BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘এক দেশ, এক আওয়াজ’, করোনা যোদ্ধাদের কুর্নিশ জানিয়ে ১৪টি ভাষায় গান সংগীতশিল্পীদের

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: May 2, 2020 1:22 pm|    Updated: May 2, 2020 1:26 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা মোকাবিলায় গোটা দেশজুড়ে যখন লকডাউন জারি, পুলিশ-চিকিৎসকদের মতো জরুরী পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত কর্মীরা অক্লান্ত পরিশ্রম করে চলেছেন দিনরাত এক করে। সে সমস্ত করোনা যোদ্ধাদের কুর্নিশ জানাতেই একজোট হয়েছেন ১০০ জন বিশিষ্ট সংগীতশিল্পী। যাঁদের মধ্যে এই উদ্যোগে শামিল হয়েছেন প্রখ্যাত সংগীত শিল্পী আশা ভোসলে, কুমার শানু, সোনু নিগমের মতো ব্যক্তিত্বরাও। বিশিষ্ট শিল্পীদের কণ্ঠে শোনা যাবে ‘এক দেশ, এক আওয়াজ’। এই গান থেকে আয় হওয়া সমস্ত টাকাই তুলে দেওয়া হবে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল PM CARES-এ।

আশা ভোসলে, কুমার শানু (Kumar Shanu), সোনু নিগম (Sonu Nigam) ছাড়াও এই গানে কণ্ঠ দিয়েছেন হরিহরন, কৈলাশ খের (Kailash Kher), কবিতা কৃষ্ণমূর্তি, অলকা ইয়াগনিক, পঙ্কজ উদাস, শান (Shaan), উদিত নারায়ন (Udit Narayan), শঙ্কর মহদেবন, এসপি বালাসুভ্রমনিয়ামের মতো অনেক খ্যাতনামা সংগীত শিল্পীরই কণ্ঠ শোনা যাবে।  

‘ওয়ান নেশন, ওয়ান ভয়েস’ নামে এই গানটি মোট ১৪টি ভাষায় শোনা যাবে এই গান। বাংলা, হিন্দি, মারাঠি, গুজরাতি, তামিল, তেলুগু, কন্নাড়া, মালায়ালাম, ভোজপুরি, অসমীয়া, কাশ্মিরী, সিন্ধি, রাজস্থানী এবং ওড়িয়া ভাষাতেও রেকর্ড করা হয়েছে এই গান। আগামীকাল অর্থাৎ ৩ মে ইন্ডিয়ান সিংগারস রাইটস অ্যাসোশিয়েশনের পক্ষ থেকে জাতীর উদ্দেশে ‘এক দেশ, এক আওয়াজ’ গানটি প্রকাশ করবেন খ্যাতনামা সংগীত শিল্পী লতা মঙ্গেশকর। টেলিভিশন চ্যানেল, রেডিও, সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম সব মিলিয়ে প্রায় শতাধিক জায়গায় করোনা যোদ্ধাদের কুর্নিশ জানিয়ে অনলাইনে মুক্তি পাবে এই গান।

[আরও পড়ুন: হাসপাতাল থেকে ঋষির মৃত্যুশয্যার ভিডিও ফাঁস! কর্তৃপক্ষের নৈতিকবোধ নিয়ে প্রশ্ন তুলল সিনে ফেডারেশন]

গোটা বিশ্বে আজ ছড়িয়ে পড়েছে প্রাণঘাতী ভাইরাস করোনা। রোজই বাড়ছে আক্রান্ত। বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসছে মৃত্যুর খবর। এই মারণ ভাইরাসের ওষুধ বের করার জন্য একদিকে গবেষণাগারে বিজ্ঞানীরা অক্লান্ত পরিশ্রম করছেন। অন্যদিকে আক্রান্তদের সেবায় দিনরাত এক করে দিয়েছেন চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীরা। অথচ সাধারণ মানুষের মধ্যে ন্যূনতম সচেতনতাটুকুও নেই। লকডাউন অমান্য করে বাইরে বের হওয়া তো নিত্যদিনের ঘটনা হয়ে দাঁড়িয়েছে। এছাড়া চলছে পুলিশ ও চিকিৎসকদের মারধর। এইসব করোনা যোদ্ধারা, যাঁরা সম্মুখে থেকে লড়াই করছেন, তাঁদের শ্রদ্ধার্ঘ্য নিবেদন করতেই সংগীত শিল্পীদের এই উদ্যোগ।

[আরও পড়ুন: ‘মহারাজা শতবর্ষে তোমারে সেলাম’, সত্যজিৎ স্মরণে ‘ইস্কুলে বায়োস্কোপ’]

 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement