২৬ বৈশাখ  ১৪২৯  মঙ্গলবার ১৭ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

অশালীন দৃশ্য ও সংলাপের অভিযোগ, পাকিস্তানে নিষিদ্ধ ‘বীরে দি ওয়েডিং’

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: May 31, 2018 1:26 pm|    Updated: May 31, 2018 2:01 pm

Pakistan bans Kareena Kapoor movie ‘Veere Di Wedding’

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ‘রাজি’ ও ‘পরমাণু’র পর এবার পালা ‘বীরে দি ওয়েডিং’-য়ের। এই ছবিটির উপরও জারি হতে চলেছে নিষেধাজ্ঞা। আগামী ১ জুন মুক্তি পেতে চলেছে ছবিটি। কিন্তু ভারতে মুক্তি পেলেও পাকিস্তানে থিয়েটারের মুখ দেখবে না বীরে। ছবিতে নাকি কুরুচিপূর্ণ সংলাপ ও অশালীন দৃশ্য রয়েছে। তাই পাকিস্তানে ছবিটি মুক্ত করা হবে না বলে জানিয়েছে সেদেশের সেন্সর বোর্ড।

[ তুমুল জনপ্রিয়তা সত্ত্বেও কর্ণাটকে মুক্তি পাবে না রজনীকান্তের ‘কালা’ ]

পাকিস্তানের সেন্সর বোর্ডের চেয়ারম্যান ড্যানিয়েল গিলানি বলেছেন, বোর্ডের সদস্যরা ‘বীরে দি ওয়েডিং’ ছবিটিকে পাকিস্তানে মুক্তি দিতে চায় না। তাদের মনে হয়েছে, ছবিটি থিয়েটারে নিয়ে গিয়ে জনতাকে দেখানো উচিত নয়। এই ছবির বিষয়বস্তু সেদেশের সেন্সরশিপ অফ ফিল্ম কোড ১৯৮০-এর বিরুদ্ধাচরণ করছে।

এর আগে আলিয়া ভাট অভিনীত ছবি ‘রাজি’ ও জন আব্রাহাম অভিনীত ছবি ‘পরমাণু’কে নিষিদ্ধ করেছে পাকিস্তান। ‘বীরে দি ওয়েডিং’ পাকিস্তানে মুক্তি পাবে কিনা তা নিয়ে গোলটেবিল বৈঠক বসে মঙ্গলবার রাতে। বাণিজ্যিক সংস্থা সূত্রের খবর, ছবিটিতে কুরুচিপূর্ণ সংলাপ ও অশালীন দৃশ্য রয়েছে বলে মত সেন্সর বোর্ডের। এই ইস্যু তুলে তারা ছবিটি পাকিস্তানে মুক্তি পেতে দিতে রাজি নয়। বোর্ডের সদস্যদের সমালোচনার পর দ্য ডিস্ট্রিবিউশন ক্লাব তাদের সার্টিফিকেশনের আবেদন তুলে নিয়েছে।

[ বয়সে ১০ বছরের ছোট, এই হলিউড তারকার সঙ্গেই প্রেম করছেন প্রিয়াঙ্কা? ]

‘বীরে দি ওয়েডিং’ ছবিটি পরিচালনা করেছেন শশাঙ্ক ঘোষ। এর আগে তিনি ‘খুবসুরত’ পরিচালনা করেছিলেন। ছবিটি প্রযোজনা করেছেন রিয়া কাপুর। ছবিতে অভিনয় করেছেন সোনম কাপুর, করিনা কাপুর খান, স্বরা ভাস্কর ও শিখা তালসানিয়া। মা হওয়ার পর করিনার এটি প্রথম ছবি। ছবি চলাকালীনই প্রেগন্যান্সির জন্য ছুটি নেন তিনি। ছেলে তৈমুরের জন্মের পর আবার এসে শুটিংয়ে যোগ দেন। সোনমের ক্ষেত্রেও ছবিটি স্পেশাল। বিয়ের পর এটি তাঁর প্রথম রিলিজ। স্বরার কেরিয়ারে এটি সম্পূর্ণ আলাদা রকম ছবি। তাঁকে সাধারণত অন্যধারার ছবি করতেই দেখা যায়। এমন আদ্যোপান্ত কমার্শিয়াল ছবিতে তাঁকে কমই দেখা গিয়েছে। শিখার এটি ডেবিউ ছবি।

এদিকে, বাংলাদেশে ইদ, পয়লা বৈশাখ বা অন্যান্য  অনুষ্ঠানে ভারতীয় এবং পাকিস্তানি চলচ্চিত্র দেশের প্রেক্ষাগৃহে চালানো যাবে না বলে নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশের সুপ্রিম কোর্ট। তবে যৌথ প্রযোজনার চলচ্চিত্রের ক্ষেত্রে কোনও সমস্যা নেই বলে জানিয়েছে আদালত। বাংলাদেশে চলচ্চিত্র প্রযোজক সমিতির একজন সদস্য কিছুদিন আগে হাইকোর্টে একটি আবেদন করেছিলেন। আবেদনে বলা হয়, বিভিন্ন উৎসবের সময় সিনেমা হলগুলোতে যাতে ভারতীয়, পাকিস্তানি বা বাংলাদেশের সঙ্গে যৌথ প্রযোজনার ছবি প্রদর্শন করতে না পারে। কিন্তু আদালত জানায়, যৌথ প্রযোজনার ছবি প্রদর্শনের ক্ষেত্রে কোনও সমস্যা নেই। তবে উৎসবের সময় সম্পূর্ণ ভারতীয় বা পাকিস্তানি ছবি দেখানো যাবে না।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে