৫ আষাঢ়  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ২০ জুন ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ

৫ আষাঢ়  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ২০ জুন ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অর্জুন কাপুরের ‘ইন্ডিয়াজ মোস্ট ওয়ান্টেড’-এর ট্রেলার মুক্তি পেয়েছে সদ্য। তবে, সেন্সর বোর্ডের ছাড়পত্র পাওয়ার আগে খানিক হোঁচট খেতে হয়েছিল এই ছবিকে। অবশেষে সেন্সর বোর্ড U/A সার্টিফিকেট দিয়ে ছাড়পত্র দিয়েছে। শর্ত ছিল একটাই। ছবিতে সংবেদনশীল কিছু দৃশ্য মুছে ফেলতে হবে। তবে, সমস্যাটা অন্যখানে। সেন্সরবোর্ড থেকে নির্দেশ দেওয়ার পরই সিনেমার সেই দৃশ্যগুলি ফাঁস হয়ে গিয়েছে ইন্টারনেটে।

[আরও পড়ুন:  আসছে ‘লাইফ ইন আ মেট্রো’-র সিক্যুয়েল, ছবির নাম জানেন?]

‘ইন্ডিয়াজ মোস্ট ওয়ান্টেড’ ছবির একটি দৃশ্যে খুন করার ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে ভগবত গীতার প্রসঙ্গ তুলে এক সন্ত্রাসবাদীকে বলতে শোনা গিয়েছে, “আত্মা কখনও মরে না। শরীর মরে। আমি মানুষকে মারছি না। শুধু তাঁর আত্মাটা অন্য শরীরে পাঠাচ্ছি। এটা আমি বলছি না, গীতাতে শ্রীকৃষ্ণ বলেছিলেন।” অন্যদিকে, সমস্যা হয়েছে অর্জুনের একটি দৃশ্য নিয়েও। ছবিতে ইন্টেলিজেন্স অফিসারের চরিত্রে দেখা যাবে তাঁকে। নাম প্রভাত কুমার। ভয়ঙ্কর ধুরন্ধর এক সন্ত্রাসবাদীকে ধরতে নিজের প্রাণ বাজি রাখতেও প্রস্তুত প্রভাত ওরফে অর্জুন। ফাঁস হওয়া এই ভিডিও ক্লিপগুলোতেই একটি দৃশ্যে দেখা গিয়েছে অর্জুন কাপুর কোরানের কথা বলছেন, “যারাই কোনও নির্দোষকে খুন করে, তারা গোটা মনুষ্যত্বের খুনি। এটা আমি বলছি না, কোরান শরিফে লেখা রয়েছে।”

৩০ সেকেন্ডের এই দু’টি দৃশ্য পোস্ট করে নেটিজেনদের তরফে প্রশ্ন তোলা হয়েছে, ‘ইন্ডিয়াজ মোস্ট ওয়ান্টেড’-এর প্রোমো সেন্সরবোর্ডের ছাড়পত্র পায়নি এবং ধর্মীয় বিতর্কের আশঙ্কায় সংলাপও মুছে ফেলা হয়েছে। সেন্সরবোর্ডের কি এটা করা ঠিক হয়েছে? সম্প্রতি, দিল্লিতে সংবাদমাধ্যমকে পরিচালক রাজ কুমার গুপ্তা নিশ্চিত করে জানান দৃশ্যগুলি মুছে ফেলা হয়েছে ছবি থেকে। আর তারপরেই এই ঘটনা।

[আরও পড়ুন: ফের ‘আলাদিন’ নিয়ে বিতর্ক, নেটদুনিয়ায় সমালোচিত উইল স্মিথের নাচ]

প্রসঙ্গত, ছবির ভিলেন ওসামা। এক সন্ত্রাসবাদী। যে কি না দেশের বিভিন্ন শহরে হওয়া একাধিক জঙ্গি হামলার মাস্টারমাইন্ড। ভারতের ‘মোস্ট ওয়ান্টেড’ সে। সবাই তাকে ‘ভারতের ওসামা’ বলে। সেই দেশদ্রোহীকে হন্যে হয়ে খুঁজে বেড়াচ্ছে গোটা দেশের পুলিশ। কিন্তু তার নাগাল পাওয়া দিনদিন প্রায় অসম্ভব হয়ে উঠছে। পাঁচ জনের একটি দল নিয়ে প্রভাত ওরফে অর্জুন বেরিয়ে পড়ে ‘ইন্ডিয়াজ মোস্ট ওয়ান্টেড’ ওসামাকে খুঁজতে। নেপালের কাঠমান্ডু থেকে দেশের বিভিন্ন শহরে চষে ফেলে সেই টিম। নেই হাতিয়ার, নেই সরকারের তরফ থেকে কোনওরকম সাহায্য। তাও ওসামাকে ধরতে প্রাণের বাজি রেখে নিজের দলকে নিয়ে এগিয়ে যায় গোয়েন্দা আধিকারিক প্রভাত। যেখানে প্রতি পদে পদে মৃত্যুর ছোবল। অর্জুন কি পারবে ‘ইন্ডিয়াজ মোস্ট ওয়ান্টেড’ ওসামাকে ধরতে? সেই গল্প জানতে হলে প্রেক্ষাগৃহের পর্দায় চোখ রাখতে হবে মে মাসের ২৪ তারিখ।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং