৩১ ভাদ্র  ১৪২৬  বুধবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রেমিক মুসলমান, তাই অত্যাচার করছে বাবা রাকেশ রোশন ও পরিবারের বাকিরা। দিনকয়েক আগেই এই চাঞ্চল্যকর অভিযোগ এনেছিলেন হৃতিক রোশনের বোন সুনয়না। তাঁর অভিযোগ, সাংবাদিক রুহেল আমিনের সঙ্গে সম্পর্ক রাখার জন্য তাঁকে চড় মারেন রাকেশ। এমনকী রুহেলকে জঙ্গি বলেও অপমান করেন তিনি। সুনয়নার আরও অভিযোগ, প্রথমে সাহায্য করবেন বলেও পরে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছেন দাদা হৃতিকও। আর এই জন্য নাকি কঙ্গনা রানাউতের বোন রঙ্গোলিকে ফোন করে সাহায্যও চেয়েছেন সুনয়না। সম্প্রতি, এই বিষয়ে মুখ খুলেছেন সুনয়নার প্রেমিক সাংবাদিক রুহেল আমিন।

[আরও পড়ুন: ‘মুসলমান ছেলের সঙ্গে প্রেম, নরকে বাস করছি’, বিস্ফোরক হৃতিকের বোন ]

রুহেলের প্রশ্ন তুলেছেন, যে হৃত্বিক ও সুজানের ক্ষেত্রে কোনওরকম গোঁড়ামি না দেখিয়ে কেন মেয়ে সুনয়নার ক্ষেত্রে অন্যরকম পথে হাঁটলেন বাবা রাকেশ রোশন? রুহেলের মত, ভিন ধর্মের মানুষের মধ্যেই মনের মানুষকে খুঁজে পেয়েছেন সুনয়না, আর সেই জন্যই রোশন পরিবারের সকলের কাছে চক্ষুশূল হয়ে উঠেছেন সুনয়না। এর আগে অবশ্য, সুনয়নাও দাবি করেছেন যে বাবা রাকেশ রোশন তাঁকে থাপ্পড় মেরেছেন। দাদা হৃত্বিকও ঠিক সময়ে তাঁর পাশে এসে দাঁড়াননি। এমনকি রুহেলকে সন্ত্রাসবাদী আখ্যা দিয়েছেন সুনয়নার পরিবার। এই প্রসঙ্গে সাংবাদিক তথা সুনয়নার প্রেমিক রুহেল বলেন, “বর্তমান পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে একজনকে শুধু তাঁর ধর্মের পরিপ্রেক্ষিতে বিচার করা খুবই দুর্ভাগ্যজনক। একটা সময় হৃত্বিকও তো সুজানকে বিয়ে করেছিলেন। তিনিও তো ইসলাম ধর্মাবলম্বী ছিলেন। কই তখন তো কোনও রকম আপত্তি ওঠেনি রোশন পরিবার থেকে! তাহলে এখন কেন এত আপত্তি তাঁদের!” 

[আরও পড়ুন: অতনু ঘোষের ফ্রেমে জয়া-ঋত্বিকের সম্পর্ক বাঁধা ‘বিনিসুতোয়’]

বলিমহলে কান পাতলেই দিন কয়েক আগে শোনা যেত, বাইপোলার ডিজঅর্ডারে ভুগছেন হৃতিকের বোন সুনয়না। শোনা গিয়েছিল, মাদকাসক্ত সুনয়না নাকি মানসিক অবসাদের শিকার৷ সুস্থ হয়ে ওঠার জন্য রিহ্যাবেও যেতে হয়েছে তাঁকে। কিন্তু সেই জল্পনার আঁচে জল ঢেলেছিলেন সুনয়না স্বয়ং৷ টুইটে স্পষ্ট ভাষায় জানিয়েছিলেন যে তাঁর কোনও সমস্যা নেই৷ এই ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই ফের খবরের শিরোনামে আসেন সুনয়না৷  সম্প্রতি বাবা রাকেশ রোশন এবং দাদা হৃত্বিকের উপর অভিযোগ এনে টুইটারে সুনয়না লিখেছিলেন, “পরিবারের থেকেও আমি আলাদা রয়েছি। কারণ আমি মুসলিম ছেলেকে ভালবেসেছি, তাই বাবা আমাকে চড় মেরেছিল। দাদাও আমার পাশে দাঁড়ায়নি। বাড়ির পরিবেশ দিন দিন আমার জন্য অস্বস্তিকর হয়ে উঠছে। মনে হচ্ছে বেঁচে থেকেই নরকে বাস করছি।”  

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং