BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘অন্ধ্রে গণতন্ত্র নেই’! চন্দ্রবাবুর রাজ্যে ঢুকতে বাধা পেলেন রামগোপাল ভার্মা

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: April 28, 2019 9:18 pm|    Updated: April 28, 2019 9:18 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রামগোপাল ভার্মা পরিচালিত ‘লক্ষ্মীজ এনটিআর’ অন্ধ্রপ্রদেশে মুক্তি পেতে চলেছে ১ মে। আর সেই ছবি মুক্তির প্রাক্কালেই পরিচালক পড়লেন পুলিশি খপ্পরে। সূত্রের খবর অনুযায়ী, রবিবার অন্ধ্রপ্রদেশে এক সাংবাদিক বৈঠকের জন্য পৌঁছনোর কথা ছিল রামগোপালের। পরিকল্পনা মাফিক তিনি পৌঁছেও ছিলেন। কিন্তু বাদ সাধলেন অন্ধ্রপ্রদেশের বিজয়ওয়াড়া বিমানবন্দরের দায়িত্বে থাকা রক্ষীরা। বিমানবন্দরে পা রাখা মাত্রই কর্মকর্তারা তাঁকে বাধা দেন। এমনকী, ঘণ্টাখানেকের জন্য তাঁকে পুলিশি হেফাজতেও রাখা হয়।

 [আরও পড়ুন:  OMG! বলিউডের এই অভিনেতাকে মনে ধরেছিল কাজলের! ]

রবিবার এই ঘটনার পরই পরিচালক নিজের সোশ্যাল মিডিয়ায় এই বিষয়ে পর পর বেশ কয়েকটি টুইট করেন। অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নায়ডু এবং তাঁর সরকারকে বিঁধে টুইটে প্রশ্ন তোলেন রামগোপাল। কেন নায়ডু নিজের ক্ষমতার অপব্যবহার করছেন? সেই প্রশ্নও তোলেন তিনি।

রবিবার ৪টে নাগাদ ছিল সাংবাদিক বৈঠক। কিন্তু বিমানবন্দরে পুলিশ বাধা দেওয়ায়, সেই বৈঠক বাতিল করতে হয় তাঁকে। উপরন্তু, রামগোপালকে বাধ্য করা হয়েছে, অন্ধ্রপ্রদেশের বিজয়ওয়াড়া বিমানবন্দর থেকেই হায়দরাবাদ ফিরে যেতে। এরপরই পরিচালক প্রশ্ন তোলেন- “গণতন্ত্র কোথায়? কেন সত্যকে ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে?” পরিচালকের বিরুদ্ধে অভিযোগ, এই ছবিতে অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নায়ডুর ভাবমূর্তি নষ্ট করা হয়েছে। ছবির গল্পে তাঁকে ‘ভিলেন’ হিসেবে দেখানো হয়েছে। এনটি রামা রাও এবং স্ত্রী লক্ষ্মীর জীবনকাহিনি দেখাতে গিয়ে জামাতা চন্দ্রবাবুর ভাবমূর্তি নষ্ট করা হচ্ছে বলে মনে করছে অন্ধ্রপ্রদেশ সরকার। আর তাই ‘লক্ষ্মীজ এনটিআর’ ছবির মুক্তি এতদিন আটকে রাখা হয়েছিল সংশ্লিষ্ট রাজ্যে।

 [আরও পড়ুন:  প্রতিশ্রুতিই সার, না পাওয়ার ক্ষোভ উগরে ব়্যাপ রূপান্তরকামীদের ]

প্রসঙ্গত, ভার্মা-সহ গোটা ‘লক্ষ্মীজ এনটিআর’ টিমের বুকিং নিতে চায়নি অন্ধ্রপ্রদেশের দুটো হোটেল কর্তৃপক্ষ। দু’জায়গায় বুকিং বাতিল করে অগ্রিম টাকাও ফেরত দিয়ে দেওয়া হয়। এমনকী, সে রাজ্যে পরিচালককে টুইটার, ফেসবুক-সহ যাবতীয় সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করতে বাধা দেওয়া হয়। এই প্রথম বিতর্কে জড়াননি রামগোপাল। এর আগেও বহুবার খবরের শিরোনামে এসেছেন নানা বিতর্কে জড়িয়ে।

 

JAI TDP DEMOCRACY 🙏🙏🙏 pic.twitter.com/8LPFGQx3am

— Ram Gopal Varma (@RGVzoomin) April 28, 2019

 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement