BREAKING NEWS

২৭ আষাঢ়  ১৪২৭  রবিবার ১২ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

সাক্ষাৎকারে রবীন্দ্রনাথকে ‘অপমান’, বাংলাদেশি গায়ক নোবেলকে একহাত নিলেন ইমন

Published by: Sayani Sen |    Posted: August 2, 2019 10:44 am|    Updated: August 2, 2019 11:40 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:  একটি লাইভ অনুষ্ঠানে রবীন্দ্রনাথকে বেনজিরভাবে অপমানের অভিযোগ উঠল বাংলাদেশি গায়ক নোবেলের বিরুদ্ধে৷ এই মন্তব্যের পর তাঁর সমালোচনায় সরব নেটিজেনরা৷ ক্ষুব্ধ গায়িকা ইমন চক্রবর্তীও৷ ফেসবুক পোস্টে নোবেলকে সামনে পেলে মারধরের ইচ্ছাপ্রকাশ করলেন তিনি৷    

[আরও পড়ুন: ‘দুর্গা দুর্গেশ্বরী’র জগদম্বার সঙ্গে পরিচয় করালেন দুর্গারূপী সন্দীপ্তা]

সম্প্রতি জি বাংলার রিয়ালিটি শো ‘সা-রে-গা-মা-পা’ শেষ হয়েছে৷ তাতে তৃতীয় হয়েছেন বাংলাদেশের প্রতিযোগী নোবেল৷ তবে তাঁর গুণমুগ্ধরা এই ফলাফলে মোটেও খুশি নন৷ অনেকের দাবি, নোবেলের সঙ্গে নাকি দুর্ব্যবহার করেছে ওই চ্যানেল কর্তৃপক্ষ৷ কৃতীদের যোগ্যতা নির্ণয়ও সঠিকভাবে হয়নি বলেই দাবি নোবেলের অনুরাগীদের৷ আপাতত বাংলাদেশেই রয়েছেন মাঈনুল আহসান নোবেল৷ সেখানেই একটি সাক্ষাৎকার দিতে দেখা যায় ঘরের ছেলেকে৷ ওই অনুষ্ঠানের ক্লিপিংস ভাইরাল হয়ে গিয়েছে নেটদুনিয়ায়৷ আর তারপরই নোবেলের বিরুদ্ধে সুর চড়াতে শুরু করেছেন নেটিজেনদের একাংশ৷

কিন্তু প্রশ্ন হল ওই সাক্ষাৎকারে কী এমন বলেছিলেন বহু মানুষের মনজয় করা গায়ক নোবেল? সঞ্চালকের সঙ্গে কথোপকথন চলাকালীন স্বভাবতই আসে রবীন্দ্রনাথের প্রসঙ্গ৷ আর তখনই নোবেল বলেন, ‘‘রবীন্দ্রনাথের লেখায় নয়, প্রিন্স মাহমুদের লেখায় আমার সোনার বাংলাকে বেশি ভালভাবে ব্যক্ত করা হয়েছে। এই গানের সঙ্গেই জড়িয়ে রয়েছে বাংলাদেশের আবেগ। বাংলাদেশের সঙ্গে, বাংলার মানুষের সঙ্গে এই সোনার বাংলার যোগ অনেক বেশি৷ এমনকী এই গানটিই বাংলাদেশের জাতীয় সংগীত হোক, এমন দাবিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরে মিছিলও হয়েছিল।’’

[আরও পড়ুন: নিউমার্কেটের পানওয়ালা রফিভক্ত, প্রিয় শিল্পীর মৃত্যুদিবসে বসালেন গান-পানের আসর]

একটি লাইভ অনুষ্ঠানে কীভাবে একজন গায়ক এভাবে রবীন্দ্রনাথকে অপমান করতে পারেন, তা নিয়ে আলোচনা হচ্ছে প্রায় সর্বত্রই৷ নোবেলের মন্তব্যের বিরোধিতায় সুর চড়িয়েছেন গায়িকা ইমন চক্রবর্তী৷ সাক্ষাৎকারটি দেখার পর নোবেলকে ‘চাবকাতে’ ইচ্ছা করে বলেই সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্টও করেন তিনি৷ ইমন বলেন, ‘‘শুধুই যে নোবেল বাংলাদেশকে অপমান করেছেন, জাতীয় সংগীতের অবমাননা করেছেন এমন নয়, বাঙালির সাংস্কৃতিক আত্ম্যাভিমানে আঘাত করেছেন। একজন শিল্পী হিসেবে আমি এর প্রতিবাদ করেছি।’’ পাশাপাশি ইমনের আরও দাবি, নোবেল তাঁর থেকে বয়সে অনেকটাই ছোট৷ তাই বড় দিদির মতো তাঁকে শাসন করতে চেয়েছেন৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement