BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

বিনা অনুমতিতে সুশান্তের ওষুধ পালটেছিলেন দিদি প্রিয়াঙ্কাই, বিস্ফোরক দাবি রিয়ার আইনজীবীর

Published by: Suparna Majumder |    Posted: September 1, 2020 3:28 pm|    Updated: September 1, 2020 3:28 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ না করেই সুশান্ত সিং রাজপুতের (Sushant Singh Rajput) ওষুধ পালটে দিয়েছিলেন তাঁর দিদি প্রিয়াঙ্কা সিং (Priyanka Singh)। সেই কারণেই ৮ জুন সুশান্তের ফ্ল্যাট ছেড়ে চলে গিয়েছিলেন রিয়া চক্রবর্তী (Rhea Chakraborty)। এমনটাই দাবি করেছেন রিয়ার আইনজীবী সতীশ মানেশিণ্ডে (Satish Maneshinde)।

[আরও পড়ুন: সুশান্তের মৃত্যু নিয়ে ‘সার্কাস’ চলছে! বিস্ফোরক তাপসী পান্নু]

সম্প্রতি সুশান্ত ও তাঁর দিদি প্রিয়াঙ্কার একটি হোয়াটসঅ্যাপ (Whatsapp) চ্যাট প্রকাশ্যে এসেছে। যেখানে প্রিয়াঙ্কা প্রথমে এক সপ্তাহের জন্য সুশান্তকে লিব্রিয়াম ওষুধ নেওয়ার কথা লেখেন। তারপর থেকে সকালের খাবারের পর ১০ মিলিগ্রাম নেক্সিটো নিতে বলেছিলেন। অ্যাংজাইটি অ্যাটাক হলে লোনাজেপ নেওয়ার পরামর্শ দেন প্রিয়াঙ্কা। যার উত্তরে সুশান্ত লিখেছিলেন, প্রেসক্রিপশন ছাড়া তাঁকে কেউ ওই ওষুধ দেবে না। এতে প্রিয়াঙ্কা জানান তাঁর এক বন্ধু চিকিৎসক। তাঁর কাছ থেকে ‘ম্যানেজ’ করে দেবেন। ৮ জুনের ওই প্রেসক্রিপশনে দিল্লির রামমোনহর লোহিয়া হাসপাতালের কার্ডিওলজিস্ট ডা: তরুণ কুমারের সই রয়েছে।

[আরও পড়ুন: করোনায় আক্রান্ত মেক-আপ আর্টিস্ট, হোম কোয়ারেন্টাইনে অভিনেত্রী সোহিনী সরকার]

এর আগে সুশান্তের পরিবারের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছিল, অভিনেতার মানসিক অবসাদের কথা কেউ জানতেন না। প্রিয়াঙ্কা-সুশান্তের হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট প্রকাশ্যে আসার পর থেকেই বিভিন্ন মহলে এনিয়ে জল্পনা শুরু হয়ে যায়। সেই সূত্র ধরেই সতীশ মানেশিণ্ডে জানান, ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া প্রিয়াঙ্কা ওষুধ দেওয়ার পরই তা নিয়ে সুশান্তের সঙ্গে তাঁর ঝামেলা। সুশান্ত রিয়াকে বাড়ি চলে যেতে বলেন। তারপরই ভাই সৌভিককে ফোন করে তাঁকে নিয়ে যেতে বলেন রিয়া। কীভাবে এই প্রেসক্রিপশন সুশান্তকে জোগাড় করে দেওয়া হয়েছিল? সেই প্রশ্নও তোলেন রিয়ার আইনজীবী। সুশান্ত কাণ্ডে রিয়া ও তাঁর ভাই সৌভিকের পাশাপাশি তাঁদের বাবা-মাকেও জিজ্ঞাসাবাদ করবেন সিবিআইয়ের (CBI) গোয়েন্দারা। এদিকে গোয়ার ব্যবসায়ী গৌরব আরিয়াকে জিজ্ঞাসাবাদ করছেন এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টোরেট (ED)।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement