১১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

‘হবুচন্দ্র রাজা গবুচন্দ্র মন্ত্রী’ ও ‘টনিক’ মুক্তি নিয়ে চিন্তিত প্রযোজক দেব! নেপথ্যে ‘ভিলেন’ করোনা

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: March 14, 2020 4:52 pm|    Updated: March 14, 2020 4:52 pm

Tollywood actor producer Dev is concern about his upcoming projects

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিদেশি লোকেশনে ‘কম্যান্ডো’র শুটিং তো বাতিল হয়েইছে, উপরন্তু প্রযোজক হিসেবেও অভিনেতা দেবের কপালে এখন চিন্তার ভাঁজ। সামনেই দেব এন্টারটেইনমেন্টস প্রযোজিত ‘হবুচন্দ্র রাজা গবুচন্দ্র মন্ত্রী’ এবং ‘টনিক’ (অতনু রায়চৌধুরির সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে প্রযোজিত) মুক্তি পাচ্ছে। পয়লা মে মুক্তি পাওয়ার কথা ‘হবুচন্দ্র রাজা গবুচন্দ্র মন্ত্রী’র এবং অন্যদিকে দেব অভিনীত এবং যৌথভাবে প্রযোজিত ‘টনিক’ আসছে ৮মে। পাক্কা ১ সপ্তাহের ব্যবধানে দুটো ছবি মুক্তি পাওয়ার কথা। আর সে কারণেই উদ্বিগ্ন দেব। নেপথ্যে ‘ভিলেন’ করোনা।

করোনার জেরে দেশের একাধিক রাজ্যে আপাতত বন্ধ সিনেমা হল। দিল্লি, জম্মু-কাশ্মীর, মধ্যপ্রদেশ, রাজস্থান, বিহার ও কেরলের মতো একাধিক রাজ্যে স্কুল-কলেজ, অফিস-সহ বন্ধ হয়েছে সিনেমা হলগুলিও। রিপোর্ট বলছে, টিকিটের বিক্রি কমেছে ৫০ শতাংশ। শনিবারই প্রিয়া সিনেমা হলের অধিকর্তা অরিজিৎ দত্ত জানিয়েছেন, “করোনার আতঙ্কে প্রেক্ষাগৃহমুখো হচ্ছেন না দর্শকরা। এমন লোকসানে হল চালানো কঠিন।”

মিনার, বিজলি ও ছবিঘর সিনেমাহলের মালিক সুরঞ্জন পাল জানিয়েছেন, “মানুষ এখন অনেক বেশি স্বাস্থ্য সচেতন। সেই কারণেই সিনেমাহলে আসছেন না তাঁরা। তার ফলে টিকিট বিক্রি কমেছে। নবীনা সিনেমাহলের মালিক নবীন চৌখানি জানিয়েছেন, ‘আংরেজি মিডিয়াম’ ছবির ফার্স্ট ডে ফার্স্ট শোয়ে মাত্র ৫০ জন দর্শক ছিলেন। অথচ এই সিনেমাহলে প্রায় ৮০০ মানুষ একসঙ্গে সিনেমা দেখতে পারেন। সেদিক থেকে দেখতে গেলে ৫০ শতাংশ সিটও বুক হয়নি। এর চেয়ে হল বন্ধ করে দেওয়া ভাল বলে মত তাঁর। তবে আরও কিছুদিন পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে রাখার পক্ষপাতী তিনি।

আর ঠিক এখানেই আশঙ্কা দেবের। প্রযোজক অভিনেতা জানিয়েছেন, দেশের অন্যান্য রাজ্যগুলির পর এবার পশ্চিমবঙ্গেও প্রেক্ষাগৃহ বন্ধ হতে পারে খুব শীঘ্রই। করোনার জেরে বড়সড় ধাক্কা খাচ্ছে বিশ্বের অর্থনীতি। পাশাপাশি দেব এও জানিয়েছেন যে, এমতাবস্থায় তাঁদের রেস্তরাঁতেও বর্তমানে লোক কম আসছেন। ‘কম্যান্ডো’র শুটিংয়ের জন্য ২২ মার্চ বাংলাদেশে যাওয়াও বাতিল হয়েছে দেবের।

[আরও পড়ুন: করোনার জেরে বন্ধ দেশের একাধিক রাজ্যের প্রেক্ষাগৃহ, ভারতে ফের মুক্তি পাবে ‘আংরেজি মিডিয়াম’ ]

করোনার জেরে যে অন্যান্য ক্ষেত্রের পাশাপাশি বিনোদুনিয়াও জোর ধাক্কার সম্মুখীন হতে চলেছে অদূর ভবিষ্যতে, তার ইঙ্গিত বলিউডের একাধিক ছবির মুক্তি পিছনোতেই সুস্পষ্ট! অক্ষয় কুমার অভিনীত ‘সূর্যবংশী’, রণবীর সিং অভিনীত ‘৮৩’র মুক্তি পিছিয়েছে। ২০ মার্চ রিলিজ করছে না আন্তর্জাতিক পুরস্কারপ্রাপ্ত তিলোত্তমা সোমের ছবি ‘স্যার’। করোনা ত্রাসে একাধিক শুটিংও বাতিল হয়েছে। প্রচুর লোকশন বাতিল হয়েছে। এক্ষেত্রে নির্মাতাদের আগাম বুকিংয়ের টাকাও জলে। বিদেশে একাধিক শো বাতিল করেছেন দীপিকা পাড়ুকোন, হৃতিক রোশন, সলমন খান-সহ অনেকে। বরুণ ধাওয়ানের বিয়ের ভেন্যুও পরিবর্তন হয়েছে। আংশিক হলেও করোনার প্রভাব থেকে বাদ পড়েনি টলিউড। দেবের বাংলাদেশের প্রথম ছবি কম্যান্ডোর শুটিং শিডিউল থেকে বাতিল হয়েছে থাইল্যান্ড-সহ একাধিক জায়গা।

[আরও পড়ুন: মৃত্যু উপত্যকায় একলা ‘ড্রাকুলা’ অনির্বাণের সঙ্গে মিমি, টিজারে রহস্য রোমাঞ্চের ইঙ্গিত]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে