহা। আর ঠিক এই বিষয়টিতেই আপত্তি তুলেছেন তিনি। পাশাপাশি নেহা উল্লেখ করেছেন যে, যেসব মা’রা প্রকাশ্যে স্তন্যপানের ক্ষেত্রে স্বচ্ছন্দ নন, তাঁদের জন্য বিশেষ ব্যবস্থা করা উচিত। সংকোচে পড়ে সন্তানের খিদে মেটানো থেকে কেউ যেন বিরত না থাকেন, সেই ট্যাবুর কথাও বলেছেন তিনি।

[আরও পড়ুন: বড়পর্দায় এবার অজিত দোভালের ভূমিকায় অক্ষয় কুমার]

নেহার #FreedomToFeed ক্যাম্পেনে সাড়া দিয়েছেন সোহা আলি খান। তিনিও ভিডিওতে মেয়ে ইনায়াকে স্তন্যদানের মারাত্মক অভিজ্ঞতা শেয়ার করেছেন এক ভিডিওতে। যেসব মহিলারা ক্যাম্পেনে সাড়া দিয়েছেন, নেহা ধুপিয়া তাঁদের ভিডিও এবং ছবি শেয়ার করেছেন নিজের ইনস্টাগ্রামে।

 
 
 
 
 
View this post on Instagram
 
 
 
 
 
 
 
 
 

it’s been 8 months since I embarked on this rollercoaster and there is no better time than now to talk about how truly grateful I am for all the joy that our little one has brought into our lives…motherhood like all else hasn’t been easy… the sleepless nights, the feeling like a food source ,the blues are all a part of this wonderful package. Its amazing how the mommy brain can do so many things at the same time and works on autopilot …like resting the baby’s head jus right , knowing when she is done with her feed and ofcourse becoming the burping expert of the world . I breastfed 🤱 Mehr exclusively for 6 months and still continue to do so … It truly made me realise the value of a wonderful support system that I have and sometimes the lack of it and also the lack of facilities . Like once I was on a plane and had to feed her , and I literally had to take her to the washroom and was only hoping that the seat belt sign does nt come on before she is done …of course I came out n apologised for using the washroom for so long… now here’s the real deal … I honestly don’t understand the consciousness behind doing something so right n so beautiful. Im also super grateful for all the amazing people in my life for making this journey easier but the truth is I know I’m not alone in feeling that there has to be a slight shift in our mentalities, in the fact that we need more facilities for breast feeding moms with their babies or even their breast pumps …and the only way this can happen is if we start a conversation… I want to encourage moms like you and me whether breast feeding or not , to share their story … tag me @nehadhupia and use the hashtag #freedomtofeed 🤱and I promise to share story with my little world. 💕 … @freedomtofeed

A post shared by Neha Dhupia (@nehadhupia) on

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে