৬ শ্রাবণ  ১৪২৬  সোমবার ২২ জুলাই ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ

৬ শ্রাবণ  ১৪২৬  সোমবার ২২ জুলাই ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কঙ্গনা রানাউতকে নিয়ে তোলপাড় গ্ল্যামার ইন্ডাস্ট্রি। বলিউড থেকে টলিউডের একাধিক সেলেব্রিটি অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন। তার মধ্যে যেমন রয়েছেন গায়িকা সোনা মহাপাত্র, তেমনই রয়েছেন বাঙালি অভিনেত্রী স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়। এমনকী ‘জাজমেন্টাল হ্যায় কেয়া’ ছবিতে কঙ্গনার কো-স্টার রাজকুমার রাও-ও অভিনেত্রীকে নিয়ে মুখ খুলেছেন।

সম্প্রতি কঙ্গনা রানাউতের একটি ভিডিও প্রকাশ করেছেন তাঁর ম্যানেজার রঙ্গোলি চান্দেল। সেখানে কঙ্গনা মিডিয়াকে ‘দেশদ্রোহী’, ‘বিক্রিত’, ‘সস্তা’ ও ‘ক্লাস টেন ফেল’ আখ্যা দেন তিনি। বলেন, প্রেস কনফারেন্সে এঁরা বিনামূল্যে খেতে চলে আসেন। অভিনেত্রী আরও বলেন, “তোমাদের কেনার জন্য তো লাখ টাকাও চাই না। তোমরা তো এতটাই সস্তা যে ৬০ টাকায় বিক্রি হয়ে যাও।” এরপরই সাংবাদিকদের পূর্বপুরুষদের তুলে আনেন তিনি। বলেন, তাঁদেরও তিনি ঘোল খাইয়ে ছেড়েছেন। অভিনেত্রীর এমন আস্ফালন দেখে হতবাক তাঁর অনেক অনুরাগী৷

[ আরও পড়ুন: ‘জীবন ছোট হচ্ছে’, ‘সুপার ৩০’ নিয়ে আবেগপ্রবণ নেপথ্য নায়ক আনন্দ কুমার ]

হতবাক স্বস্তিকাও। তিনি টুইটারে লেখেন,তিনি বরাবরই  কঙ্গনার অনুরাগী। তাঁর সাহসিকতা, ট্যালেন্টেরও তিনি ভক্ত। বরাবরই কঙ্গনার লড়াইকে তিনি সমর্থন করেছেন। কিন্তু এখন মনে হচ্ছে কঙ্গনা ক্রমশ সংযম হারাচ্ছেন। সাংবাদিকদের নিয়ে তিনি যা মন্তব্য করেছেন, তা অপ্রচলিত, অপমানজনক এবং কৌতুকপূর্ণ। তার উপর কঙ্গনার দিদি রঙ্গোলি যা বলছেন, তাও মেনে নেওয়া যায় না। স্বস্তিকার কথা প্রতিধ্বনিত হয়েছে গায়িকা সোনা মহাপাত্রের গলাতেও। যখন কোনও মহিলা তাঁর সাফল্যের জন্য, প্রতিবন্ধকতার বিরুদ্ধে লড়াই করে, তার থেকে বড় কিছু হয় না। কিন্তু কঙ্গনা এখন যা বলছেন, তা কিছুতেই সমর্থন করতে পারছেন না সোনা।

যেদিন ঘটনাটি ঘটেছিল, সেদিন কঙ্গনার সঙ্গে ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন রাজকুমার রাও। তবে সেদিন সমস্ত স্পটলাইট একাই কেড়ে নিয়েছিলেন অভিনেত্রী। অন্যতম প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেও কোনও কথা বলার সুযোগ পাননি রাজকুমার। পরেও তাঁকে ছবি নিয়ে জিজ্ঞাসা করার পাশাপাশি কঙ্গনার এমন ব্যবহার নিয়ে প্রশ্ন করা হয়েছিল। তবে উত্তরে একেবারে কূটনৈতিক উত্তর দেন অভিনেতা। বলেন, “এটা সম্পূর্ণ কঙ্গনার দৃষ্টিভঙ্গি। আমরা স্বাধীন দেশে বাস করি। আমরা মনে করি প্রত্যেকের নিজস্ব দৃষ্টিভঙ্গি রয়েছে। অনেকে আছেন যাঁরা সততার জন্য কঙ্গনাকে পছন্দ করেন।”

[ আরও পড়ুন: ক্ষমা চাওয়া দূর অস্ত, সংবাদমাধ্যমকে ‘দেশদ্রোহী’ বলে দেগে আরও রোষে কঙ্গনা ]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং