BREAKING NEWS

১৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

আর চোখের জল নয়, বন্যা কবলিত মাও অধ্যুষিত এলাকার কিশোরীর পাশে সোনু সুদ

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: August 20, 2020 1:53 pm|    Updated: August 20, 2020 1:55 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: লকডাউনে পরিযায়ী শ্রমিক, জনসাধারণের দুঃখ দুর্দশা নিয়ে বই লিখছেন। তাঁকে নিয়ে ইতিমধ্যেই বায়োপিক করার প্রস্তাব এসেছে একাধিক জায়গা থেকে। তবুও ঝাঁ চকচকে স্টার সুলভ জায়গা থেকে দূরে সরে মানব সেবায় নিয়োজিত সোনু সুদ। লকডাউনে সোনু সুদের জনসেবামূলক কাজ তাঁকে ‘ঈশ্বরের দূত’-সম করে তুলেছে জনসাধারণের কাছে। এবার বন্যা কবলিত ছত্তিশগড়ের বস্তরের আদিবাসী কিশোরীর পাশে সোনু সুদ (Sonu Sood)।

বন্যায় ভেসে গিয়েছে ঘর। মাথা গোঁজার সম্বল বলতে রয়ে যাওয়া ওই খড়-কুটোটুকুই। অত্যাধিক বৃষ্টিতে নাজেহাল ছত্তিশগড়ের মাওবাদী অধুষ্যিত এলাকার এক সাঁওতালি কিশোরী। বাণের জল ভাসিয়ে নিয়ে গিয়েছে বইপত্র, একটা ঝুড়ির মধ্যে যেটুকু বা আছে সবই ছেঁড়া পাতা। বাবার চাষের জমির সব ফসল নষ্ট হয়েছে। তবে পেটের খিদে মেটার থেকেও ওই কিশোরীকে ভাবিয়ে তুলেছে তার পড়াশোনার ভবিষ্যৎ। অসহায় হয়ে অঝোরে কেঁদেই চলেছে সে। সেই দুস্থ মেয়ের পাশেই কর্তব্যপরায়ণ দাদার মতো এসে দাঁড়ালেন সোনু সুদ। বললেন, “চোখের জল মুছে নাও বোন। নতুন বাড়ি, নতুন বইপত্র সব পৌঁছে যাবে তোমার কাছে।”

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছত্তিশগড়ের বস্তরের কমলা গ্রামের একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। যাতে দেখা গিয়েছে বন্যা কবলিত ওই এলাকার মানুষেরা কীভাবে দুর্দিন কাটাচ্ছেন। ঘরের অত্যাবশকীয় জিনিসপত্র বাঁচাতে কেউ মাচা বেঁধে তাতে তুলে রেখেছেন। কেউ বা আবার ঝুড়িতে করে ঢেকে রেখেছেন। সেরকমই অসহায় পরিস্থিতিতে পড়েছে সাঁওতালি-কন্যা অঞ্জলি কুদিয়াম। ভিজে যাওয়া জিনিসপত্র থেকে বই উদ্ধার করতে গিয়ে অঝোরে কেঁদে চলেছে সে। আর সোশ্যাল মিডিয়ায় সেই দুস্থ মেয়েটির কান্না দেখেই থাকতে পারলেন না সোনু। তৎক্ষণাৎ সাহায্যের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। সূত্রের খবর, ছত্তিশগড়ের মুখ্যমন্ত্রী ভূপেশ বাঘেলও এই দুস্থ মেয়েটির ভিডিও শেয়ার করে সাহায্যের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

[আরও পড়ুন: সুশান্তের সঙ্গে এক ঘরে থেকেও ‘ধোঁকা’ দিয়েছেন! সারাকে কদর্য আক্রমণ কঙ্গনার]

অন্যদিকে, পরিযায়ী শ্রমিক কিংবা দুস্থদের ‘মসিহা’ সোনু সুদকে নিয়ে ইতিমধ্যেই বায়োপিক তৈরি করার ইচ্ছেপ্রকাশ করেছেন একাধিক সিনে পরিচালক-প্রযোজকরা। দেশজোড়া করোনা আবহে তিনি যেভাবে সাধারণ মানুষের জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করে চলেছেন, তার ‘ঈশ্বরের দূত’ অবতারই সিনে পর্দায় তুলে ধরতে ইচ্ছুক তাঁরা। ইতিমধ্যেই সেকথা জানিয়েছেন সোনু সুদকে। কিন্তু এই বিষয়ে এখনই সবুজ সংকেত দিতে নারাজ অভিনেতা। তাঁর কথায়, “এত তাড়াহুড়োর কিছু নেই। বায়োপিক তৈরির জন্য আরও দিন পড়েই রয়েছে।”

অন্যদিকে, কানাঘুষো শোনা যাচ্ছে এই মুহূর্তে নাকি একাধিক বড় বাজেটের সিনেমার প্রস্তাব আসছে সোনুর কাছে। কিন্তু ব্যস্ত থাকার দরুণ, সেসব নাকচ করে দিতে হচ্ছে তাঁকে।

[আরও পড়ুন: বন্যা কবলিত অসমের পাশে অক্ষয়, ‘প্রকৃত বন্ধু’ বলে ধন্যবাদ জানালেন মুখ্যমন্ত্রী সোনওয়াল]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement