BREAKING NEWS

২১ চৈত্র  ১৪২৬  শনিবার ৪ এপ্রিল ২০২০ 

Advertisement

অ্যাসিড আক্রান্ত বঙ্গকন্যা সঞ্চয়িতার বিয়ে দিলেন শাহরুখ, টুইটে শুভেচ্ছা নবদম্পতিকে

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: February 27, 2020 5:07 pm|    Updated: February 27, 2020 5:07 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সিনেমার পাশাপাশি শাহরুখ খান যে সেবামূলক কাজের সঙ্গেও যুক্ত, এই খবর কারোরই অজানা নয়। এবার অ্যাসিড আক্রান্ত বঙ্গকন্যা সঞ্চয়িতার বিয়ে দিলেন বলিউড অভিনেতা শাহরুখ খান। মঙ্গলবারই ভালবাসার মানুষ শুভ্র দে’র সঙ্গে সাত পাকে বাঁধা পড়েন সঞ্চয়িতা যাদব। এ যেন একেবার স্বপ্নের বিয়ে। বড়পর্দার ‘ছপাক’ যেন বাস্তবে উঠে এল। যদিও পর্দায় বিয়েটা অমল-মালতির বিয়েটা দেখানো হয়নি। কিন্তু লক্ষ্মীর আগরওয়ালের জীবনেও ঠিক এমনটাই ঘটেছিল। সঞ্চয়িতা-শুভ্রর বিয়ের দায়িত্ব নিয়েছিল শাহরুখ খানের ‘মীর ফাউন্ডেশন’।

[আরও পড়ুন: ‘লাঠি-গুলি সব মনে রাখব’, ‘পিংক ফ্লয়েড’ সদস্যের মুখে জামিয়ার ছাত্রের CAA বিরোধী গান ]

শাহরুখ যে শুধু বিয়ের দায়িত্ব নিয়েছেন এমনটাই নয়, বরং সোশ্যাল মিডিয়ায় সঞ্চয়িতা-শুভ্রর বিয়ের মুহূর্তও টুইট করে শুভেচ্ছা জানালেন বাদশা। এবং তার পাশাপাশি নিজের সঙ্গেও সঞ্চয়িতার একটি ছবি দিয়েছেন। এমনিতে অবশ্য সোশ্যাল মিডিয়ায় তিনি বরাবরই অ্যাক্টিভ। অনুরাগীদের মাঝেমধ্যেই টুইটারে শুভেচ্ছা জানান তিনি। কিন্তু এমনভাবে টুইট করে শুভেচ্ছা জানানোয় শাহরুখের প্রশংসায় মুখর নেটদুনিয়া। টুইটে তিনি লেখেন, “শুভেচ্ছা সঞ্চয়িতা। আশা করি তোমার এবং শুভ্রর জীবন খুশিতে ভরে উঠুক। ভালবাসা নিও।”

‘মীর ফাউন্ডেশন’ মূলত অ্যাসিড আক্রান্ত মহিলাদের সমাজের মূল স্রোতে ফিরিয়ে আনার কাজ করে। সেই সুবাদেই সঞ্চয়িতার বিয়ের যাবতীয় খরচ এই সংগঠনের তরফে নেওয়া হয়েছিল।

[আরও পড়ুন: ‘দেশে এখনও কেন হিন্দু-মুসলিম হানাহানি?’, দিল্লি নিয়ে টুইট তরজা চেতন-অনুপমের]

২০১৪ সালের ২২ অগাস্ট। জীবনের সেই কঠিন দিনটির দগদগে স্মৃতি আজও অক্ষত সঞ্চয়িতার কাছে। প্রেমের সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে আসতে চেয়েছিলেন সঞ্চয়িতা। বেশ কয়েকদিন ধরেই মনোমালিন্য থাকায় প্রাক্তন প্রেমিককে জানান সেই কথা। প্রেমিকের বারবার বোঝানো সত্ত্বেও রাজি হননি সঞ্চয়িতা। ঝগড়া করে চলে আসার পথে রাস্তাতেই সঞ্চয়িতার মুখে অ্যাসিড ছুঁড়ে দেন তাঁর প্রাক্তন প্রেমিক। যন্ত্রণা, চিৎকার, কাতর আর্তিতে সেদিন রাস্তায় ছটফট করেছিল বছর ২০’র তরুণী। সেই থেকে শুরু লড়াই। তবে লড়াইয়ে বন্ধু হিসেবে পাশে পেয়েছিলেন শুভ্র দে-কে। সঞ্চয়িতার প্রতি তাঁর ভাললাগা ছিল অনেক দিনের। টিউশন ক্লাস থেকে জীবনের লড়াই সব জায়গাতেই পাশে থেকেছেন শুভ্র। এবার সারা জীবনের জন্য সঞ্চয়িতার হাত ধরলেন। 

Advertisement

Advertisement

Advertisement