BREAKING NEWS

২৬  শ্রাবণ  ১৪২৯  সোমবার ১৫ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

নিজভূমে পরবাসী কাশ্মীরি পণ্ডিতদের যন্ত্রণার ছবি, কেমন হল বিধু বিনোদের ‘শিকারা’?

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: February 7, 2020 5:08 pm|    Updated: February 8, 2020 4:36 pm

'Shikara: The Untold Story of Kashmiri Pandits' movie review

সালটা ১৯৯০। কাশ্মীরি পণ্ডিতদের ভিটে-মাটি থেকে উৎখাত হতে হয়েছিল। তিন দশক পর কেমন আছেন সেই বাস্তুহারারা? সেই প্রশ্নের উত্তর খুঁজতেই ‘শিকারা: দ্য আনটোল্ড স্টোরি অফ কাশ্মীরি পণ্ডিতস’। লিখছেন সন্দীপ্তা ভঞ্জ

পরিচালক– বিধু বিনোদ চোপড়া

অভিনয়ে– আদিল খান, সাদিয়া, প্রিয়াংশু চট্টোপাধ্যায়

প্রেক্ষাপট নয়ের দশক। ১৯৯০ সালের জানুয়ারি। জ্বলছে কাশ্মীর। পুড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে হিন্দুদের ঘরবাড়ি। কখনও বোমা মেরে তো কখনও মাথায় বন্দুক ঠেকিয়ে স্বভূমি থেকে উৎখাত করা হচ্ছে পণ্ডিতদের। এরকম এক প্রেক্ষাপটেই কাশ্মীরি যুগলের ভালবাসার গল্প বুনেছেন বিধু বিনোদ চোপড়া। তাঁদের প্রেমকাহিনির মধ্যে দিয়েই কাশ্মীরি পণ্ডিতদের যন্ত্রণার কথা তুলে ধরতে চেয়েছিলেন। নৈসর্গিক কাশ্মীরি দৃশ্যের মাঝে বিধুর ফ্রেশ জুটি শিবকুমার ধর এবং স্ত্রী শান্তির মিষ্টি রসায়ন। শিব-শান্তির ভাল-‘বাসা’র নাম ‘শিকারা’। শিকারা জুড়ে তাদের দাম্পত্য খুনসুঁটি। তাঁদের উপর হঠাৎ আক্রমণ। চোখের সামনে কাছের মানুষকে খুন করতে দেখা। এককাপড়ে ঘরবাড়ি ছেড়ে চলে আসা দম্পতির শরণার্থী শিবিরে ঠাঁই হওয়া… সবই ‘শিকারা’য় দেখিয়েছেন বিধু বিনোদ চোপড়া। মিষ্টি সম্পর্কের কাহন, যন্ত্রণার টুকরো ছবি, যাবতীয় রসদ মজুত থাকলেও জমল না ‘শিকারা: দ্য আনটোল্ড স্টোরি অফ কাশ্মীরি পণ্ডিতস’। কাশ্মীরি পণ্ডিতদের ‘আনটোল্ড স্টোরি’ ‘আনটোল্ড’-ই রয়ে গেল।

কাশ্মীরি পণ্ডিতদের যন্ত্রণার ত্রিশ বছরের থেকেও পর্দাজুড়ে শুধু ভালবাসার কাহিনি দেখালেন পরিচালক বিধু বিনোদ চোপড়া। ‘শিকারা’ প্রশ্নের মুখে দাঁড় করাতে পারত সেসব মাথাদের যাঁরা দেশের সবরকম ইস্যু নিয়ে সরব হলেও কোনও দিন সেই উদ্বাস্তু কাশ্মীরি পণ্ডিতদের নিয়ে মুখ খোলেননি। কিংবা এই ছবি জবাব হয়ে দাঁড়াতে পারত, উপত্যকার সেসব হিন্দুদের জন্য, যাঁদের ভিটে-মাটি ছাড়তে বাধ্য করা হয়েছিল। কিন্তু না! ছবির বিষয়বস্তু তীক্ষ্ণ শোনালেও তাতে ঠিকঠাক শান না দেওয়ায় মনে আঁচড় কাটতে পারলেন না পরিচালক বিধু।

[আরও পড়ুন: ভারতে শিশুপাচার রুখতে উদ্যোগী কেটি পেরি, ব্রিটিশ সংস্থার নয়া শুভেচ্ছাদূত গায়িকা]

ছবির স্টারকাস্ট যাতে বিষয়বস্তুকে ছাপিয়ে না যেতে পারে, সেজন্য এক ফ্রেশ জুটি রাখা হয়েছে। চেনা বলতে একমাত্র প্রিয়াংশু চট্টোপাধ্যায়। দীর্ঘ দিন বাদে সিনেপর্দায় ধরা দিলেন। তবে গোটা সিনেমায় ৯০ সালের অশান্ত কাশ্মীরের থেকে যুগলের প্রেমকাহিনি আর দাম্পত্য রসায়নই ফুটে উঠল বেশি। নয়ের দশকের সাদা-কালো টিভিতে প্রতিবেশী দেশের তৎকালীন সন্ত্রাস উসকানিমূলক বার্তার দৃশ্যও রয়েছে। তবে সিনেমার প্লটে ‘টেনশন’ মিসিং! গভীরভাবে ফুটে উঠল না। ছোট ছোট আবেগ-অনুভূতিগুলো আরও যত্ন নিয়ে ফুটতে পারত। কিন্তু ছবিতে সেটাও অনুপস্থিত। বরং যন্ত্রণা নয়, কাশ্মীর থেকে ‘শিকারা’য় একমুঠো প্রেম পাঠালেন বিধু বিনোদ চোপড়া

[আরও পড়ুন:পুরভোটে গ্ল্যামার না অভিজ্ঞ রাজনীতিক? প্রার্থী নির্বাচন নিয়ে মতানৈক্য বিজেপির অন্দরে! ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে