১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  সোমবার ১৮ নভেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সম্প্রতি আবার জোরদার হয়ে উঠেছে #MeToo মুভমেন্ট। দিন কয়েক আগে নাট্যব্যক্তিত্ব সুদীপ্ত বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে ওঠা ধর্ষণের অভিযোগ নিয়ে তোলপাড় হয়েছিল সোশ্যাল মিডিয়ায়। এবার অভিযোগ উঠল ‘মহীনের ঘোড়াগুলি’র গায়ক রঞ্জন ঘোষালের বিরুদ্ধে। এক তৃতীয় বর্ষে পাঠরতা এক তরুণী ফেসবুকে রীতিমতো স্ক্রিনশট দিয়ে গায়কের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছেন।

ফেসবুকে ওই তরণী লিখেছেন, যখন তাঁর ষোল বছর বয়স, তখনই এসব শুরু হয়। সেলিব্রিটি হওয়ায় রঞ্জন ঘোষালের সঙ্গে আলাপ জমান তিনি। অভিযোগ, তখন থেকেই বিভিন্ন অ্যাঙ্গেলে ওই তরুণীর ছবি চাইতেন তিনি। শাড়ি পরা ছবিতে কেন নাভি দেখা যাচ্ছে না, তা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন রঞ্জন ঘোষাল। এমনকী, বাথরুমের ভেতরের ছবিও চেয়ে বসেন তিনি। ছোট বয়সের উন্মাদনায় একাধিক ছবি পাঠান ওই তরুণী। তাঁর বক্তব্য, সেই সময় #MeToo কী বোঝার মতো বোধ তৈরি হয়নি তাঁর। যতদিনে বুঝেছেন, ততদিনে জল অনেকদূর গড়িয়ে গিয়েছে। কিন্তু তিনি প্রতিবাদ করতে পারেননি। কারণ, সমাজ। ওই পোস্টে তরুণী রঞ্জন ঘোষালকে ‘মলেস্টার’ বলে উল্লেখ করেছেন। লিখেছেন, “উনি এখনও একটা অমানুষ রয়ে গেছেন। সাথে পিডোফিলও। রঞ্জন ঘোষাল হইতে সাবধান। উনি প্রতিভাবান হতেই পারেন কিন্তু উনি নিঃসন্দেহে একটি খারাপ মানুষ।”

sushmita

screen-shot

[ আরও পড়ুন: শিশুদের যৌন হেনস্তা রুখতে ইউনিসেফের মুখ হলেন আয়ুষ্মান ]

ওই তরুণীর সমর্থনে এগিয়ে এসেছে অনেকে। অনেকে তাঁর সাহসের প্রশংসা করেছে। তবে শুধু তৃতীয় বর্ষের ওই তরুণী নন, আরও একজন ফেসবুকে রঞ্জন ঘোষালের বিরুদ্ধে লম্বা-চওড়া পোস্ট করেছেন। তিনিও লিখেছেন, ‘মহীনের ঘোড়াগুলি’র এই গায়ক তাঁর থেকে মোবাইল নম্বর চেয়েছিলেন। বলেছিলেন, “নতুন প্রজন্ম কী ভাবছে আমার জানা দরকার।” তারপর থেকে দু’জনের মধ্যে কথোপকথন চলতে থাকে। কথা প্রসঙ্গেই একদিন যৌনতার কথা ওঠে। তখনই রঞ্জন ঘোষাল ওই তরুণীর সঙ্গে সঙ্গমে লিপ্ত হতে চান। সেই সময় তিনি কিছু বলতে পারেনি। তবে তরুণী এও দাবি করেন, তাঁর কাছে কোনও প্রমাণ নেই।

hiya

যদিও রঞ্জন ঘোষাল এই নিয়ে একটি সংবাদমাধ্যমে প্রকাশ্যে ক্ষমাও চেয়েছেন। বলেছেন, ওগুলো তাঁর মুহূর্তের ভুল ছিল। যদিও তাতে আস্বস্ত হয়নি নেটিজেনরা। একজন শিল্পী কীভাবে এমন ব্যবহার করতে পারেন, তা নিয়ে নিন্দায় সরব হয়েছে তারা। প্রসঙ্গত, এর আগে সাহিত্যিক শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়ের মেয়ে দেবলিনা মুখোপাধ্যায়ও রঞ্জন ঘোষালের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছিলেন। এনিয়ে আদালতে মামলাও করেন তিনি। পরে রঞ্জন ঘোষাল ক্ষমা চাইলে মামলা প্রত্যাহার করে নেন তিনি।

[ আরও পড়ুন: সংস্কৃততে টুইট লেডি গাগার, ধেয়ে এল ‘জয় শ্রীরাম’ মন্তব্য! ]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং