BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

অবশেষে কাটল জটিলতা, আগামিকাল থেকে শুটিং শুরু টলিপাড়ায়

Published by: Bishakha Pal |    Posted: June 10, 2020 6:11 pm|    Updated: June 10, 2020 8:47 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অবশেষে সমস্যার সমধান। দীর্ঘ আলোচনার পর জট কাটল টলিউডের অন্দরমহলে। আগামিকাল, অর্থাৎ ১১ জুন থেকে শুরু হবে বিভিন্ন ধারাবাহিকের শুটিং। বুধবার মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাসের অফিসে তাঁর উপস্থিতিতে প্রোডিউসরস গিল্ড, আর্টিস্ট ফোরাম (Artist Forum) , ইম্পা (IMPPA)-সহ একাধিক সংগঠনের মধ্যে বৈঠক হয়। সেখানেই আগামিকাল থেকে শুটিং শুরু হওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার, ১০ জুন থেকে বাংলা ধারাবাহিকগুলোর শুটিং শুরু হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু আর্টিস্ট ফোরামের তরফ থেকে শুটিং শুরুর ব্যাপারে এদিন সবুজ সংকেত দেওয়া হয়নি। বিমা সংক্রান্ত সমস্যা থাকায় কাজ শুরু করতে নারাজ ছিলেন শিল্পীরা। যতক্ষণ না পর্যন্ত শিল্পীদের স্বাস্থ্যবিমার কাগজ তাঁরা হাতে পাচ্ছেন, ততক্ষণ পর্যন্ত কোনও শিল্পী শুটিংয়ে অংশ নেবেন না, সাফ জানিয়ে দেওয়া হয়েছে তাদের পক্ষ থেকে। মঙ্গলবার রাতে আর্টিস্ট ফোরামের তরফে জানানো হয়েছে, “যেহেতু এখনও শুটিং শুরুর দিন থেকে শিল্পীদের স্বাস্থ্য ও বীমা সংক্রান্ত বিষয়ে চ্যানেল ও প্রযোজকরা পূর্ণ আশ্বাস আমাদের দিতে পারেননি, তাই এই মূহূর্তে ফোরাম আপনাকে শুটিংয়ে যোগদান করার পরামর্শ দিতে পারছে না।” এ নিয়ে অনেক শিল্পীই আর্টিস্ট ফোরামের পাশে দাঁড়ান। অভিনেত্রী দেবযানী চট্টোপাধ্যায় বলেছেন, তিনি নিজে আর্টটিস্ট ফোরামের সিদ্ধান্তকে সমর্থন করেন। কারণ করোনা যে কোনও মুহূর্তে সংক্রমিত হতে পারে। সেক্ষেত্রে যদি বিমা সংক্রান্ত কোনও নথি হাতে না থাকে, তবে কীসের ভরসায় কাজ শুরু করা যাবে?

[ আরও পড়ুন: লকডাউন ভেঙে রাস্তায় ঘোরাঘুরি, আইনি বিপাকে ‘বাহুবলী’ প্রভাস! ]

তবে বিকেলের বৈঠকে কাটে জট। মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাসের উপস্থিতিতে জোড়া বৈঠকে মিলল সমাধান। আজ বৈঠকে একটি চুক্তি সাক্ষরিত হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। আর্টিস্ট ফোরাম এবং প্রোডিউসরস গিল্ডের তরফে অনেকে উপস্থিত ছিলেন বৈঠকে। বৈঠক শেষে মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস জানান, কোথাও কোথাও সমস্যা ছিল। তা মিটে গিয়েছে। ফিল্মের শুটিং চলছে। আগামিকাল থেকে টেলিভিশনের শুটিং শুরু হবে। শঙ্কর চক্রবর্তী, অরিন্দম গঙ্গোপাধ্যায়, শৈবাল বন্দ্যোপাধ্যায়-সহ অনেকেই সই করেছেন। এছাড়া চ্যানেলের মধ্যে জি, স্টার, সান ও কালার্স বাংলা সই করেছে।  শঙ্কর চক্রবর্তী বলেছেন, ‘মতবিরোধ থাকতেই পারে। আমাদের মধ্যে সমস্যা ছিল। তা আমরা মিটিয়ে নিয়েছি। বর্তমানে করোনা সংক্রমণ বাড়ছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে কীভাবে কাজ শুরু করা যায়, সেদিকে আমাদের নজর দিতে হবে।’ অরিন্দম গঙ্গোপাধ্যায় বলেছেন, ‘সব সমস্যা মিটিয়ে কাজ শুরু করতে চলেছি। কোনও অসুবিধা হলে এতগুলো লোক রয়েছি। সবাই একসঙ্গে ঝাঁপিয়ে পড়ব।’

[ আরও পড়ুন: নিঃশব্দেই সাহায্য করছেন, পরিযায়ীদের বাড়ি পাঠাতে ৩টি বিমানের বন্দোবস্ত অমিতাভের ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement