২৪ চৈত্র  ১৪২৬  মঙ্গলবার ৭ এপ্রিল ২০২০ 

Advertisement

১০ বছরে দশজনের রহস্যমৃত্যু, নিষিদ্ধ ফিল্মসিটিতে ‘ইন্ডিয়ান ২’র শুটিং ঘিরে বিতর্ক

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: February 23, 2020 12:46 pm|    Updated: February 23, 2020 12:46 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ‘ব্যানড’ লোকেশনে কেন শুটিং হচ্ছিল? ‘ইন্ডিয়ান ২’ ছবির সেট দুর্ঘটনা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন! অনেকদিন আগেই চেন্নাইয়ের ইভিপি স্টুডিওকে নিষিদ্ধ করে দেওয়া হয়েছে। কারণ, গত ১০ বছরে এই স্টুডিওতেই শুটিং চলাকালীন মর্মান্তিকভাবে মৃত্যু হয়েছে ১০ জনের। এবার সেরকমই এক দুর্ঘটনা ঘটল কমল হাসানের বিগ বাজেট ছবি ‘ইন্ডিয়ান ২’র সেটে। কে শুটিংয়ের অনুমতি দিল? পরিচালক শংকর কিংবা কমল হাসান কি জানতেন না যে ইভিপি স্টুডিওতে শুটিং করার জন্য বিশেষ অনুমতির দরকার হয়? পাশাপাশি উঠছে এসব প্রশ্নও। এছাড়াও, অনেকেই এই ঘটনার নেপথ্যে স্টুডিওয় ভৌতিক কোনও রহস্যের গন্ধ পাচ্ছে।

প্রসঙ্গত, গত বুধবার চেন্নাইয়ের ইভিপি ফিল্ম সিটির যে স্টুডিওতে শুটিং চলছিল, লোকেশন হিসেবে অনেক দিন আগেই সেই জায়গাকে নিষিদ্ধ করে দিয়েছিল FEFSI (Film Employees Federation of South India)। এ প্রসঙ্গে FEFSI আধিকারিক জানিয়েছেন, “দুর্ঘটনায় চন্দ্রন নামে যে প্রোডাকশন অ্যাসিস্ট্যান্টের মৃত্যু হয়েছে তিনি এই সংগঠনের একজন সদস্য ছিলেন। শুধুমাত্র উদাসীনতার জন্য আমরা চন্দ্রনের মতো একজন দক্ষ কর্মীকে হারালাম। FEFSI অনেকদিন আগেই ইভিপি স্টুডিওকে ‘ব্যানড’ করে দেওয়া হয়েছে। গতবছরও বেশ কিছু বিগ বাজেট ছবির শুটিং করার অনুমতি দেওয়া হয়নি সেখানে। কর্তৃপক্ষের অনুরোধের জন্যই ইভিপিতে আবার শুটিংয়ের জন্য অনুমতি দেওয়া হয়েছে। তবে ‘ইন্ডিয়ান ২’ শুটিংয়ের আগে যদি যথাযথভাবে সাবধানতা অবলম্বন করা হত কিংবা এই বিষয়গুলি একটু মাথায় রাখা হত, তাহলে হয়তো এরকম তরতাজা তিনটে প্রাণ হারাতে হত না।”  

অন্যদিকে গোটা ঘটনায় তামিলনাড়ু পুলিশের তরফে কমল হাসান এবং পরিচালক শংকরকে আইনি সমন পাঠানো হবে বলে জানা গিয়েছে। যদিও মৃতদের পরিবারের সাহায্যে এগিয়ে এসেছেন সেই কমল হাসান। প্রত্যেক পরিবারকে ১ কোটি টাকা আর্থিক সাহায্যের ঘোষণা করেছেন। প্রসঙ্গত, এর আগেও ওই ফিল্ম সিটিতে ১০ জন কর্মীর মৃত্যু হয়েছে। ‘বিজিল’ ছবির শুটিংয়ের সময়ও একজনের মাথায় লাইট সেট-আপ পড়ে এভাবেই মৃত্যু হয়েছিল।

গত বুধবারই কমল হাসানের ‘ইন্ডিয়ান ২’ ছবির সেটে ভয়াবহ দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে ৩ জনের। ১০ জন গুরুতর জখম অবস্থায় হাসপাতালে ভরতি। সেটে দৈত্যাকার এক ক্রেন প্রায় দেড়শো ফুট উপর থেকে পরেই ওই ভয়াবহ দুর্ঘটনা ঘটে। ক্রেনেই যান্ত্রিক গোলযোগ থাকার কারণে এই ভয়াবহ দুর্ঘটনা ঘটেছে। যার জেরে শুক্রবারই ক্রেন অপারেটর রঞ্জন নামে ওই ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে তামিলনাড়ু পুলিশ। ঘটনার পর থেকেই পলাতক ছিলেন ওই ব্যক্তি। তবে এবার প্রকাশ্যে এল আরও এক চাঞ্চল্যকর তথ্য। বুধবার চেন্নাইয়ের যে লোকেশনে শুটিং হচ্ছিল, সেই নিষিদ্ধ লোকেশন নিয়েই উঠছে প্রশ্ন।

Advertisement

Advertisement

Advertisement