২৬ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  শুক্রবার ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:  সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ সক্রিয় তিনি। শুটিং হোক কিংবা পার্টি, নিজের নানা মুহূর্তের ছবি ইনস্টাগ্রামে ভক্তদের সঙ্গে শেয়ারও করেন। ফলোয়ারের সংখ্যাও দিন দিন লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। বরাবরই ঠোঁট কাটা স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়। কোনও বিষয়েই লুকোছাপা করার অভ্যেস তো নেই-ই তাঁর। কাউকে রেয়াতও করেন না। স্পষ্ট ভাষায় নিজের বক্তব্য জাহির করতে তাঁর জুড়ি মেলাও ভার। সেই স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায় ছবি পোস্ট করে ফের নেটিজেনদের কটাক্ষের শিকার হলেন।

[আরও পড়ুন:  জ্বলছে পৃথিবীর ফুসফুস, আমাজনের জঙ্গল বাঁচানোর অনুরোধ ‘শংকর’ দেবের]

দিন দুয়েক আগেই স্বস্তিকা ইনস্টাগ্রামে ডিজাইনার পোশাকে বেশ কয়েকটি ছবি আপলোড করেছিলেন। ঢিলেঢালা ওভার সাইজড গেঞ্জির সঙ্গে দিব্যি মানিয়েছিল তাঁকে সাদা শাড়িতে। সেই লুকে নয়া মাত্রা যোগ করতে আবার রঙিন রোদ চশমা এবং লিপস্টিক। পোশাকের ব্যাপারে বরাবরই সাহসী স্বস্তিকা। যে কোনও পোশাক বেশ স্বাচ্ছন্দ্যের সঙ্গেই পরতে পারেন। ঠিক এরকমই কিছু ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছিলেন স্বস্তিকা। আর তাতেই ট্রোলের স্বীকার হন অভিনেত্রী। পোস্টের কমেন্ট সেকশনে অশালীন মন্তব্য করা শুরু করে নেটিজেনরা। স্বস্তিকার বোল্ড লুকে কেউ বা আবার তাঁকে ‘দেহব্যবসায়ী’র আখ্যা দেন। কেউ আবার স্বস্তিকার স্তন নিয়ে মন্তব্য করে বলেন, “স্তন ঝুলে গিয়েছে নাকি?” আর বরাবরের মতো এবারও একহাত নিতে ছাড়েননি স্বস্তিকা। অশালীন বক্তব্যে বেজায় মিষ্টি ভাষায় কড়া বাণ ছোড়েন। প্রত্যুত্তরে বলেন, “হ্যাঁ দাদা, মানসিকতা ঝুলে যাওয়ার থেকে ভাল। তাই না বলুন?”

[আরও পড়ুন:  পরিচালকের সঙ্গে অভব্য আচরণ! বিতর্কে জড়িয়ে মুখ খুললেন ঋত্বিক চক্রবর্তী]

আরেক পোস্টে তাঁর লুকে ‘দেহব্যবসায়ী’র তকমা সাঁটলে, সেখানেও মোক্ষম জবাব দেন স্বস্তিকা। তিনি বলেন, “আমি দেহব্যবসায়ীদের ভালোবাসি। তাঁরা সমাজের গুরুত্বপূর্ণ সম্পদ, তাঁরা সমাজের নোংরাকে নিজের মধ্যে নিয়ে নেন। যার জন্য আমার কিংবা আপনার বাড়ির মা-বোনেরা শান্তিতে ও সুরক্ষিত থাকেন। যদি আমাকে তাঁদের মতো দেখতে লাগে তাতে আমার কিচ্ছু যায় আসে না।”

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং