৪ আশ্বিন  ১৪২৬  রবিবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিতর্ক একেবারেই পিছু ছাড়ছে না নোবেলের। একবার গান গাওয়ার আগে সুরকার ও গীতিকারের নাম না বলায় বিতর্কে জড়িয়েছিলেন তিনি। আর এবার তো রবীন্দ্রনাথকে নিয়ে আলটপকা মন্তব্য করায় জোর তর্ক শুরু হয়েছে তাঁকে নিয়ে। গায়িকা ইমন চক্রবর্তী তো তাঁকে রীতিমতো ‘চাবকাতে’ চান। কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়া এতে খুশি নয়। নোবেলের জন্য আরও বড় ‘শাস্তি’ চায় তারা।

[ আরও পড়ুন: ‘মুসলমান বলে অশ্লীল মন্তব্য’, জোম্যাটো গ্রাহকের কুরুচিকর টুইটের পালটা তসলিমার ]

নেটিজেনদের মতে ব্যান করা হোক নোবেলকে। ভারতের কোনও অনুষ্ঠানে যেন তাঁকে না দেখা যায়। “যে শিল্পী বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে সম্মান করতে পারে না, সে তাঁর শিল্পকে কী করে সম্মান করবে? তাঁর তো সাধনাতেই খামতি রয়েছে।” এমন অনেক বার্তা ঘুরে বেড়াচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। অনেকে আবার ইমতের বক্তব্যকে সমর্থন করে লিখেছেন, “ইমনের প্রতি ভক্তি আর ভালবাসা আরও অনেক বেড়ে গেল।” অনেকে তো নোবেলের তৃতীয় হওয়া নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন।

অন্যদিকে আবার নোবেলের তৃতীয় হওয়া নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে বাংলাদেশেও। অবশ্য সেখানকার নোবেল-ফ্যানেদের মতে, গায়কের গুণের সম্মান দেয়নি সা-রে-গা-মা-পা। নোবেলের মতো শিল্পী চ্যাম্পিয়নের যোগ্য। অথচ বাংলাদেশি বলেই তাঁকে তৃতীয় করা হল। এছাড়া দুর্ব্যবহারের অভিযোগও উঠেছে চ্যানেল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে৷ আপাতত বাংলাদেশেই রয়েছেন মাইনুল আহসান নোবেল৷ সেখানেই একটি সাক্ষাৎকার দিতে দেখা যায় ঘরের ছেলেকে৷ ওই অনুষ্ঠানের ক্লিপিংস ভাইরাল হয়ে গিয়েছে নেটদুনিয়ায়৷ আর তারপরই নোবেলের বিরুদ্ধে সুর চড়াতে শুরু করেছেন নেটিজেনদের একাংশ৷

[ আরও পড়ুন: সাক্ষাৎকারে রবীন্দ্রনাথকে ‘অপমান’, বাংলাদেশি গায়ক নোবেলকে একহাত নিলেন ইমন ]

কিন্তু প্রশ্ন হল ওই সাক্ষাৎকারে কী এমন বলেছিলেন বহু মানুষের মনজয় করা গায়ক নোবেল? সঞ্চালকের সঙ্গে কথোপকথন চলাকালীন স্বভাবতই আসে রবীন্দ্রনাথের প্রসঙ্গ৷ আর তখনই নোবেল বলেন, “রবীন্দ্রনাথের লেখায় নয়, প্রিন্স মাহমুদের লেখায় আমার সোনার বাংলাকে বেশি ভালভাবে ব্যক্ত করা হয়েছে। এই গানের সঙ্গেই জড়িয়ে রয়েছে বাংলাদেশের আবেগ। বাংলাদেশের সঙ্গে, বাংলার মানুষের সঙ্গে এই সোনার বাংলার যোগ অনেক বেশি৷ এমনকী এই গানটিই বাংলাদেশের জাতীয় সংগীত হোক, এমন দাবিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরে মিছিলও হয়েছিল।”

একটি লাইভ অনুষ্ঠানে কীভাবে একজন গায়ক এভাবে রবীন্দ্রনাথকে অপমান করতে পারেন, তা নিয়ে আলোচনা হচ্ছে প্রায় সর্বত্রই৷ নোবেলের মন্তব্যের বিরোধিতায় সুর চড়িয়েছেন গায়িকা ইমন চক্রবর্তী৷ সাক্ষাৎকারটি দেখার পর নোবেলকে ‘চাবকাতে’ ইচ্ছা করে বলেই সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্টও করেন তিনি৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং