৩০ চৈত্র  ১৪২৭  মঙ্গলবার ১৩ এপ্রিল ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

‘বিজেপি করি বলেই ২ বছর কাজ নেই’, একান্ত সাক্ষাৎকারে অভিযোগ অঞ্জনা বসুর

Published by: Suparna Majumder |    Posted: March 23, 2021 5:50 pm|    Updated: March 23, 2021 6:54 pm

An Images

গৌতম ভট্টাচার্য: “বিজেপি করি বলেই ২ বছর ধরে কাজ নেই।” সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটালের ফেসবুক (Facebook) লাইভে একথাই বললেন বিজেপির তারকা প্রার্থী অঞ্জনা বসু (Anjana Basu)। বাংলা সিরিয়ালের জগতের পরিচিতি মুখ অঞ্জনা বসু। এক সময় চুটিয়ে কাজ করেছেন ‘বিধির বিধান’, ‘বধূবরণ’, ‘বিজয়িনী’র মতো ধারাবাহিকে। তবে এখন তাঁর পরিচিতি বিজেপির তারকা প্রার্থী (BJP Candidate) হিসেবে। সোমবারই প্রার্থী হিসেবে নিজের মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। মঙ্গলবার সংবাদ প্রতিদিনের মুখোমুখি হয়ে অভিনেত্রী জানান, দু’বছর আগেও ইন্ডাস্ট্রির বন্ধুরা যখন তাঁকে বলতেন ব্রিগেডে না গেলে কাজ পাবেন না। সেকথায় বিশ্বাস করতেন না তিনি। বরং উলটে নিজে তাঁদের বলতেন, “কই আমার সঙ্গে তো এমনটা হয়নি”। কিন্তু এই বিশ্বাস দুই বছর আগে পালটে যায়। কিছু বন্ধুদের দিল্লি নিয়ে গিয়ে বিজেপির সদস্য করেছিলেন তিনি। তারপর থেকেই আর টলিপাড়ায় তাঁকে কাজ করতে ডাকা হয় না বলে দাবি করেন সোনারপুর দক্ষিণের (Sonarpur Dakshin) বিজেপি প্রার্থীর।

সোশ্যাল মিডিয়ায় তেমন আপডেট দিতে পছন্দ করেন না অঞ্জনা বসু। কবে কোনও কাজই হালকাভাবে নেন না। অনেকদিন ধরেই বিজেপির সঙ্গে আছেন। কিন্তু প্রার্থী হওয়ার কোনও উচ্চাকাঙ্খা তাঁর ছিল না বলেই জানান। অবশ্য যখন দায়িত্ব নিয়ে ফেলেছেন, তখন কোমর বেঁধেই প্রচারের ময়দানে নেমে পড়েছেন। ঢাক বাজিয়ে মনোনয়নও জমা দিয়েছেন, আবার দুয়ারে দুয়ারে গিয়ে মানুষের সমস্যার কথাও শুনছেন।

দক্ষিণ ২৪ পরগনার (South 24 Parganas) সোনারপুর দক্ষিণের প্রার্থী হিসেবে নাম ঘোষণার পরই এলাকায় বাড়ি ভাড়া নিয়েছেন অঞ্জনা বসু। এখন লকেট চট্টোপাধ্যায় তাঁর প্রতিবেশী। তাঁর আগে থেকেই রাজনীতিতে রয়েছেন লকেট। তাঁর কাছ থেকে প্রয়োজনীয় পরামর্শও নিচ্ছেন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (PM Narendra Modi) ও অমিত শাহর (Amit Shah) অনুপ্রেরণাতেই এগোচ্ছেন বলে জানান। পাশাপাশি সোনারপুরে পুরসভা কোনও কাজ করেনি বলেও অভিযোগ করেন।

[আরও পড়ুন: ভোটের আবহে ফের তৃণমূলে তারকা যোগ, এবার ঘাসফুলে রিজওয়ান-পায়েল-প্রিয়া]

সোনারপুরের প্রার্থী হয়ে কলকাতায় অফিস। ভোটের পর এলাকায় যাবেন তো? প্রশ্নের উত্তরে অঞ্জনা জানান, আগে জানলে সোনারপুরেই অফিস করতেন তিনি। আর বিজেপি নেতারা ভোটের পরেও মানুষের কাছে যান বলে দাবি করেন তিনি। রোদ না কমলে প্রচারে না বেরোনোর মতো নেত্রী তিনি নন বলেই দাবি করেন অঞ্জনা। পাশাপাশি ভোটের পর চিরঞ্জিৎ চক্রবর্তী, শতাব্দী রায়, মুনমুন সেন, সন্ধ্যা রায়ের মতো তারকাদের পাওয়া যায় না বলেও জানান তারকা প্রার্থী।

নির্বাচনী আবহে বিপক্ষ দলের প্রার্থীদের মধ্যে কাদা ছোড়াছুড়ি চলতেই থাকে। সেই পথে হাঁটতে চান না অঞ্জনা। বিপক্ষ তৃণমূল প্রার্থী (TMC candidate) লাভলি মৈত্রকে তিনি স্নেহ করেন বলেই দাবি করেন। যদিও তিনি নাকি শুনেছেন তাঁর মুখে স্নেহ শব্দ শুনলেই নাকি লাভলি রেগে যান। তাতে অবশ্য বিন্দুমাত্র বিচলিত নন বলেই জানান অঞ্জনা। উপরন্তু তিনি প্রচণ্ড রোদে সাবধানে লাভলিকে প্রচারে যাওয়ার পরামর্শ দেন।

দেখুন ভিডিও – 

[আরও পড়ুন: ‘প্রার্থী পালালো রাস্তা দিয়ে’, শাড়ির কুঁচি ধরে ছুট সায়নীর, কারণ খুঁজতে মরিয়া নেটিজেনরা]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement