১০ আষাঢ়  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২৫ জুন ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ

১০ আষাঢ়  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২৫ জুন ২০১৯ 

BREAKING NEWS

ভোট ঘোষণার দিন! সকাল থেকে রাত পর্যন্ত রুদ্ধশ্বাস ওয়ান ডে টিভি ভিউয়িং! বিষ্যুদবার ফিল গুড কাটানোর গাইড দিচ্ছে কফিহাউস।

খেলা শুরু সকাল আটটায়

ভোট গণনার উত্তেজনায় যাঁরা সকাল-সকাল ঘুম থেকে উঠে পড়বেন, তাঁদের কথা আলাদা। বাকিদের জন্য প্রথমেই বলে রাখা ভাল, আজ রাতে ফোনে অ্যালার্ম দিতে ভুলবেন না। না হলে প্রথম বল পড়ার এক্সাইটমেন্ট মিস করে যাবেন। খালিপেটে এত উত্তেজনা ভাল নয়, সুতরাং ভারী ব্রেকফাস্ট মাস্ট। সুইগি, জোম্যাটোর মতো ফুড ডেলিভারি অ্যাপ কাল সকাল সাতটা থেকে সার্ভিস শুরু করে দিচ্ছে। রান্নাঘরে ঢুকতে না চাইলে আনিয়ে নিন ডিম-পাঁউরুটি থেকে লুচি-তরকারি, মন যা চায়। খবরদার, স্ত্রী বা মায়ের কাছে কালকের দিনটা অন্তত ‘এটা খাব’ ‘ওটা খাব’ বলে বায়না করবেন না। তাঁরাও নিশ্চয়ই টিভি থেকে এক মিনিটও সরতে চাইবেন না!

টিভির বিলটা দেওয়া হয়েছে তো?dish tv

টাটা স্কাই, এয়ারটেল টিভি বা অন্যান্য ডিটিএইচ সার্ভিসে যাঁরা প্রতি মাসে টাকা দেন, এই পরামর্শ বিশেষ করে তাঁদের জন্য। প্রবল উৎসাহ নিয়ে টিভি খুলে হয়তো দেখলেন কোনও চ্যানেলই আসছে না। কারণ অনলাইন বিল দিতে ভুলে গিয়েছেন। এমন ম্যাসাকার এড়াতে আজ রাতেই চেক করে নিন আপনার ডিটিএইচ প্যাকের ভ্যালিডিটি। কেবল অপারেটরের সঙ্গে কথা বলে দেখে নিন, নিউজ চ্যানেলগুলো আপনার পছন্দের প্যাকে আছে তো?   

বসকে আজ মিথ্যে নয়

bossভোট কাউন্টিংয়ের এক সেকেন্ডও মিস করবেন না, তাই ঠিক করে ফেলেছেন কাল অফিস থেকে ডুব মারবেন। না, আমরা আপনাকে ‘জাজ’ করছি না। তবে ছোট্ট পরামর্শ, ‘জ্বর হয়েছে’ বা ‘মায়ের শরীর ভাল নেই’ জাতীয় ঢপ আজকের দিনটায় আর দেবেন না। ওগুলো বছরের বাকি দিনের জন্য তুলে রাখুন। আজ এ সব কারণ দিয়ে কালকের ছুটি মঞ্জুর করতে চাইলে কিন্তু কেউ বিশ্বাস করবে না। সোজাসুজি বলেই দিন, কালকের দিনটা ছুটি পেলে ভাল হয়। বা নিদেনপক্ষে হাফ-ডে যদি পাওয়া যায়।

ওষুধ কাছেmedicine

বিশ্বকাপ ফাইনাল বা ভারত-পাকিস্তান ক্রিকেট ম্যাচের চেয়ে কোনও অংশে কম হবে না কালকের উত্তেজনা। যতটা রোমহর্ষক, ততটাই আনপ্রেডিক্টেবল হতে পারে ভোট গণনার ম্যাচ। হতেই পারে যে, আপনার টিমের স্কোর দেখে হয়তো আঁতকে উঠলেন। হঠাৎ মনে হল, হার্টবিট বেড়ে যাচ্ছে। এসি ঘরেও কপালে ঘাম জমছে। এমন অবস্থায় কোনও রকম ঝুঁকি নেবেন না। হাতের কাছে দরকারি ওষুধ রেখে দিন। বিশেষ করে যাঁরা হৃদরোগ বা হাই প্রেশারে ভোগেন। সরবিট্রেট হোক বা নার্ভ ঠান্ডা করার ট্যাবলেট, পাশে রেখে দিন।

‘স্টক’ মার্কেট

beerনা, শেয়ারবাজারের কথা হচ্ছে না। যাঁদের জানার তাঁরা বুঝে গিয়েছেন। কাল ‘ড্রাই ডে’, তাই হঠাৎ গলা ভিজিয়ে নিতে ইচ্ছে করলে কিচ্ছু করার থাকবে না। বন্ধুবান্ধবের সঙ্গে যদি কাউন্টিং দেখার প্ল্যান থাকে, তাহলে তো আরওই স্টক পরিপুষ্ট করে রাখা দরকার। সন্ধের মধ্যে দোকান ফাঁকা হয়ে যেতে পারে, তাই বিকেল-বিকেল যা কেনার কিনে ফেলাই বুদ্ধিমানের কাজ। আজকের দিনটা পাড়ার দোকান সবার চাহিদা মেটাতে না পারলে স্পেন্সার্স বা সিথ্রি-র বড় আউটলেটে চলে যেতে পারেন। ভোট গণনা সন্ধে পর্যন্ত গড়ানোর ভালরকম সম্ভাবনা আছে, সুতরাং ফিংগার ফুড তুলে রাখতেও ভুলবেন না।

ফোনের যত্ন নিনphone

ভোট গণনা মানে শুধু তো নিজে টিভিতে দেখা নয়। বন্ধুদের সঙ্গে হোয়াটসঅ্যাপে কথাটাও বলা জরুরি। বিশেষ-বিশেষ টেনশনের মুহূর্তে ফোন করতে হবে। শেয়ার করলেই তো উত্তেজনা আরও বাড়বে। শুধু তাই নয়, টিভিতে চ্যানেল ঘোরানোর পাশাপাশি নেটে নিউজ সাইটগুলো চেক করতে হবে। না হলে পুরো ছবিটা পাবেন কী ভাবে? তা এ সব করতে হলে ফোন ফুল চার্জ দিতেই হবে। বিশেষ করে আজকালকার স্মার্টফোন, যেখানে খুব তাড়াতাড়ি চার্জ ফুরিয়ে যায়। সঙ্গে অবশ্যই দরকার ঠিকঠাক ওয়াইফাই সিগনাল। তাই আজই চেক করে ফেলুন, ওয়াইফাই বিল পিরিয়ড কবে শেষ হচ্ছে।

ভেজাল নয়, খাঁটি খবর

whatsappফেক নিউজের বাজার এমনিতেই সরগরম। তার উপর ভোট কাউন্টিংয়ের দিন তো তাদের রেড লেটার ডে। মরণকামড় যাকে বলে আর কী। প্লিজ ভুয়া খবরের ফাঁদে পা দেবেন না। হোয়াটসঅ্যাপে যা মেসেজ এল, তার সত্যতা যাচাই না করেই পাঁচজন বন্ধুকে ফরোয়ার্ড করে দিলেন, বা নামগোত্রহীন কোনও ওয়েবসাইটের সন্দেহজনক খবর ফেসবুকে শেয়ার করলেন, এমনটা কিন্তু চূড়ান্ত বোকামি। উত্তপ্ত হাওয়ায় আগুন লাগানোর জন্য একটা ফুলকিই যথেষ্ট। সেই ফুলকিটা আপনার হাত থেকে না হয় না-ই এল।

অব কী বার যে-ই আসুক, বন্ধুরা বারবারzomato

ভোট যেহেতু একটা লড়াই, এতে এক পক্ষ হারবে, এক পক্ষ জিতবে। সহজ-সরল তথ্যটাকে সহজে হজম করতে শিখুন। হতেই পারে, আপনার প্রিয় বন্ধু ‘হেরো’ টিমের সমর্থক। ফলাফল দেখে আপনার ইচ্ছে হল, তার লেগ-পুল করবেন। তা করতেই পারেন। কিন্তু খেয়াল রাখবেন, সেটা যেন এমন পর্যায়ে না চলে যায় যে আপনাদের বন্ধুত্বটাই চিরকালের জন্য নষ্ট হয়ে গেল। বা সম্পর্ক তেতো হয়ে গেল। ভোট জিতে দিল্লির মসনদে যে-ই বসুন না কেন, সে কিন্তু দুঃসময়ে আপনার চোখের জল মোছাতে আসবে না। ভোটের বাজারে গরমাগরম তর্ক ভাল, স্বাস্থ্যকরও। তাই বলে আপনার রাজনৈতিক বিশ্বাস পরিবার-কলিগ-বন্ধুদের গিলিয়ে দেবেন না প্লিজ। তার চেয়ে বরং কুলফি বা ভাল মিষ্টি বাড়িতে আনিয়ে রাখুন। ভোটের রেজাল্ট নির্বিশেষে যাতে দিনের শেষটা মিষ্টি হয়। কথায় বলে না, মধুরেণ সমাপয়েৎ!

অবশ্য টিভির আপডেট মিস করলে চিন্তার কোনও কারণ নেই। বরং নিজের কাজ সামলে ফলাফল সম্পর্কে বিস্তারিত জানুন আমাদের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে। দিনভর নির্বাচনের ফলাফলের যাবতীয় আপডেট পেতে ক্লিক করুন sangbadpratidin.in-এ।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং