৪ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ২১ নভেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

বেলগাছিয়া রাজবাড়িতে শুটিং চলছিল ‘ইরাবতীর চুপকথা’ সিরিয়ালের। কাট হতেই এগিয়ে এলেন মনামী ঘোষ। আড্ডায় শ্যামশ্রী সাহা। 

যেটুকু শুটিং দেখলাম তাতে সিরিয়ালের পরিবেশ বেশ উত্তপ্ত মনে হল। ভালবাসার কোনও লক্ষণ নেই। এই উত্তাপের বরফ কবে গলবে?

মনামী: এখন তো এরকমই চলবে। বরফ একদম শেষে গলবে (হাসি)।

‘পুণ্যিপুকুর’-এর পর আপনি আবার লিড রোলে। লিড ছাড়া টিভিতে মুখ দেখাবেন না?

মনামী: এটা আমি প্রথম থেকেই ডিসাইড করেছি যে, লিড ছাড়া অভিনয় করব না। এই সিদ্ধান্তটা অনেকেই ধরে রাখতে পারে না। আমার কাছেও সেকেন্ড লিডের অফার এসেছে, কিন্তু আমি দৃঢ়প্রতিজ্ঞ ছিলাম যে আমি সেকেন্ড লিডে কাজ করব না। এর জন্য আমাকে অনেক প্রিয় মানুষকে না বলতে হয়েছে, অনেক প্রিয় হাউসকে না বলতে হয়েছে, যাদের সঙ্গে আমি কাজ করতে চাই তাদেরও না বলতে হয়েছে। কিন্তু আমি কম্প্রোমাইজ করিনি। তা ছাড়া যে হাউস আমার সঙ্গে কাজ করছে তারাও আমাকে লিডে চাইছে, তাই আমি কাজ পাচ্ছি। দর্শকও আমাকে এখনও লিড রোলে পছন্দ করছেন। আমি জায়গাটা ধরে রাখতে পেরেছি।

এখন অনেকগুলো সিরিয়াল চলছে যার টিআরপি বেশ হাই। ‘ইরাবতীর চুপকথা’ সবে শুরু হয়েছে। আপনাদের টিআরপি বাড়ানোর চাপ নেই?

মনামী: সে তো চাপ একটা থাকেই। তবে হাউসের দিক থেকে কোনও চাপ নেই। হাউস একটা ভাল সিরিয়াল বানাতে চায়। সেই দিকটাই এখানে প্রাধান্য পাবে। আমরাও খুব ভাল একটা গল্প দর্শকদের দেখাতে চাই। দর্শকের ভাল লাগলে টিআরপি আসবেই। আর যদি টিআরপি না আসে তাহলে একটু খারাপ লাগবে। কিন্তু এটা ভেবে আমরা খুশি হব, আমরা দর্শকদের একটা ভাল গল্প দেখাতে পেরেছি।

‘বেলাশেষে’ থেকে ‘মাটি’, মাঝখানে অনেকটা গ্যাপ। সিনেমায় আপনার ইন্টারেস্ট নেই?

মনামী: আমার কাছে সিনেমার লিড রোলের অফার, মানে যে ছবিগুলো খুব ভাল, সে রকম অফার কিন্তু আসেনি। যেগুলো এসেছে, আমার পছন্দ হয়নি। তবে সিনেমায় যে চরিত্রগুলো করেছি, ছোট হলেও বেশ গুরুত্বপূর্ণ। তাই এখানে আমি রিজিড থাকতে পারিনি।

৩৩ দিনে হয়ে উঠুন সুন্দরী, রইল দরকারি টিপস ]

পাওলি দাম আর আপনি দু’জনেই শুরু করেছেন টিভি থেকে। ‘মাটি’-তে পাওলি লিডে, আপনি অপেক্ষাকৃত ছোট রোলে। এই দিকটা নিয়ে কখনও ভেবেছেন?

মনামী: আমি পপুলারিটি টেলিভিশন থেকেই পেয়েছি। টেলিভিশনের দর্শকরা আমাকে খুব ভালবাসেন। তাই আমি টেলিভিশনকেই বেশি গুরুত্ব দিয়েছি। সিনেমা করার জন্য টেলিভিশনকে ছাড়তে পারব না। এখানে কাজ করে আমি খুব হ্যাপি। যে জায়গাটা আমাকে পপুলারিটি দিয়েছে, পয়সা দিয়েছে, আমার কেরিয়ার তৈরি করে দিয়েছে, সেই জায়গাটা আমার কাছে খুব গুরুত্বপূর্ণ। সিনেমায় আমি অভিনয় করব কিন্তু সিনেমার জন্য টেলিভিশনকে ছাড়ব না।

এখন তো অনেকে ওয়েব সিরিজ করছেন। আপনাকে কোনও ওয়েব সিরিজে দেখা যাচ্ছে না?  

মনামী: মাঝখানে কয়েকটা অফার এসেছিল। আমি তো একটা মেগা সিরিয়াল করছি আর এই গল্পটা আমাকে নিয়েই। ডেট নিয়ে সমস্যা হতে পারে তাই নতুন কাজ নিতে পারছি না। পরে ভাল গল্প পেলে নিশ্চয়ই কাজ করব।

আপনার এই শাড়ি পরা মিষ্টি মেয়ের ইমেজটা ভাঙতে ইচ্ছে করে না? নেগেটিভ ক্যারেক্টার করতে ভয় পান?

মনামী: আসলে নায়িকারা তো নেগেটিভ হয় না। নেগেটিভ ক্যারেক্টার যে করিনি তা নয়। দর্শক আমাকে পজিটিভ চরিত্রে দেখতে পছন্দ করেন।

এখন সিনেমার অফার এলে ছেড়ে দেবেন?

মনামী: অফার আছে তো। বেশ ভাল অফার। তাই ছাড়তে পারিনি। ডিসেম্বর থেকে শুটিং শুরু হওয়ার কথা।

কোন সিনেমা? আপনার ক্যারেক্টার কতটা ইম্পর্ট্যান্ট?

মনামী: সেটা এখনই বলতে পারব না। ওরা কাস্টিং অ্যানাউন্স করবে আলাদা ইভেন্ট করে। সে জন্য এখন একদম চুপ।

আপনি প্রথম থেকে আজ পর্যন্ত একই রকম। আপনার বয়স বাড়ে না। এটা এখন শুধু প্রশ্ন নয়, কৌতূহলের বিষয়।

মনামী: (হাসি) আসলে কী জানেন তো, আমাদের বাড়িতে সবাইকেই বয়সের থেকে অনেক ছোট দেখতে লাগে। আমি একটা নিয়মের মধ্যে চলি। আর মনামী মানুষটা ভিতরে বাইরে একই রকম আছি। তাই হয়তো একই রকম লাগে।

প্রায় দশ বছর আপনি একটা রিলেশনে আছেন। কিন্তু এখনও বিয়েটা করে উঠতে পারেননি। সেটা কি আপনার ব্যস্ত শিডিউলের জন্য?

মনামী: আমি আর সৈকত প্রায় দশ বছর রিলেশনে আছি। কিন্তু বিয়ে নিয়ে আমি এখন কিছু বলব না।

‘নতুন করে দেবী চৌধুরাণীকে দর্শকমনে প্রতিষ্ঠা করতে চাই’ ]

যেটুকু শুটিং দেখলাম তাতে সিরিয়ালের পরিবেশ বেশ উত্তপ্ত মনে হল। ভালবাসার কোনও লক্ষণ নেই। এই উত্তাপের বরফ কবে গলবে?

মনামী: এখন তো এরকমই চলবে। বরফ একদম শেষে গলবে (হাসি)।

প্রায় দশ বছর আপনি একটা রিলেশনে আছেন। কিন্তু এখনও বিয়েটা করে উঠতে পারেননি। সেটা কি আপনার ব্যস্ত শিডিউলের জন্য?

মনামী: আমি আর সৈকত প্রায় দশ বছর রিলেশনে আছি। কিন্তু বিয়ে নিয়ে আমি এখন কিছু বলব না।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং