BREAKING NEWS

১৫ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  শুক্রবার ২৯ মে ২০২০ 

Advertisement

মেয়ের পর বাবা, বোরখা ইস্যুতে এবার তসলিমাকে একহাত নিলেন রহমান

Published by: Bishakha Pal |    Posted: February 22, 2020 3:38 pm|    Updated: February 22, 2020 5:00 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এ আর রহমানের কন্যা খাতিজাকে বোরখায় দেখলে তাঁর দমবন্ধ লাগে। কিছুদিন আগে এমন মন্তব্য করে বিতর্কে জড়িয়েছিলেন তসলিমা নাসরিন। লেখিকাকে এই প্রসঙ্গে কটাক্ষও করেছিলেন খাতিজা। এবার একই ইস্যু নিয়ে মুখ খুললেন খোদ এ আর রহমান। মেয়ের পাশে দাঁড়িয়ে তিনিও একহাত নেন তসলিমাকে।

একটি সংবাদমাধ্যমে সাক্ষাৎকার দিতে গিয়ে রহমান বলেন, তারা জানে উত্তরাধিকার সূত্রে কোন ভাল বা মন্দটা নিতে হবে। তাদের স্বাধীনভাবে ছেড়ে দেওয়া উচিত। খাতিজাকেও তাঁরা সেভাবেই বড় করেছেন। আর তারপর খাতিজা নিজের ইচ্ছাতেই গায়ে তুলে নিয়েছেন বোরখা। রহমান এও বলেন, এই বিষয়টি ধর্মের বাইরে এক মনস্তত্ত্বের ব্যাপার। ধর্মের ভেদাভেদকে কখনও গুরুত্ব দেন না তাঁর মেয়ে। খাতিজা একসময় একটি গান গেয়েছিলেন- ‘অহিংসা’। সেটি অনেকে তাঁদের রিংটোন রেখেছিলেন। যদি পুরুষদের বোরখা পরার চল থাকত, তবে তিনিও পরতেন বলে জানিয়েছেন রহমান। খাতিজা এমন একজন, যিনি তার পরিচারিকার আত্মীয়ের শেষকৃত্যে যান। তিনি নিজেই মাঝে মাঝে খাতিজার এমন কাজকর্মে বিস্মিত হয়ে যান।

[ আরও পড়ুন: রাঁধেন আবার চুলও বাঁধেন! ব্যস্ততা সামলে শিবরাত্রি পালন সাংসদ-অভিনেত্রী মিমির ]

প্রসঙ্গত, কয়েকদিন আগে একটি টুইট করেন তসলিমা। সেখানে বোরখা পরার জন্য একহাত নেন এ আর রহমানের মেয়ে খাতিজাকে। লেখিকা টুইটে স্পষ্ট অক্ষরে লেখেন, “একটি শিক্ষিত পরিবারের মেয়ের চিন্তাধারাও কীভাবে মগজধোলাই করে বদলে ফেলা হয়, তা ভাবলেও অবাক লাগে!” এর পরিপ্রেক্ষিতেই এমন ঝাঁজালো টুইট করেন রহমানকন্যা। সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি দীর্ঘ খোলা চিঠি লেখেন তিনি। সেখানে রহমানকন্যা জানান, দেশে এতকিছু ঘটে চলেছে আর একটা মেয়ে কী পোশাক পরতে চায়, সবাই তা নিয়ে ব্যস্ত। সরাসরি তসলিমা নাসরিনকে সম্বোধন করেন তিনি লেখেন, ‘প্রিয় তসলিমা নাসরিন, যদি আপনি আমার পোশাকের জন্য দমবন্ধ অনুভব করেন তবে আমি দুঃখিত। প্লিজ খানিকটা তাজা বাতাস নিয়ে আসুন। কারণ, আমার তো দমবন্ধ লাগছে না। আমি যেখানে দাঁড়িয়ে আছি, তার জন্য আমি গর্বিত। আমার প্রস্তাব, প্লিজ আপনি গুগল করে নারীবাদের আসল মানে দেখে নিন। কারণ, কোনও মহিলার উপর ফেটে পড়া বা এমন ইস্যুতে কোনও মেয়ের বাবাকে টেনে আনার মতো ঘটনাকে নারীবাদ বলে না। আর আমি আপনাকে আমার কোনও ছবি পাঠিয়েছি বলেও তো মনে পড়ে না।’

[ আর পড়ুন: সানির ফোন নম্বর চেয়ে বিতর্কে কবীর বেদী, জল্পনায় জল ঢাললেন অভিনেতা ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement